গরমে ‘হিং কা আচার’ ও ‘সোলকড়ি’ রেসিপি আনবে খাদ্যতালিকায় নতুন মাত্রা, জানুন কী ভাবে বানাবেন!

গরমে ‘হিং কা আচার’ ও ‘সোলকড়ি’ রেসিপি আনবে খাদ্যতালিকায় নতুন মাত্রা, জানুন কী ভাবে বানাবেন ঘরে!

গরমে খাওয়ার দু'টি রেসিপি ভাগ করে নিয়েছেন, যার নাম ‘হিং কা আচার’ (Hing Ka Achar) ও ‘সোলকড়ি’ (Solkadhi)।

  • Share this:

গরমের দিনে নানা ধরনের টক মিষ্টি খাবার অনেকেই পছন্দ করেন। তার মধ্যে আচার, চাটনি, মুরব্বা খাদ্য তালিকায় থাকে। WhiskAffair-এর প্রতিষ্ঠাতা, নেহা মাথুর (Neha Mathur), যিনি পেশায় একজন ডেন্টিস্টও বটে, তিনি এই গরমে খাওয়ার দু'টি রেসিপি ভাগ করে নিয়েছেন, যার নাম ‘হিং কা আচার’ (Hing Ka Achar) ও ‘সোলকড়ি’ (Solkadhi)।

হিং কা আচার বানাতে যেই উপকরণগুলি প্রয়োজন তা নিচে দেওয়া হল।

২.৫ কেজি কাঁচা আম, হাফ কেজি লবণ, ৫০ গ্রাম হিং, ২০০ গ্রাম কাশ্মীরি লাল মরিচ গুঁড়ো।

প্রথমে কাঁচা আম ধুয়ে কাপড় দিয়ে মুছে রাখতে হবে। এ রপর আমের খোসা পাতলা করে ছাড়িয়ে টুকরো করে কেটে নিতে হবে। আমের টুকরোগুলি পরিষ্কার কাপড়ে ছড়িয়ে ২-৩ ঘণ্টা কড়া রোদে শুকিয়ে নিতে হবে। এবার একটি পাত্রে সব হিং, লবণ, মরিচ গুঁড়ো মিশিয়ে নিয়ে, পরিষ্কার একটি কাচের জারে স্থানান্তর করতে হবে এবং কড়া রোদে ৩-৪ দিন রাখতে হবে। এবার ঘরের ভেতরে আরও ১০-১২ দিনের জন্য রাখতে হবে। এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হলেই ‘হিং কা আচার’ তৈরি হয়ে যাবে। ১২-১৫ দিন পরে পরিবেশন করার জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে।

সোলকড়ি বানাতে যেই উপকরণগুলি প্রয়োজন তা নিচে দেওয়া হল।

শুকনো কোকুমের ১৫-২০টি টুকরো, ১ কাপ কোরানো নারকেল, পরিমাণ মত লবণ, ছোট কুচি করে কাটা আদা, ১ চা চামচ কুচি করে কাঁচালঙ্কা, ১ টেবিল-চামচ কুচি কাটা ধনেপাতা।

প্রথমে কোকুমের টুকরো জল দিয়ে হালকা ধুয়ে ফেলতে হবে। এগুলি ৩০ মিনিটের জন্য এক কাপ গরম জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে। ভিজিয়ে রাখা কোকুমকে জলে সুন্দরভাবে কচলে নিয়ে পাল্প ফেলে দিতে হবে। এবার ছোট কুচি করে কাটা আদা, কাঁচালঙ্কা কোরানো নারকেল ও এককাপ জল মিশিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। এবার একটি সূক্ষ্ম জালের ছাকনি দিয়ে ছেকে নিতে হবে। এবার আবার ব্লেন্ডারে ঘুরিয়ে নিয়ে আরও পাতলা করে ছেকে নিতে হবে। কোকুম জল ও নারকেলের দুধের মিশ্রন একসঙ্গে মিলিয়ে নিয়ে, স্বাদ মত লবণ যোগ করতে হবে। সোলকড়ি প্রস্তুত। পরিবেশন করার আগে কয়েক ঘন্টা এটি ঠাণ্ডা করে পরিবেশনের সময় কয়েকটি আইস কিউব ব্যবহার করা যেতে পারে।

Published by:Simli Raha
First published: