Home /News /life-style /
Salmonella virus : কিন্ডার চকোলেট থেকে ছড়াচ্ছে সালমোনেলা ভাইরাস, আক্রান্ত ১১ দেশ, সন্তানের এই উপসর্গ দেখা দেয়নি তো?

Salmonella virus : কিন্ডার চকোলেট থেকে ছড়াচ্ছে সালমোনেলা ভাইরাস, আক্রান্ত ১১ দেশ, সন্তানের এই উপসর্গ দেখা দেয়নি তো?

Kinder chocolate

Kinder chocolate

Salmonella virus: ইতিমধ্যেই এশিয়া এবং ইউরোপের বেশ কিছু বাজার থেকে এই চকোলেট তুলে নেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কিন্ডার জয়-এর মতো বাচ্চাদের চকোলেট থেকে ছড়াচ্ছে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া সালমোনেলা টাইফিমিউরিয়াম। যার ফলে হচ্ছে পেটের রোগ। ইতিমধ্যেই ১০ বছরের কম বয়সী বহু শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। এবার এই নিয়ে সতর্ক করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও। তারা জানিয়েছে, এটা সালমোনেলা বিষক্রিয়া। ইতিমধ্যেই ১১টি দেশে এই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। উল্লেখ্য, কিন্ডার জয় তৈরি করে ইতালি ভিত্তিক চকোলেট এবং মিষ্টান্ন প্রস্তুতকারী সংস্থা ফেরেরো। ইতিমধ্যেই এশিয়া এবং ইউরোপের বেশ কিছু বাজার থেকে এই চকোলেট তুলে নেওয়া হয়েছে।

বুধবার এক বিবৃতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, ১১টি দেশ থেকে ১৫১টি জেনেটিক্যাল সম্পর্কিত কেসের হদিশ মিলেছে যেগুলো চকোলেট জাতীয় পণ্য খাওয়ার ফলে ছড়িয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। ৮৯ শতাংশ কেস থেকে দেখা যাচ্ছে, ১০ বছরের কম বয়সী শিশুরা সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৯ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। তবে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। যতক্ষণনা পর্যন্ত সব পণ্য বাজার থেকে সরানো হচ্ছে, ততক্ষণ তা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ার মাঝারি আশঙ্কা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তবে এক্ষেত্রে ইউরোপীয় দেশগুলিকে আগে রাখা হচ্ছে।

২৭ মার্চ ব্রিটেন ডব্লুএইচও-কে মোনোফাসিক সালমোনেলা টাইফিমুরিয়াম (এস. টাইফিমুরিয়াম) সিকোয়েন্স টাইপ ৩৪ সংক্রমণের একটি ক্লাস্টারের বিষয়ে জানায়। বিশ্বব্যাপী অন্তত ১১৩টি দেশে এই চকোলেট বিক্রি করা হয়েছিল। ইন্টারন্যাশনাল ফুড সেফটি অথরিটিস নেটওয়ার্কের তরফে একটি বিশ্বব্যাপী সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, বিশ্ব জুড়ে বাজার থেকে এই পণ্য তুলে নেওয়া হোক। ইতিমধ্যে ১৫১টি এমন কেস খুঁজে পাওয়া গেছে। এর মধ্যে বেলজিয়ামে ২৬ জন, ফ্রান্সে ২৫ জন, জার্মানিতে ১০ জন, আয়ারল্যান্ডে ১১ জন, ব্রিটেনে ৬৫ জন, নেদারল্যান্ডসে ২ জন, সুইডেনে ৪ জন আক্রান্ত। ভারতের পুণেতে কিন্ডার জয় চকোলেট তৈরির কারখানা আছে ফেরেরোর। বিভিন্ন মিডিয়া রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে, ভারতের বাজার থেকে এখনও এই চকোলেট তুলে নেওয়া শুরু করেনি তারা।

সালমোনেলার আড়াই হাজার সেরোটাইপ রয়েছে, এর মধ্যে টাইফিমিউরিয়াম ও এন্টেরাইডিস মানুষের শরীরে সংক্রমণ ছড়ায়। বমি, পেট খারাপ, ঝিমুনি ভাব, জ্বর, পেট ব্যথার মতো উপসর্গ দেখা দেয়। খাবার বা জলে ৬ থেকে ৭২ ঘণ্টা বেঁচে তাকতে পারে এই ব্যাকটেরিয়া। সংক্রমণ হলে প্রায় সাত দিন অবধি জ্বর, পেট ব্যথা থাকতে পারে। অনেক সময় পেটে ভয়ানক সংক্রমণ, ডায়ারিয়াও হয়। বাচ্চা ও বয়স্কদের ক্ষেত্রে এই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে ডিহাইড্রেশন হতে পারে।

আরও পড়ুন- তরমুজ খাওয়ার পর জল খান? শরীরের কোন মারাত্মক ক্ষতি করছেন জানেন?

সালমোনেলার সংক্রমণ নিয়ে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার তরফে বলা হয়েছে এর ছয়টি স্ট্রেন আন্টিবায়োটিক প্রতিরোধী। সালমোনেলোসিসের লক্ষণগুলি তুলনামূলকভাবে হাল্কা এবং বেশিরভা ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কোনও চিকিৎসা ছাড়াও রোগ মুক্তি সম্ভব। তবে শিশু ও বয়স্ক রোগীদের ক্ষেত্রে ঝুঁকি বেশি থাকে। যেখানে ডিহাইড্রেশন হলে তা জীবনের ক্ষেত্রে গুরুতর ঝুঁকি হতে পারে।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Chocolate

পরবর্তী খবর