শরীরের অন্য অংশের তুলনায় যৌনাঙ্গ কালো! তাকে ফর্সা করা কত দূর স্বাস্থ্যসম্মত, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞ!

শরীরের অন্য অংশের তুলনায় যৌনাঙ্গ কালো! তাকে ফর্সা করা কত দূর স্বাস্থ্যসম্মত, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞ!
ফর্সা হলেও যৌনাঙ্গের রঙ কালো কেন হয়ে থাকে? দেখে নেওয়া যাক, কী উত্তর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞা

ফর্সা হলেও যৌনাঙ্গের রঙ কালো কেন হয়ে থাকে? দেখে নেওয়া যাক, কী উত্তর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞা

  • Share this:

#কলকাতা: এক দিকে যেমন বিশ্ব, তেমনই আবার সোশ্যাল মিডিয়া মাঝখানে ছেয়ে গিয়েছিল ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে। কালো গায়ের রং এবং তাকে কেন্দ্র করে চলে আসা সামাজিক বৈষম্য নিয়ে হয় তো ভবিষ্যতেও সরব হবে পৃথিবী। কিন্তু সব কিছুর পরেও সারা বিশ্ব জুড়ে ফেয়ারনেস ক্রিমের বিক্রি তো কমে না! যাঁদের গায়ের রং কালো, বিশ্বের নানা প্রান্তে তাঁদের অনেককেই পড়তে হয় হীনম্মন্যতার মুখে।

বিশেষজ্ঞা পল্লবী বার্নওয়াল জানিয়েছেন যে গায়ের রং কালো হওয়ার বিষয়টি নিয়ে তাঁর কাছে মাঝে মাঝেই অনেক চিঠি আসে। অনেকেই তাঁকে জানান যে তাঁরা শুধুমাত্র এই কারণে সঙ্গী বা সঙ্গিনীর সামনে রতিক্রীড়ার সময়ে নগ্ন হতেও দ্বিধা বোধ করেন। এই দ্বিধাটি যে কত দূর পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে, তা নিয়েই এই পর্বে আলোচনা করেছেন পল্লবী।

নামপ্রকাশ না করে তিনি এই প্রসঙ্গে তুলে ধরেছে এক পাঠকের কথা। ওই ব্যক্তি জানতে চেয়েছেন যে গায়ের রং ফর্সা হলেও যৌনাঙ্গের রং কালো কেন হয়ে থাকে? দেখে নেওয়া যাক, কী উত্তর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞা।


সবার প্রথমে পল্লবীর বক্তব্য- এই ব্যাপারটি পুরোপুরি জিন-ঘটিত। জিনের গঠনের জন্যেই অনেক ভারতীয় নারী এবং পুরুষের গায়ের রং ফর্সা হলেও শরীরের বেশ কিছু অংশ, যেমন যৌনাঙ্গ, নিতম্বের ভিতরের দিক, উরুর পিছনের দিকের কিছু অংশ কালো হয়ে থাকে। তিনি জানিয়েছেন যে বিষয়টি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক, এ নিয়ে লজ্জিত বোধ করার কিছু নেই, হীনম্মন্যতায় ভোগারও কিছু নেই!

পাশাপাশি, পল্লবী একটি দিক থেকে সাবধান করে দিয়েছেন সব পাঠক-পাঠিকাকেই! গায়ের রঙের মতো যৌনাঙ্গের ত্বকের রং ফর্সা করে তোলারও নানা বাণিজ্যিক উপায় আছে। কিন্তু সে দিকে না যাওয়াই উচিৎ বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিশেষজ্ঞার বক্তব্য- চলচ্চিত্রে বা পর্নোগ্রাফিতে শরীরের এই অংশেও মেক-আপ করা থাকে বা ডিজিটাল ফেয়ারনেস টুল ব্যবহার করা হয় এডিটিংয়ের সময়ে। ফলে সে দিক থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে বাজারচলতি কোনও ওষুধ ব্যবহার করা ঠিক হবে না। তা থেকে যৌনাঙ্গে জ্বালা হতে পারে, র‌্যাশ বেরিয়ে যেতে পারে, এমনকি চিরস্থায়ী দাগ পড়ে যাওয়াও অস্বাভাবিক নয়!

তাই তাঁর পরামর্শ- ব্যাপারটাকে স্বাভাবিক ভাবে নিয়ে মন থেকে অস্বস্তি মুছে ফেলাটাই ঠিক হবে!

Pallavi Barnwal 

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

লেটেস্ট খবর