Work From Home: ওয়ার্ক ফ্রম হোমেও পোশাক পরে সেজেগুজে থাকা জরুরি ! জানুন কারণ

ওয়ার্ক ফ্রম হোমেও বাইরের পোশাক পরে সেজেগুজে থাকা জরুরি, কারণ জানলে অবাক হবেন!

মহামারীজনিত কারণে কর্মস্থলের স্থান পরিবর্তন হলেও, কাজের জন্য সঠিক ড্রেসিং, মূল্যবোধ তৈরি করে মানুষকে পেশাদারিত্বের উপলব্ধি দেয়।

  • Share this:

#মুম্বই: আলমারি ভর্তি রকমারি পোশাক। কিন্তু ব্যবহারের উপায় নেই! গত এক বছর ধরে সমগ্র বিশ্বই প্রায় ঘরবন্দি। বেশিরভাগ কর্মস্থলেই চলছে বাড়ি থেকে কাজ। ফলে নিজেকে সুসজ্জিত করার আগ্রহ হারিয়েছেন অনেকেই। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে, মহামারীজনিত কারণে কর্মস্থলের স্থান পরিবর্তন হলেও, কাজের জন্য সঠিক ড্রেসিং, মূল্যবোধ তৈরি করে মানুষকে পেশাদারিত্বের উপলব্ধি দেয়।

মহামারী চলাকালীন, পোশাকের সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক উল্লেখযোগ্য ভাবে পরিবর্তন হয়েছে, কারণ বেশিরভাগ মানুষই কোনও বিশেষ পোষাকের উপস্থিতির চেয়ে পরিধানের আরাম এবং সুবিধাকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে। লকডাউন বেশিরভাগেরই প্রতি দিন নিজেকে নতুনরূপে উপস্থাপন করার ইচ্ছে কমিয়ে দিয়েছে। যা চাকুরীজীবী মহিলাদের জন্য আরও বেশি উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

মহামারীর মধ্যে কোয়া (Qua) ডাব্লুএফএইচ-ওয়ার্কলেজার বাড়ি থেকে কাজের স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য ডিজাইন করা একটি নতুন সঙ্কলন 'এমব্রেস' (embrace) চালু করেছিল! Zoom মিটিংয়ের জন্য আরামদায়ক অথচ উপস্থাপনযোগ্য পোশাকের ক্রমবর্ধমান প্রয়োজনের সঙ্গে পুরোপুরি মানিয়ে নিয়ে এই সঙ্কলনটি বিশাল সাফল্য পেয়েছে। এবিষয়ে কোয়ার প্রতিষ্ঠাতা রূপসী বলেন, "পোশাক আপনাকে অনুপ্রাণিত করতে পারে এবং পাশাপাশি আপনার উৎপাদনশীলতা বাড়াতে পারে। শার্ট, কো-অর্ডস এবং ড্রেসের ফ্লেয়ার এবং স্বচ্ছন্দ্যযুক্ত ফিটগুলি আরামের সঙ্গে কোনও আপস না করে পোষাক পরিধানকে সহজ করে তোলে। আপনি যখন নিজেকে সাধারণ মনে করেন, তখন আপনি এই কো-অর্ডস এবং ড্রেস পরে নিজেকে সজ্জিত দেখতে পারেন। প্রকৃত পেশাদারের মতো বোধ করতে চাইলে এই পোশাকটি শার্ট এবং ব্লেজার দিয়ে আরও উন্নত করা যাবে। "

সঙ্কলনটির মূল পোশাকগুলি যেমন স্মার্ট কো-অর্ডস, ক্যাসুয়াল শার্ট এবং চিক পোশাকগুলি মস ক্রেপ, ভিসকোস এবং সুতির মতো প্রিমিয়াম কাপড় দিয়ে তৈরি, যা সর্বোত্তম শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার মতো এবং ঘরোয়া স্বাচ্ছন্দ্য দেয়। এই ব্যবহারিক পোশাকটি অবশ্যই চাকুরিজীবী মহিলাদের কাজের জীবনের ভারসাম্য বজায় রাখতে দুর্দান্ত সহায়তা করেছে।

গবেষণাগুলি দেখা গিয়েছে যে সঠিক পোশাক কাজের মানও বাড়িয়ে দেয়। সংশ্লিষ্ট ব্র্যান্ডটি একটি সমীক্ষাও চালিয়েছিল, যেখানে ১০০ জন মহিলা অংশ নিয়েছিলেন, যাতে ধরা পড়ে যে ৮৮ শতাংশ নারী বাড়ি থেকে কাজ করার সময় আআত্মবিশ্বাস পান না এবং ৮৫ শতাংশ নারী সম্মত হন যে কাজের জন্য পোশাক পরার ফলে তাদের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি পায়।

Published by:Piya Banerjee
First published: