• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • একাধিকবার বেড়াতে গেলে বাড়ে আনন্দ, বলছে গবেষণা!

একাধিকবার বেড়াতে গেলে বাড়ে আনন্দ, বলছে গবেষণা!

বেড়াতে যেতে ভালোবাসেন? পাহাড়, সমুদ্র বা জঙ্গল আপনাকে চুম্বকের মতো টানে? তা হলে আপনার জীবন অন্যদের চেয়ে অনেক বেশি আনন্দ আর খুশিতে ভরা। ট্যুরিজম অ্যানালাইসিস নামের এক জার্নালে সম্প্রতি এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।

বেড়াতে যেতে ভালোবাসেন? পাহাড়, সমুদ্র বা জঙ্গল আপনাকে চুম্বকের মতো টানে? তা হলে আপনার জীবন অন্যদের চেয়ে অনেক বেশি আনন্দ আর খুশিতে ভরা। ট্যুরিজম অ্যানালাইসিস নামের এক জার্নালে সম্প্রতি এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।

বেড়াতে যেতে ভালোবাসেন? পাহাড়, সমুদ্র বা জঙ্গল আপনাকে চুম্বকের মতো টানে? তা হলে আপনার জীবন অন্যদের চেয়ে অনেক বেশি আনন্দ আর খুশিতে ভরা। ট্যুরিজম অ্যানালাইসিস নামের এক জার্নালে সম্প্রতি এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।

  • Share this:

#মুম্বই: বেড়াতে যেতে ভালোবাসেন? পাহাড়, সমুদ্র বা জঙ্গল আপনাকে চুম্বকের মতো টানে? তা হলে আপনার জীবন অন্যদের চেয়ে অনেক বেশি আনন্দ আর খুশিতে ভরা। ট্যুরিজম অ্যানালাইসিস নামের এক জার্নালে সম্প্রতি এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। বলা হয়েছে, যাঁরা মাঝে মধ্যেই বেড়াতে যান বা মোটামুটিভাবে বাড়ি থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরে যান, তাঁরা অনেক বেশি আনন্দময় জীবন যাপন করেন। ওয়াশিংটন স্টেট ইউনিভারসিটির তরফ থেকে চুন চু চেন জানিয়েছেন যে সামগ্রিক ভাবে ভালো থাকা অবশ্যই পারিবারিক জীবন, কর্মক্ষেত্র এবং বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে পারস্পরিক সম্পর্কের উপরে নির্ভর করে। কিন্তু তার সঙ্গে যদি বেড়ানোও যোগ হয়, তা হলে সামান্য হলেও এই ভালো থাকার তীব্রতা বেড়ে যায়। এটা জীবনের এক অন্যতম অভিজ্ঞতা যা কিছুটা হলেও আত্মতুষ্টির দিকে একজন ব্যক্তিকে নিয়ে যায়। চেনের কথার সূত্র ধরে বলা যায় যে এমনিতে একজন ব্যক্তি যখন বাড়িতে থাকেন বা শুধু বাড়ি আর অফিসের মধ্যে তাঁর যাতায়াত সীমাবদ্ধ থাকে, তখন তিনি একটি সামগ্রিক রুটিন অনুসরণ করেন। কিন্তু বেড়াতে গেলে সেই রুটিনের ছন্দ কিছুটা হলেও ভঙ্গ হয়। নিজের চেনা গণ্ডি থেকে বেরিয়ে এসে অন্য বৃত্তে পা রাখলে নানা রকমের অভিজ্ঞতা হয়, যা জীবনকে সমৃদ্ধ করে। এই গবেষণা করার জন্য ৫০০ জন ব্যক্তির উপরে একটি সমীক্ষা করা হয়। এই ৫০০ জনের মধ্যে মাত্র ৭% জানিয়েছেন যে তাঁরা সে ভাবে কোথাও বেড়াতে যান না। কিন্তু বাকিদের মধ্যে অর্ধেক জনতাই জানিয়েছেন যে তাঁরা সারা বছরে অন্তত ৪ টি ট্রিপ করেন। করোনা সংক্রমণের পর থেকেই বেড়ানোর ক্ষেত্রে অনেক বাধা নিষেধ এসেছে। এখন এক দেশ থেকে অন্য দেশে যাওয়া মানে অনেক নিয়মবিধি মেনে চলা। এই নিয়মের বেড়াজালের প্রভাব পড়েছে ট্যুরিজম শিল্পে। তবে গবেষকরা আশা করছেন যে করোনার প্রভাব স্তিমিত হলে এবং ভ্যাকসিন কার্যকরী হলে বেড়ানো আরও একটু বাড়বে এবং পর্যটন শিল্প কিছুটা হলেও ঘুরে দাঁড়াবে। চেন বলেছেন, এই গবেষণার মূল কথা ছিল এটা দেখা যে প্রকৃত অর্থে বেড়াতে যাওয়ার পরিবর্তে মানুষজন কী ভাবে বেড়ানো নিয়ে কথা বলে, পরিকল্পনা করে বা চিন্তা ভাবনা করে, সেটা দেখা! চেন মজার ছলে এটাও বলেন যে আগামী দিনে কোনও ট্রিপ প্ল্যান করার আগে এই গবেষণা কাজে আসবে।

Published by:Akash Misra
First published: