• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Baby Skin Care: ত্বক বড় কোমল; কী ভাবে আপনার শিশুর ত্বকের সঠিক যত্ন নেবেন?

Baby Skin Care: ত্বক বড় কোমল; কী ভাবে আপনার শিশুর ত্বকের সঠিক যত্ন নেবেন?

Representational Image

Representational Image

How to care for your baby's skin: শিশুদের ত্বক নরম এবং পাতলা তাই স্টেরয়েড ক্রিম, প্যারাবেনস বা অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করার সময় যত্ন নেওয়া উচিত।

  • Share this:

#কলকাতা: ১ থেকে ২ বছর না হওয়া পর্যন্ত শিশুদের ত্বক সেনসিটিভ প্রকৃতির হয়। প্রাপ্তবয়স্কদের ত্বকের তুলনায় শিশুদের ত্বক নরম এবং পাতলা তাই স্টেরয়েড ক্রিম, প্যারাবেনস বা অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করার সময় যত্ন নেওয়া উচিত (Baby Skin Care)।

শিশুদের ত্বক বাইরের তাপমাত্রাকে ভালোভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না তাই তাদের পারিপার্শ্বিক তাপমাত্রা নিশ্চিত করা উচিত। ত্বকে যদি ফুসকুড়ি বা ওই জাতীয় সমস্যা হয় তবে সাধারণত তাপ বা পোশাকের উপাদান এর জন্য দায়ী।

সকাল ১০টা থেকে ৪টের এই সময়সীমায় রোদের মধ্যে খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া শিশুদের বাইরে না বের করাই ভালো। এছাড়াও শিশুদের ত্বকে ভালো ময়েশ্চারাইজার প্রয়োজন কারণ তাদের ত্বকে প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজিং তুলনামূলক অনেক কম থাকে।

আরও পড়ুন- ৭ ঘণ্টা মর্গের ফ্রিজারে থাকার পর বাঁচলেন ‘মৃত’ ! উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদে সাংঘাতিক ঘটনা

ত্বকের পিএইচ (ph) লেভেল শিশুর ত্বকে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শিশুদের জন্মের সময় ph-এর মাত্রা থাকে ৭। যা পরবর্তীতে ৫ বা ৫.৫ হয়ে যায়। শিশুদের জন্য সেবামেড রেঞ্জ ত্বকের ph-এর উপর কাজ করে এবং ত্বককে রক্ষা করার জন্য দ্রুত ph-কে অ্যাসিডিক ph-এ পরিবর্তন করে। তাই তাদের ত্বকে জ্বালা-মুক্ত পণ্য ব্যবহার করা উচিত যাতে অ্যালানটোইন এবং ক্যামোমাইলের মতো আরামদায়ক উপাদান থাকে। সিটাফিল রেঞ্জ হাইপোঅ্যালার্জেনিক প্যারাবেন-মুক্ত তেল দিয়ে শিশুদের ত্বক পরিষ্কার করা উচিত।

ত্বকের সমস্যায় ফুসকুড়ি বা মিলেরিয়ার মতো ছোট লাল ফুসকুড়ি শিশুদের ক্ষেত্রে সাধারণ ব্যাপার। যতবার সম্ভব ময়েশ্চারাইজ ব্যবহার করে তাদের ত্বক ঠাণ্ডা রাখতে হবে। এ ক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শে কাজ করাই সবচেয়ে ভালো। অনেক সময় ডায়াপার পরানোর স্থানে লাল ফুসকুড়ি দেখা দিতে পারে। সেই বিষয়েও সতর্ক থাকতে হবে।

শিশুদের ত্বকে অনেক সময় ক্র্যাডল ক্যাপ বা সেবোরিয়া খুশকির মতো দেখায়। তবে চুলে বা কানের চারপাশে বা ভ্রুতে হলুদ এবং আঁশযুক্ত খুশকির স্থান ভালো ভাবে ধুয়ে তার পর তেল ব্যবহার করতে হবে।

আরও পড়ুন-হোমের আড়ালেই শিশু পাচারের কারবার, হাওড়ার প্রাক্তন ডেপুটি মেয়রের বৌমা সহ ধৃত ৯

অ্যালার্জির সমস্যাও বাচ্চাদের ক্ষেত্রে হামেশাই দেখা যায়। শিশুদের ব্রেস্ট মিল্ক খাওয়ানো, অতিরিক্ত গরম জলে স্নান না করানো, নিয়মিত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা, শিশুর খাদ্যে অ্যালার্জি বা ইনহেল্যান্ট অ্যালার্জি জাতীয় কিছু থাকলে তা পরিহার করা উচিত। .

যদি শিশুরা সূর্যের সংস্পর্শে থাকে তবে তাদের একটু সান ব্লকার ধরনের পোশাক পরানো উচিত। সরাসরি সূর্যের এক্সপোজার এড়িয়ে চলাই ভালো, এতে ত্বকে অ্যালার্জির ভয় কম হবে।

First published: