Home /News /life-style /

Skin care : ত্বকের যত্নে একাই একশো প্রিবায়োটিক, জানুন কী ভাবে তা ভালো রাখে ত্বককে!

Skin care : ত্বকের যত্নে একাই একশো প্রিবায়োটিক, জানুন কী ভাবে তা ভালো রাখে ত্বককে!

Skin care

Skin care

Skin care : প্রিবায়োটিক ত্বকের বাধাকে মজবুত করতে স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি বাড়ায়।

  • Share this:

#কলকাতা: 'প্রোবায়োটিক' আমাদের কাছে পরিচিত হলেও প্রিবায়োটিক কিন্তু ত্বকের পরিচর্যায় ব্যবহৃত হয়। অনেকেই এই দু'টির মধ্যে বিভ্রান্তিতে পড়ে যান। এক রকম হলেও দু'টির মধ্যে সামান্য কিছু পার্থক্য রয়েছে।

প্রোবায়োটিক হল ভালো প্রজাতির ব্যাকটেরিয়া যা আমাদের ত্বকে বসবাসকারী মাইক্রোবায়োম তৈরি করে। খেয়াল করলে দেখা যায়, প্রাকৃতিক বাস্তুতন্ত্রের মতো আমাদের ত্বকেরও নিজস্ব একটি বাস্তুতন্ত্র রয়েছে। এই মাইক্রোফ্লোরায় ভালো ও খারাপ দুই ধরনের লক্ষ লক্ষ ব্যাকটেরিয়া থাকে। আসলে প্রতিরক্ষামূলক বাধা হিসাবে ত্বককে মজবুত এবং খারাপ ব্যাকটেরিয়া থেকে সতর্ক থাকতে হবে। না হলে বার্ধক্যের প্রাথমিক লক্ষণ, ব্রন, পিগমেন্টেশন, নিস্তেজতা, শুষ্কতা ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে।

আবার প্রিবায়োটিক ত্বকের বাধাকে মজবুত করতে স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি বাড়ায়। ফলে ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলি বিষাক্ত উপাদান এবং পরিবেশ দূষণকারী উপাদানের বিরুদ্ধে আরও লড়াই করতে পারে। প্রিবায়োটিক সাধারণত বিভিন্ন খাবার এবং ডায়েটারি সাপ্লিমেন্টে পাওয়া যায়। যেমন- কলা রসুন পেয়াজ ওটস আপেল ফ্ল্যাক্সসিড সোয়াবিন

প্রিবায়োটিক ফাইবারগুলি আমাদের ত্বক এবং অন্ত্রের বাস্তুতন্ত্রকে সমৃদ্ধ, স্থিতিশীল এবং স্বাস্থ্যকর করে তোলে। আসলে আমাদের অন্ত্রের স্বাস্থ্য স্বাভাবিকভাবে ত্বকের স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলে। দু'টির মাইক্রোবায়োম কিছুটা একইরকম। তাই, আজকাল মানুষ অন্ত্রের স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য সঠিক খাবার খেয়ে, এক্সারসাইজ করে।

আরও পড়ুন- শীত এবং কোভিড আবহে সুস্থতা জরুরি! এই ৩ ওষধি উপাদানে ভরসা থাক

এছাড়া ত্বকের পরিচর্যায় প্রিবায়োটিক যুক্ত করলে ত্বকের জেল্লাতেই তার প্রভাব ফুটে উঠবে৷ ত্বকের জন্য প্রিবায়োটিক কী ভাবে কাজ করে জেনে নেওয়া যাক৷

ত্বকের বাধা মজবুত করে প্রিবায়োটিকের মাধ্যমে ত্বকের পরিচর্যা আমাদের ত্বকের প্রতিরোধেরর কার্যকারিতা বাড়ায় এবং বাইরে বিষাক্ত দূষণের উপাদানগুলির প্রতিরোধ করে।

আরও পড়ুন- নতুন বছরে দাঁত হোক মজবুত, শুধু রোজ ডায়েটে থাক এই ৬ খাবার!

প্রিবায়োটিক ত্বকের স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়ার খাবার জোগান দেয় মাইক্রোবায়োমের জন্য সুপারফুড হিসাবে গেঁজানো ভোজ্য এবং প্রিবায়োটিকগুলি সুপারফুড হিসাবে কাজ করে।

প্রাকৃতিক এক্সফোলিয়েশন দ্রুত করে প্রিবায়োটিক ত্বকের মরা কোষগুলি বের করে দিতে পারে।

ত্বকের মান উন্নয়ন কোলাজেন বাড়িয়ে ত্বকে ছিদ্র কমিয়ে দেয় এবং ত্বককে অনেক মজবুত করে তোলে। যার ফলে আমাদের ত্বক মোলায়েম, নরম এবং স্বাস্থ্যকর হয়ে ওঠে।

দীর্ঘকালীন যত্ন বয়সকালের সমস্যা এড়াতে আমাদের অল্প বয়স থেকে যত্ন নেওয়া উচিত। যার জন্য প্রিবায়োটিক খুব ভালো কাজ করে। একই সঙ্গে এটি ত্বককে ভিতর থেকে দীর্ঘকালীন মেয়াদে সুন্দর করে তোলে। এটি ত্বকের মাইক্রোফ্লোরা ভারসাম্যে কাজ করে।

তৈলাক্ত ভাব, অতিরিক্ত শুষ্কতা এবং ব্রেক আউট নিয়ন্ত্রণ করে প্রিবায়োটিক মুখে অতিরিক্ত তেল শুষে দেয় না। ত্বকে যথেষ্ট আর্দ্রতা বজায় রেখে ত্বককে সতেজ রাখে।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Skin Care

পরবর্তী খবর