Home /News /life-style /
কাজলের রূপটানের একমাত্র অস্ত্র এক গ্লাস জল, ভাবতে পারবেন না!

কাজলের রূপটানের একমাত্র অস্ত্র এক গ্লাস জল, ভাবতে পারবেন না!

কাজলের রূপটান

কাজলের রূপটান

দিনের বেলা তিনি সিটিএম অর্থাৎ ক্লিঞ্জিং, টোনিং ও ময়েশ্চারাইজিং-এর রুটিন মেনে চলেন। (Skin Care Tips)

  • Share this:

#কলকাতা: যদি বলি কাজলের বয়স এখন ৪৮, বিশ্বাস হবে? অনেকেই মাথা নেড়ে বলবেন- মোটেও না। অথচ সোজাসাপটা স্বভাবের অভিনেত্রী কিন্তু মোটেও বয়স লুকোতে পছন্দ করেন না। তাই উনি নিজে যেচেই যখন বলছেন তাঁর বয়স ৪৮, তাহলে সেটা আর না বিশ্বাস করে উপায় নেই। তবে সত্যি বলতে কী, তাঁকে দেখে মোটামুটি বছর ৩০ বলে অনায়াসে চালিয়ে দেওয়া যায়। মেয়ে নাইসা দেবগণের সঙ্গে রাস্তায় একসঙ্গে বেরোলে অনেকেই কাজলকে নাইসার বড় দিদি বলে ভুল করেন!

উচ্ছ্বল প্রাণবন্ত স্বভাবের অভিনেত্রী কাজল ঘুমোতে যাওয়ার আগে নিজের মেকআপ তুলতে ভোলেন না। যতই ক্লান্ত থাকুন নাকেন, সমস্ত মেকআপ তুলে তবেই রাত্রে শুতে যাওয়ার পালা। রাত্রের সাধারণ নিয়মের মতোই কাজলের দিনের বেলার রূপচর্চার রুটিনও খুব সাদামাটা। দিনের বেলা তিনি সিটিএম অর্থাৎ ক্লিঞ্জিং, টোনিং ও ময়েশ্চারাইজিং-এর রুটিন মেনে চলেন। প্রথমে হালকা ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নেন। খেয়াল রাখেন মুখ যাতে শুষ্ক না হয়ে যায়। তারপর টোনার লাগান আর সব শেষে ময়েশ্চারাইজার।

আরও পড়ুন: দুর্নীতির তদন্ত চলছিল, আত্মঘাতী প্রাক্তন প্রধান শিক্ষকের 'পেনশন' প্রসঙ্গে মুখ খুললেন ব্রাত্য বসু

কাজলের ত্বকের প্রাকৃতিক আভার নেপথ্যে আছে জল! হ্যাঁ ঠিক শুনেছেন। সারা দিন প্রচুর পরিমাণে জল পান করেন তিনি। আর সেই কারণেই ভিতর থেকে আর্দ্র থাকেন কাজল। রূপচর্চার জটিল ফাঁদে পড়ে আমরা অনেক সময় অনেক সহজ জিনিস ভুলে যাই। যেমন বাড়ির বাইরে বেরোলে অনেক সময় আমাদের সানস্ক্রিনের কথা মনে থাকে না। কাজল কিন্ত সানস্ক্রিন লাগাতে একদম ভোলেন না। কারণ আমাদের ত্বক ট্যান করে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি, সূর্যালোকের তাপ নয়।

আরও পড়ুন: জট কাটাতে পারব, প্রাথমিক চাকরিপ্রার্থীদের সঙ্গে বৈঠকের পর আশ্বাস শিক্ষামন্ত্রীর

নিয়ম মেনেই অভিনেত্রী প্রতিদিন ৬০-৯০ মিনিট এক্সারসাইজ করেন। এক্সারসাইজ করলে যে ঘাম হয় তাতে শরীর থেকে সব বিষাক্ত পদার্থ বেরিয়ে যায়। সময় মেনেই রাত্রে শুতে যাওয়া পছন্দ করেন কাজল। অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে ঘুমোতে যাওয়ার তাঁর নির্দিষ্ট সময় আছে। সময় মেনে ঘুমোতে যাওয়া আর ৮ ঘণ্টা ঘুম হল কাজলের রূপের আভার চাবিকাঠি। স্থান, কাল, পাত্রের পরোয়া না করে প্রাণ খুলে হো-হো করে হাসেন কাজল। আর সেই দৃশ্য অনেকেই দেখেছেন। তাঁর উজ্জ্বল ত্বক প্রমাণ করে দেয় যে প্রাণখোলা হাসির কোনও বিকল্প নেই!

First published:

Tags: Kajol, Skin Care Tips

পরবর্তী খবর