ভিন্ন জাতে বিয়ে কি সম্পর্কে কোনও সমস্যা তৈরি করে? কী বলছেন বিশেষজ্ঞ

ভিন্ন জাতে বিয়ে কি সম্পর্কে কোনও সমস্যা তৈরি করে? কী বলছেন বিশেষজ্ঞ

এই পর্বে বিশেষজ্ঞা যে চিঠি নিয়ে আলোচনা করতে চলেছেন, তার ভিতটি দাঁড়িয়ে রয়েছে বৈবাহিক সম্পর্কের একেবারে শুরুর ধাপে

এই পর্বে বিশেষজ্ঞা যে চিঠি নিয়ে আলোচনা করতে চলেছেন, তার ভিতটি দাঁড়িয়ে রয়েছে বৈবাহিক সম্পর্কের একেবারে শুরুর ধাপে

  • Share this:

দেশ জুড়ে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা পাঠকসংখ্যা বড় কম নয় বিশেষজ্ঞা পল্লবী বার্নওয়ালের। অনেকে সরাসরি তাঁকে চিঠি দেন নিজের সমস্যার কথা নিয়ে। অনেকে চিঠি না দিলেও এই সব প্রশ্ন এবং উত্তরের মধ্যে থেকে ঠিক খুঁজে নেন নিজের সমস্যার প্রতিকার। সেই সমস্যা হতে পারে বিয়ের আগের বা বিয়ের পরের। তবে এই পর্বে বিশেষজ্ঞা যে চিঠি নিয়ে আলোচনা করতে চলেছেন, তার ভিতটি দাঁড়িয়ে রয়েছে বৈবাহিক সম্পর্কের একেবারে শুরুর ধাপে। এক পাঠক ভিন্ন জাতে বিয়ে নিয়ে বিশেষজ্ঞার মতামত জানতে চেয়েছেন।

একেবারে শুরুতেই এই পাঠককে অজস্র ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন পল্লবী। তাঁর বক্তব্য- এই পাঠক একটি অতীব প্রয়োজনীয় এবং অবশ্যই জীবনের নান্দনিক দিকে তাঁকে আলোকপাত করতে বলেছেন। এই বিষয়ে সবার প্রথমে সুপ্রিম কোর্টের কথা তুলে ধরছেন পল্লবী। কেন না, বিবাহ একটি সামাজিক প্রতিষ্ঠান এবং তা আইনসিদ্ধ। অতএব, এই ব্যাপারে আদালতের বক্তব্য কী, সেটা মাথায় রাখা দরকার। তাই পল্লবী জানাচ্ছেন যে সুপ্রিম কোর্টও ভিন্ন জাতের বিয়ের পরিপন্থী নয়, বরং তা এক আদর্শ সমাজ গড়ার মাধ্যম হিসেবেই স্বীকৃত হয়েছে আইনের চোখে।

কিন্তু এটাও ঠিক যে পরিবারের সব সিদ্ধান্ত দেশের আইন মেনে নেওয়া যায় না। যেমন, সব ক্ষেত্রেই আদালত সাম্যের কথা বলে, কিন্তু সমাজ এবং পরিবারে নানা বিষয়ে অসাম্য দেখা যায়। কাজেই ভিন্ন জাতে বিয়ে নিয়ে নিজের পরিবারের অবস্থানের কথাটা একটু ভেবে নিতে হবে। কেন না, বিবাহ শুধুই দুই ব্যক্তিকে নয়, দুই পরিবারকেও কাছাকাছি নিয়ে আসে। এবার যদি দুই ব্যক্তির মধ্যে ভালোবাসা থাকে কিন্তু দুই পরিবারে তার অভাব লক্ষ্য করা যায়, তাহলে দম্পতি সমস্যায় পড়তে পারেন বইকি!

তাই পল্লবী সবার আগে এই বিষয়ে নিজের পরিবারের দিকটা ভেবে দেখতে বলছেন। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে এই বিষয়ে খোলাখুলি আলোচনা করতে বলছেন। তার সঙ্গে তিনি এটাও বলছেন যে ভিন্ন জাতে বিয়ের আগে দুই ব্যক্তির মধ্যেও নিজেদের পরিবারের মানসিকতা নিয়ে একটা খোলাখুলি আলোচনা করে নেওয়া উচিৎ। না হলে পরবর্তীকালে ছোটখাটো নানা বিষয়ে সমস্যা তৈরি হতে পারে দাম্পত্যে।

তবে যতক্ষণ পর্যন্ত ভালোবাসা অটুট থাকে, ততক্ষণ পর্যন্ত সব প্রতিবন্ধকতাই অতিক্রম করা যায় বলে দাবি করছেন বিশেষজ্ঞা!

Pallavi Barnwal

Published by:Ananya Chakraborty
First published: