লাইফস্টাইল

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বন্ধুবান্ধব আর ঘনিষ্ঠজনের সান্নিধ্যের সঙ্গে কোভিড ১৯-এর কী সম্পর্ক? দেখুন গবেষণা কী বলছে!

বন্ধুবান্ধব আর ঘনিষ্ঠজনের সান্নিধ্যের সঙ্গে কোভিড ১৯-এর কী সম্পর্ক? দেখুন গবেষণা কী বলছে!

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এ রকমই একটি তথ্য উঠে এসেছে। বলা হচ্ছে যে একজন ব্যক্তি যদি কোনও গ্রুপে থাকেন, তা হলে বাকিদের দ্বারা তিনি প্রভাবিত হয়ে থাকেন।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কথায় বলে সঙ্গদোষে স্বভাব নষ্ট! অর্থাৎ কাদের সঙ্গে আপনি মিশছেন তার উপরে আপনার ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে। ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধব বা আপনার প্রিয় আত্মীয়স্বজনের ভালোলাগা বা মন্দলাগার ধারাটা একই রকম হয়। আর আপনি যদি তাঁদের সঙ্গে বেশ কিছুটা সময় কাটান, সেই ভালোলাগা বা মন্দলাগার প্রভাব আপনার উপরেও পড়বে। কোভিড ১৯-এর ক্ষেত্রেও কিন্তু বিষয়টা এর ব্যতিক্রম নয়।

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এ রকমই একটি তথ্য উঠে এসেছে। বলা হচ্ছে যে একজন ব্যক্তি যদি কোনও গ্রুপে থাকেন, তা হলে বাকিদের দ্বারা তিনি প্রভাবিত হয়ে থাকেন। গবেষকরা তাঁদের গবেষণায় বলছেন অন্যদের দ্বারা প্রভাবিত হওয়ার এই ধারা কিন্তু কোভিড ১৯ অতিমারীর সঙ্গে ভীষণ ভাবে জড়িত। যদি বড় মাপের রাজনীতিবিদ ও নেতারা কোভিডসংক্রান্ত নিয়ম মানেন, তা হলে তাঁদের যারা অনুসরণ করেন সেই আমজনতাও এই স্বাস্থ্যবিধি মানবেন।

অধ্যাপক স্টিফেন রিচারের নেতৃত্বে এই গবেষণা হয়েছে সেন্ট অ্যানড্র্যুজ বিশ্ববিদ্যালয়ে। প্লাস ওয়ান নামের পত্রিকায়, সেলফ ক্যাটাগোরাইজেশন অ্যাজ আ বেসিস অফ বিহেবিয়ারাল মিমিক্রি: এক্সপেরিমেন্টস ইন দ্য হাইভ নামে প্রকাশিত হয়েছে এই গবেষণা।

বিশেষজ্ঞরা একমত হয়ে বলছেন মানুষ আসলে নিজের অজান্তেই বা অবচেতনে কোথাও একটা অন্যকে অনুকরণ করে। সে যদি একই দলের সদস্য হয় তা হলে আরও বেশি করে এটা হয়ে থাকে। দল বলতে এখানে পিয়ার গ্রুপ অর্থাৎ ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের দল, পরিবার বা চলতি কোনও প্রথা ইত্যাদির সঙ্গে জড়িত থাকার কথা বলা হচ্ছে। আবার এর উল্টোটাও কিন্তু হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে কেউ যদি মনে করেন তিনি ওই বিশেষ দলের সদস্য নন বা পরিবারের থেকে মানসিক ভাবে বিচ্ছিন্ন থাকেন তা হলে সচেতন ভাবেই তিনি তাঁরা যা করছেন তার উল্টোটা করবেন।

তবে প্রাথমিক ভাবে যেহেতু মানুষের অনুকরণের প্রবণতাটাই বেশি, তাই গবেষকরা মনে করছেন এই জাতীয় স্বভাব কোভিড অতিমারীর স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে কাজে আসবে। যদিও ডেইলি মেল বলছে সরকার এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা এমন নানা ধরনের বার্তা দিয়েছেন যাতে জনতা বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছেন এবং এঁদের প্রতি আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: November 2, 2020, 1:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर