• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • বাড়তি ওজন কমাতে বেশি করে জল খেতেই হবে, সঙ্গে ডায়েটে থাক এই খাবারগুলো !

বাড়তি ওজন কমাতে বেশি করে জল খেতেই হবে, সঙ্গে ডায়েটে থাক এই খাবারগুলো !

Representational Image

Representational Image

উৎসবের মরশুম শেষে বাড়তি ওজন কমিয়ে ফেলতে খাওয়া যেতে পারে কম ক্যালোরিযুক্ত খাবার। সঙ্গে বেশি করে জল না খেলেও নয়!

  • Share this:

#কলকাতা: দুর্গাপুজো, কালীপুজো, জগদ্ধাত্রীপুজো- উৎসবের দিনগুলোতে জমিয়ে খাওয়াদাওয়া চলছে তো চলছেই ! বাদ যায়নি জাঙ্ক ফুড, অয়েলি ফুড। লুচি-পরোটার আনন্দ শেষে বেড়েছে ওজন। আর ওজন বাড়া মানেই একাধিক শারীরিক সমস্যা। তাই উৎসবের মরশুম শেষে বাড়তি ওজন কমিয়ে ফেলতে খাওয়া যেতে পারে কম ক্যালোরিযুক্ত খাবার। সঙ্গে বেশি করে জল না খেলেও নয়!

১. জল

শরীর হাইড্রেট রাখতে, পেট বা ত্বক ভালো রাখতে সারা দিনে নির্দিষ্ট পরিমাণ জল পান করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। তবে, হাইড্রেট করার পাশাপাশি জল ওজন কমাতেও সাহায্য করে। ঘন ঘন খিদে পাওয়ার প্রবণতা কমায় ও শরীরে বিভিন্ন উপাদানের তারতম্য রক্ষা করে।

২. কুমড়ো, ঝিঙে, পটল প্রজাতির সবজি

কুমড়ো, ঝিঙে, শসা, পটল, স্কোয়াশ প্রজাতির সব সবজিই কম ক্যালোরিযুক্ত। সঙ্গে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন A। এই সবজি ডায়েটে রাখলে শরীরে যেমন ভিটামিনের ঘাটতি পূরণ হতে পারে, তেমন ক্যালোরিও নিয়ন্ত্রণে থাকতে পারে।

৩. টকজাতীয় ফল বা সবজি

ভিটামিন C-র প্রধান উৎস টকজাতীয় ফল বা সবজি। যা রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি ওজনও কমায়। এমন কিছু টকজাতীয় ফল রয়েছে যেগুলিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবারও থাকে। যা হজমের সমস্যা কমায়, পেট ভাল রাখে ও কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি দিতে পারে।

৪. গ্রিন টি

বিভিন্ন সিজনে বিভিন্ন ইনফেকশন থেকে বাঁচাতে সাহায্য করে গ্রিন টি। এতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেনস থাকে। এটি পান করলে বাড়তে পারে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাও। গ্রিন টি-তে থাকা ক্যাটেকিনস ফ্যাট বার্ন করে ও মেটাবলিজম বাড়ায়। ফলে রোজ গ্রিন টি পান করলে কমতে পারে বাড়তি ওজন।

৫. সবুজ শাক-সবজি

শাক-সবজি না-পসন্দ অনেকেরই। কিন্তু এই সব সবুজ শাক-সবজিতে খুবই কম ক্যালোরি থাকে। একাধিক পুষ্টিগুণের পাশাপাশি এগুলিতে থাকে হাই ফাইবারও। যা হজম প্রক্রিয়া ঠিক রাখে ও অতিরিক্ত খাওয়ার প্রবণতা কমাতে পারে। যার ফলে কমতে পারে ওজন।

৬. আদা-রসুন

ভারতীয় রান্নার পাশাপাশি ওয়েস্টার্ন ডিশেও ব্যবহার হয় আদা-রসুন। প্রত্যেক দিনের খাবারের তালিকায় অনেকেরই এই দুই জিনিস থাকে। যা কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। ভালো থাকে হার্ট। পাশাপাশি, একাধিক ক্রনিক ডিজিস নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে আদা-রসুন।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: