লাইফস্টাইল

corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনের বন্দিদশায় সপরিবারে হলিউডের ছবি দেখেছে ভারত, বলছে সমীক্ষা!

লকডাউনের বন্দিদশায় সপরিবারে হলিউডের ছবি দেখেছে ভারত, বলছে সমীক্ষা!
Representative image.

৭৬ শতাংশ বলেছেন একা স্মার্টফোনে বুঁদ হয়ে থাকার চেয়ে সকলে মিলে টিভি দেখার অভিজ্ঞতা অনেক বেশি ভাল।

  • Share this:

#কলকাতা: সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, লকডাউনের মাস পাঁচেক সময়ের মধ্যে টিভিতে সব চেয়ে বেশি হলিউডের ছবিই দেখেছে ভারতীয় পরিবার। না, স্মার্টফোনে মুখ গুঁজে পড়ে থেকে না, অতিমারী আবহে মানুষ সব চেয়ে বেশি সময় কাটিয়েছে পরিবারের সঙ্গে।

'হলিউড ইজ ফর এভরিওয়ান' নামের এক রিপোর্ট বলছে ১.৭ বিলিয়ন মানুষ লকডাউনে হলিউডের ছবিই দেখেছেন। সমীক্ষাটি করেছে নিয়েলসন সংস্থা। দেশের বিভিন্ন মেট্রো সিটি, কলকাতা, দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই, পুণে, আহমেদাবাদ, লখনউ, ইনদওরের সিনেমাপ্রেমী দেড়হাজার মানুষকে নিয়ে সমীক্ষা করেছিল নিয়েলসন।

৮২ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন যে সিনেমাহলের বিকল্প হিসেবে সব চেয়ে কাছাকাছি আসে টিভিই। ৮১ শতাংশের বক্তব্য, লকডাউনে হলিউড ছবিই পরিবারকে টিভির সামনে একেবারে আঠার মতো বসিয়ে রেখেছিল পাশাপাশি। এতে পারিবারিক বন্ধন দৃঢ় হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তাঁরা। ৭৬ শতাংশ বলেছেন একা স্মার্টফোনে বুঁদ হয়ে থাকার চেয়ে সকলে মিলে টিভি দেখার অভিজ্ঞতা অনেক বেশি ভাল।

টিভি না ওটিটি, এর উত্তরে ৮৮ শতাংশ বেছে নিয়েছেন হলিউড সুপারহিরোর ছবি। ৭৭ শতাংশ জানিয়েছেন টিভিতে সিনেমা দেখা, সঙ্গে হাতের মুঠোফোন স্ক্রল করা, একসঙ্গে দু'টি কাজ করার অভিজ্ঞতা অনবদ্য। ৭৬ শতাংশ জানিয়েছেন টিভি দেখাটাই অনেক বেশি পকেটবান্ধব। সবাই মিলে দেখলেও মাত্র একটি সার্ভিস প্রোভাইডারকেই পয়সা দিতে হয়। তা ছাড়া ছবির তালিকা থেকে কন্টেন্ট বাছাইয়ের ঝামেলাও নেই। ৮৬ শতাংশের দাবি, হলিউড ছবি থেকে অনেক নতুন আইডিয়া পেয়েছেন তাঁরা। ৮৫ শতাংশ বলেছেন, ইংরেজি ছবি দেখার ফলে ভাষাটিতে দক্ষতাও বাড়িয়ে নেওয়া গিয়েছে মাস ছয়েকের মধ্যে।

১০ জনের মধ্যে ৮ জনই জানিয়েছেন, টিভিতে হলিউডের বিখ্যাত ছবির প্রিমিয়ার দেখার আর তর সইছে না তাঁদের। সমীক্ষা থেকে স্পষ্ট- টিভিকে এক কালে বোকা বাক্স বলা হলেও অতিমারী আবহে সেই বোকা বাক্সই কাছে এনে দিয়েছে গোটা পরিবারকে। মুঠোফোন যেমন এক দিকে ক্রমাগত দূরে ঠেলছে মানুষের থেকে মানুষকে, অন্য দিকে টিভি কাছে আনছে চার দেওয়ালের মধ্যে থেকেও যোজন দূরের মানুষগুলোকে। অতি আধুনিক প্রযুক্তির যুগে তবে একটু বোকাই হন না, স্মার্ট হওয়ার চেয়ে!

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: October 28, 2020, 5:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर