• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • বর্ষাকালে কাঠের ফার্নিচার ভাল রাখতে এগুলো করুন--

বর্ষাকালে কাঠের ফার্নিচার ভাল রাখতে এগুলো করুন--

আমদানিকৃত আসবাবপত্রের দাম বাড়ছে

আমদানিকৃত আসবাবপত্রের দাম বাড়ছে

কাঠের যম জল! কাজেই বর্ষাকালে বেচারা কাঠের আসবাবপত্রের করুণ অবস্থা হয়! যদিও বা বৃষ্টির জলের হাত থেকে রক্ষা করা গেল, কিন্তু ভেজা আবহাওয়াকে দূরে ঠেলবেন কী করে ?

  • Share this:

    #কলকাতা: কাঠের যম জল! কাজেই বর্ষাকালে বেচারা কাঠের আসবাবপত্রের করুণ অবস্থা হয়! যদিও বা বৃষ্টির জলের হাত থেকে রক্ষা করা গেল, কিন্তু ভেজা আবহাওয়াকে দূরে ঠেলবেন কী করে ? কাজেই, বর্ষায় কাঠের আসবাবের যত্ন করতে--

    কাঠের দেওয়াল থেকে আর্দ্রতা টানার প্রবণতা থাকে। তাই বর্ষাকালে দেওয়াল থেকে কম করে ছয় ইঞ্চি দূরে কাঠে আসবাব পত্র রাখুন। বৃষ্টির ভয়ে ভুলেও সারাদিন ঘর বন্ধ রাখবেন না! তা হলে আদ্রতে বাইরে বেরতে পারবে না! বৃষ্টি পড়া বন্ধ হলে জানলা খুলে দিন! এতে ঘরে আলো বাতাস প্রবেশ করবে এবং ঘর আদ্রতা মুক্ত থাকবে।

    কর্পুর বা ন্যাপথেলিন আদ্রতা শুষে নেয়। কাজেই বর্ষার ক'দিন ফার্নিচারের কোণে কর্পুর বা ন্যাপথেলিন দিয়ে রাখুন। চাইলে সারা বছরও দিতে পারেন। কারণ, শুধু মাত্র আদ্রতে শোষন নয়, কর্পুর, ন্যাপথেলিন পোকামাকড়ের হাত থেকেও আসবাব পত্রকে বাঁচায়। তবে বাড়িতে ছোট বাচ্চা থাকলে ন্যাপথেলিন ব্যবহার করবেন না! ন্যাপথেলিন বিষাক্ত! সেক্ষেত্রে নিমপাতা বা বড় এলাচ ব্যবহার করুন।

    ঘরের তাপমাত্রা ঠিক রাখতে ও স্যাঁতস্যাঁতে-ভাব দূর করতে ‘হিউমিডিফায়ার’ খুব উপকারি। ঘরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকলে আসবাবও দীর্ঘস্থায়ী হবে।

    আসবাব পরিষ্কার করতে ভেজা কাপড় ব্যবহার করবেন না। শুকনো ও পরিষ্কার কাপড় দিয়ে কাঠের আসবাব মুছতে হবে। নিয়মিত আসবাব পরিষ্কার করলে বর্ষায় কাঠের আসবাবে ময়লা জমাট বেঁধে থাকে না।

    কাঠের আসবাব ভালো রাখতে বছরে দু-একবার বার্নিশ বা ল্যাকোয়ার-এর পালিশ করান। এতে কাঠের ছিদ্র বন্ধ হয়, আসবাব অনেকদিন পর্যন্ত এক্কেবারে নতুনের মতো থাকে, কাঠ ফুলেও ওঠে না!

    আরও পড়ুন- রাতে ঘুম আসে না? সাবধান! এড়িয়ে চলুন এই খাবারগুলো--

    First published: