Home /News /life-style /
Weight Loss : ওজন কমাতে খাবারের ক্যালোরি নিয়ে সর্বক্ষণ সজাগ থাকছেন? অজান্তেই ভুল হয়ে যাচ্ছে না তো!

Weight Loss : ওজন কমাতে খাবারের ক্যালোরি নিয়ে সর্বক্ষণ সজাগ থাকছেন? অজান্তেই ভুল হয়ে যাচ্ছে না তো!

weight loss

weight loss

Weight Loss : প্রতিবার খাওয়ার সময়ে ক্যালোরি মাপার অভ্যেস বা ক্যালোরি নিয়ে সচেতন থাকার বিষয়টা শরীরের জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ওজন কমানোর জন্য আজকাল প্রায় সকলেই ক্যালোরি মেপে খাওয়াদাওয়া করে থাকেন। তবে হয় তো অনেকেই যেটা জানেন না, সেটা হল- ক্যালোরি মেপে কোনও কিছু খেলে কিংবা পান করলে তার উপকারের চেয়ে বরং ক্ষতিটাই বেশি হয়। আসলে বিশেষজ্ঞরা বলেন, স্বাস্থ্যকর উপায়ে ওজন কমাতে চাইলে ক্যালোরির দিকে নজর দেওয়ার প্রয়োজন নেই। বরং ওজন কমাতে গেলে এক্সারসাইজ, ঘুমের মান, মানসিক চাপের মাত্রা এবং শারীরিক সমস্যার দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। যদিও নিজের শরীরের জন্য সঠিক ক্যালোরিটা জেনে রাখা দরকার। কিন্তু প্রতিবার খাওয়ার সময়ে ক্যালোরি মাপার অভ্যেস বা ক্যালোরি নিয়ে সচেতন থাকার বিষয়টা শরীরের জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে।

ক্যালোরি নিয়ে উদ্বেগ ও মানসিক চাপ:

ক্যালোরি মেপে খেলে অনেক সময়ই খাওয়াদাওয়ার উপর নানা রকম বিধিনিষেধ আরোপ হতে পারে। আর তার ফলে মানসিক চাপও বেড়ে যায়। গবেষণা থেকেই এই তথ্য বেরিয়ে এসেছে। আর এটা কিন্তু স্বাস্থ্যের পক্ষে মোটেই ভালো নয়। বিশেষ করে যাঁদের খাদ্যাভ্যাস সংক্রান্ত সমস্যা রয়েছে, তাঁদের তো ওজন কমানোর জন্য একেবারেই ক্যালোরি মাপা উচিত নয়। পাশাপাশি এক্ষেত্রে তাঁদের ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

ক্যালোরি মেপে খেলে উপেক্ষিত খিদে:

আসলে আমাদের শরীরের কী প্রয়োজন, সেটা প্রযুক্তিগত ট্র‍্যাকারের তুলনায় আমাদের শরীরই ভালো জানে। কারণ ট্র্যাকার ব্যবহার করার কারণে আমরা খিদে পেলেও খাই না, বরং ট্র্যাকার অনুযায়ী ক্যালোরি মেপে খাই। আর এভাবে ক্যালোরি মেপে খাওয়ার অর্থ হল, হয় আমরা বেশি খেয়ে ফেলছি, কিংবা খিদে পাওয়ার বিষয়টা বা দেহের সহজাত সঙ্কেতকে উপেক্ষা করছি। আর সহজাত প্রবৃত্তিকে উপেক্ষা করার ফলে খাদ্য ও শরীরের সম্পর্কটা নষ্ট হয়ে যায়। তাই ক্যালোরি না-গুনে শারীরিক চাহিদা অনুযায়ী ব্যালেন্সড ডায়েট অনুসরণ করেই স্বাস্থ্যকর উপায়ে ওজন কমানো সম্ভব।

ক্যালোরি মাপতে গিয়ে অতিরিক্ত খাওয়াদাওয়া:

২০১৪ সালের একটি গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়েছিল ব্রিটিশ জার্নাল অফ স্পোর্টস মেডিসিনে। তাতে বলা হয়েছে যে, ক্যালোরি কোথা থেকে আসছে, সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কারণ ওই ক্যালোরি আমাদের শরীরে ফ্যাট হিসেবে জমা হচ্ছে কি না, কিংবা ক্যালোরি এনার্জিতে পরিণত হচ্ছে কি না, অথবা ক্যালোরিকে অন্য কোনও কাজে লাগানো হচ্ছে কি না, এগুলোই ওই বিষয়টা থেকেই নির্ধারণ করা যায়। ক্যালোরি মাপার অ্যাপগুলিও সব সময় সঠিক পরিমাপ দেয় না। ব্যাপারটা সহজ ভাবে বুঝিয়ে বলা যাক। ধরা যাক কেউ অতিরিক্ত খেয়ে ফেললেন। সেক্ষেত্রে তিনি ক্যালোরি পরিমাপ করে বিষয়টা বোঝার পরেই ক্যালোরি ঝরাতে এক্সারসাইজ শুরু করবেন। এবার শারীরিক কসরতের ফলে আরও খিদে পেয়ে যাবে এবং তার ফলে আবার সেই অতিরিক্ত খাওয়াদাওয়াই হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন- ওজন থাকবে নিয়ন্ত্রণে আর ত্বকও হবে জেল্লাদার, পাতে থাকুক এই সব খাবার!

খানাপিনার আনন্দ উধাও:

খাবার খেলে শুধু পেটই নয়, ভরে মনও। আর ক্যালোরি মেপে খেলে পেট ভরানো গেলেও মন কিন্তু ভরবে না। কারণ সেক্ষেত্রে কী খাচ্ছি সেটা জরুরি হয় না, বরং কতটা ক্যালোরি খাবারে রয়েছে, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়। আর তাই মনপসন্দ কোনও খাবারে কামড় বসানোর সময় মনে শুধু এটাই চলতে থাকে যে, এতটা ক্যালোরি খেয়ে ফেলছি! আর অন্য দিকে, যদি ক্যালোরি না-গুনে খাবারকে ভালো ভাবে উপভোগ করা যায়, তাহলে সেই অভ্যেস ওজনও কমাতে সাহায্য করবে এবং পুষ্টির চাহিদাও মেটাবে।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Weight Loss

পরবর্তী খবর