Home /News /life-style /
Shilajit: শিলাজিতের মহা-কামাল, বয়সের ভারে যা হওয়া অসম্ভব ছিল, তাই হবে সম্ভব

Shilajit: শিলাজিতের মহা-কামাল, বয়সের ভারে যা হওয়া অসম্ভব ছিল, তাই হবে সম্ভব

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Shilajit: যে কয়েকটি প্রাকৃতিক উপাদান রোজকার রূপচর্যায় রাখলে সৌন্দর্য বাড়বে, তা জেনে নেওয়া যাক এক ঝলকে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আয়ুর্বেদ অনুসারে, প্রাকৃতিক ইকোসিস্টেমে পাওয়া উপাদান এবং ভেষজগুলোর সাহায্যে আমাদের ত্বকের বেশিরভাগ সমস্যার নিরাময় করা যেতে পারে। সবুজ জঙ্গল এবং নীল সমুদ্রে প্রচুর পরিমাণে প্রাকৃতিক উপাদান রয়েছে যা আমাদের ত্বকে খুব ভালো কাজ করতে পারে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন রাসায়নিকের বদলে রূপচর্চার সামগ্রীতেও অশ্বগন্ধা, শিলাজিৎ, চন্দন এবং আরও নানা ভেষজ উপাদান যোগ করা হয়েছে। যে কয়েকটি প্রাকৃতিক উপাদান রোজকার রূপচর্যায় রাখলে সৌন্দর্য বাড়বে, তা জেনে নেওয়া যাক এক ঝলকে।

অশ্বগন্ধা

এই ভেষজটি বিশেষ ভাবে তার অ্যান্টিএজিং এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্যগুলোর জন্য বিখ্যাত। এটি ইমিউন সিস্টেমকে জাগিয়ে তুলতে সাহায্য করে এবং জীবনীশক্তি, এনার্জি, সহনশীলতা বাড়ায়। অশ্বগন্ধা ত্বকের স্বাভাবিক তেল তৈরিতে সাহায্য করে। এটি হায়ালুরানন (হাইড্রেশন), ইলাস্টিন (নমনীয়তা) এবং কোলাজেনের (শক্তি) মতো ত্বককে সমৃদ্ধ করার কাজে সহায়ক যৌগ তৈরিতে সাহায্য করে।

জবা ফুল

এটি শুধুমাত্র বয়সের দাগ কমাতেই সাহায্য করে না, একই সঙ্গে ত্বককে সর্বাঙ্গীণভাবে সতেজ, তরুণ, মসৃণ ও উজ্জ্বল করে তুলতে সাহায্য করে। জবা ফুলের প্রাকৃতিক অ্যাসিডগুলো ব্রণ নিয়ন্ত্রণ করে।

আরও পড়ুন: মণিপুর থেকে বাংলাদেশে হচ্ছিল পাচার, কিন্তু এ কী মিলল! বালুরঘাটে মারাত্মক কাণ্ড

কস্তূরী মঞ্জাল

এটি বন্য হলুদ নামেও পরিচিত যা ত্বকের ধরনকে উন্নত করে ত্বককে উজ্জ্বল করে তোলে। এই উপাদানটি নিয়মিত ব্যবহার করলে ত্বক দাগমুক্ত, পরিষ্কার এবং উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। তাই ত্বকের তারুণ্য বজায় রাখতে এই আয়ুর্বেদিক মাস্কটিকে দৈনন্দিন ত্বক পরিচর্যার অঙ্গ করে তোলা উচিত।

জাফরান

আয়ুর্বেদে জাফরানকে বর্ণ গণে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়েছে কারণ এটি ত্বককে স্বাস্থ্যকর, উজ্জ্বল রঙ দেয়৷ জাফরান অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পূর্ণ; ভিটামিন সি-তে ভরপুর এবং এর অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

শিলাজিৎ

শিলাজিতের অন্যতম প্রধান উপকারিতা হল বয়স কমিয়ে দেওয়া। শিলাজিতের ফালভিক অ্যাসিড এমন এক যৌগ যা ত্বকের বার্ধক্যের লক্ষণগুলি নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্যে রয়েছে যা ত্বকের কোষের ক্ষতি আটকায়।

গাঁদা

গাঁদা ফুল ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করতে পারে। কারণ এতে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। গাঁদা একটি শক্তিশালী অ্যান্টিসেপটিক এজেন্ট এবং এটি অত্যন্ত কার্যকরী অ্যাস্ট্রিঞ্জেন্ট হিসাবে গণ্য হয়। তাই গাঁদা ফুল ত্বকের সৌন্দর্যও বাড়ায।

আরও পড়ুন: 'ঘটিবাটি সবই যাবে...' বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ! নিশানা করলেন কাকে? তীব্র আলোড়ন

নিম

এই ভেষজটি ভারতে দীর্ঘকাল ধরে নানা পণ্যে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। নিমের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করে ব্রণর চিকিৎসায় এবং ব্রণ প্রতিরোধে সাহায্য করে। এছাড়াও, এটি ত্বকের তৈলাক্ত ভাব নিয়ন্ত্রণেও অত্যন্ত কার্যকরী। নিমের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা ত্বকের যে কোনও অস্বস্তি উপশম করে।

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Health

পরবর্তী খবর