Home /News /life-style /

Obesity: ভারতে প্রাপ্তবয়স্ক ও শিশুদের মধ্যে স্থূলতা বাড়ছে, কী ভাবে তা বাড়িয়ে তুলছে অন্য রোগের ঝুঁকি?

Obesity: ভারতে প্রাপ্তবয়স্ক ও শিশুদের মধ্যে স্থূলতা বাড়ছে, কী ভাবে তা বাড়িয়ে তুলছে অন্য রোগের ঝুঁকি?

স্থূলতা শুধুমাত্র আমাদের প্রতিদিনের কার্যক্রমকে প্রভাবিত করে না, এটি আমাদের স্বাস্থ্যের উপর দীর্ঘ মেয়াদে প্রভাব ফেলে।

  • Share this:

#কলকাতা: ভারত একটি বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য সঙ্কটের দিকে দৌড়াচ্ছে, যা বহু দশক ধরে উপেক্ষা করা হয়েছে, এখনও হচ্ছে। আর সেটা হল স্থুলতা (Obesity)। বলা ভাল, স্থূলতাকে বিশ্ব জুড়েই উপেক্ষা করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)-র মতে, ১৯৭৫ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী স্থূলতা প্রায় তিনগুণ বেড়েছে। ইন্ডিয়ান জার্নাল অফ কমিউনিটি মেডিসিন (Indian Journal of Community Medicine) অনুসারে, শুধুমাত্র ভারতেই ১৩৫ মিলিয়ন মানুষ স্থূল। ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফরমেশন (NCBI) অনুমান করছে যে ২০৩০ সাল নাগাদ বিশ্বব্যাপী মোট স্থূলতার ২৭.৮ শতাংশ হবে ভারতীয়রা। যা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৫ শতাংশ। স্বাস্থ্য ও স্থূলতা সংক্রান্ত নানা প্রতিবেদন আমাদের সতর্ক করছে, যাতে আমরা স্থুলতাকে হালকা ভাবে না নিই। স্থূলতা শুধুমাত্র আমাদের প্রতিদিনের কার্যক্রমকে প্রভাবিত করে না, এটি আমাদের স্বাস্থ্যের উপর দীর্ঘ মেয়াদে প্রভাব ফেলে। স্থূলতা থেকেই বাড়ে অন্যান্য শারীরিক সমস্যার ঝুঁকি। আর তাই এ বিষয়ে প্রথমেই সচেতন না হলে পরবর্তীতে বিপদ আরও বাড়তে পারে।

আরও পড়ুন:শীতে সুস্থ থাকতে নিয়মিত বেশি করে খান মাছের তেল

স্থূলতা কী?

স্থূলতা হল এমন একটি অবস্থা যা শরীরে অতিরিক্ত চর্বি জমাকে বোঝায়। শরীরে প্রয়োজনের তুলনায় অতিরিক্ত ফ্যাট (Fat) জমলেই তা হল স্থূলতা। যা হৃদরোগ (Heart Disease), উচ্চ রক্তচাপ (Hypertension), ডায়াবেটিস (Diabetes) ও ক্যানসারের (Cancer) মতো রোগের ঝুঁকি বাড়াতে পারে। যখন একজন ব্যক্তির বডি মাস ইনডেক্স (BMI) ২৫-র বেশি হয়, তখন তার ওজন বেশি বলে দাবি করা হয়। বডি মাস ইনডেক্স ৩০-র বেশি হলে স্থূল বলে বিবেচিত হয়। বডি মাস ইনডেক্স হল স্থূলতা নির্ণয়ের জন্য ব্যবহৃত একটি টুল। তবে, এটি স্থূলতার জন্য সঠিক সূচক নয়। স্থূলতার অনেক বিপদ আছে। এক এক করে জেনে নেওয়া যাক সেই বিষয়ে।

আরও পড়ুন:বিপদের আশঙ্কা নেই তো? ডায়াবেটিস রোগ না থাকলেও কি সুগার-ফ্রি ব্যবহার করা যায়?

স্থূলতা এবং দীর্ঘস্থায়ী স্বাস্থ্য অবস্থার মধ্যে যোগ: দিনের পর দিন অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়া, চিনি খাওয়া এবং সেই সঙ্গে যদি একেবারেই কোনও শরীরচর্চা না করা হয়, তাহলে স্থূলতা আসতে বাধ্য। ক্রমবর্ধমান অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা মানুষকে, বিশেষ করে শহুরে মানুষকে স্থূলতার ঝুঁকিতে নিয়ে যায়। স্থূলতা একটি মাল্টিসিস্টেম রোগ এবং মাথা থেকে পা পর্যন্ত শরীরের যে কোনও সিস্টেমকে প্রভাবিত করতে পারে, যা এটিকে বেশিরভাগ রোগের কেন্দ্র করে তোলে। আধুনিকীকরণের সঙ্গে কোভিড অতিমারী ভারতে ও বিদেশে স্থূলতার উদ্বেগ বাড়াতে একটি প্রধান ভূমিকা পালন করেছে। সাম্প্রতিক বছরগুলিতে আমরা যে জীবনধারা বেছে নিয়েছি, বিশেষ করে গত পাঁচ থেকে ছয় বছরে, তা দ্রুতগতির। গত দুই বছরে কোভিডের কারণে বাইরে বের হওয়া, হাঁটাচলা কম হয়েছে, অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার পরিমাণ বেড়েছে। যার সবকটিই স্থূলতার ক্ষেত্রে অবদান রেখেছে। এর ফলে বড় ধরনের স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি বেড়েছে। উচ্চ রক্তচাপের মতো দীর্ঘস্থায়ী সমস্যা, ডায়াবেটিস, হার্টের রোগ, নির্দিষ্ট ধরণের ক্যানসার এবং আর্থ্রাইটিস স্থূলতার কারণে হতে পারে।

স্থূলতার কারণে স্লিপ অ্যাপনিয়া হতে পারে। এটি একটি শ্বাসপ্রশ্বাসের অবস্থা যা অতিরিক্ত ওজনের সঙ্গে সম্পর্কিত। স্লিপ অ্যাপনিয়ায় একজন ব্যক্তি ঘুমানোর সময় প্রচুর পরিমাণে নাক ডাকেন এবং তাঁদের নিঃশ্বাস নিতে সমস্যা হয়। অন্য দিকে এই সমস্যা হৃদরোগ এবং স্ট্রোকের সম্ভাবনা আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে। তাই ওজনকে নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুরি।

স্থূলতার কারণে কি বন্ধ্যাত্বর সমস্যা হতে পারে?

স্থূলতা আলাদা করে কোনও রোগ নয়। এটি আসলে অন্যান্য অনেক শারীরিক সমস্যার জন্ম দেয়। যা মানুষের মানসিক স্বাস্থ্যকেও প্রভাবিত করে। স্থূলতার অনেকগুলি প্রভাবের মধ্যে মহিলাদের প্রজনন ক্ষমতা সম্পর্কিত। এটি এমন একটি অবস্থা, যা পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রোম (PCOS)-র মতো হরমোনজনিত ব্যাধিগুলির সঙ্গে যুক্ত। এটা মহিলাদের মধ্যে অত্যন্ত সাধারণ। শরীরে পুরুষ হরমোন এন্ড্রোজেনের উচ্চ মাত্রা, পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রোমের ফলে অনিয়মিত মাসিক চক্র, অস্বাভাবিক চুলের বৃদ্ধি এবং ডিম্বাশয়ে সিস্ট হতে পারে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে স্থূলতা মহিলাদের সন্তান ধারণের ক্ষমতাকে প্রভাবিত করতে পারে। সময়ে চিকিৎসা না হলে আসতে পারে বন্ধ্যাত্ব।

মানসিক স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব: স্থূলতার শারীরিক বোঝা স্বীকৃত, বিশেষ করে যখন দীর্ঘস্থায়ী স্বাস্থ্যের অবস্থা জড়িত থাকে। স্থূলতায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়গুলি প্রায়শই উপেক্ষা করা হয়। একজন স্থূল ব্যক্তি জীবনের মান কম অনুভব করতে পারে, বৈষম্য অনুভব করতে পারে। এছাড়াও, অন্য শারীরবৃত্তীয় সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে। কারণ, তারা সাধারণত একাকিত্ব এবং বিষণ্ণতার মধ্যে থাকে। যাদের ওজন বেশি, তাদের শরীরের ছবি মানসিক প্রভাব ফেলে, মেজাজের পরিবর্তন হয়।

শিশুদের স্থূলতা: এটি কতটা উদ্বেগজনক?

বাচ্চা রোগা অথবা মোটা হলে কোনও ক্ষতি নেই। কিন্তু, যদি এটি শৈশবকালীন স্থূলতার সঙ্গে যুক্ত হয়, তবে বাবা-মায়েদের অবশ্যই সঠিক পদক্ষেপ নিতে হবে এবং তাদের ওজন নিয়ন্ত্রণের জন্য পদক্ষেপ নিতে হবে। শিশুদের মধ্যে স্থূলতা খুবই উদ্বেগজনক, বিশেষ করে যদি তারা ১২ বছরের কম হয়। গত দুই বছর প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য বাচ্চারাও ঘরবন্দি থেকেছে। যার কারণে শিশুরাও মোটা হয়ে যাচ্ছে। প্রযুক্তিগত অগ্রগতি শুধু শিশুদের বাইরে যেতেই বাধা দেয়নি, তাদের ক্ষেত্রে কোভিড সংক্রমণের ঝুঁকিও বাড়িয়ে দিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে ৫ বছরের কম বয়সী ৪১ মিলিয়ন শিশুর ওজন বেশি। আর এই শিশুদের প্রায় অর্ধেক এশিয়া মহাদেশের বিভিন্ন দেশে বাস করে।

লাইফস্টাইলে পরিবর্তন আনতে হবে: স্থূলতা বংশগত হতে পারে। এটি হাইপোথাইরয়েডিজম বা নির্দিষ্ট ওষুধের মতো চিকিৎসা অবস্থার ফলাফল হতে পারে। যাই হোক, স্থূলতার অন্যতম প্রধান কারণ হল অনিয়ন্ত্রিত জীবনধারার অভ্যাস। স্থূলত্বের ঘটনা ব্যাপকভাবে বেড়েছে, বিশেষ করে গত দুই বছরে। তবে আধুনিকীকরণ স্থূলত্বের সংখ্যা বৃদ্ধিতে সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। স্থূলতা নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ করার জন্য চিকিৎসকরা প্রক্রিয়াজাত ও চিনিযুক্ত খাবার এড়ানোর পরামর্শ দেন। আমাদের নিয়মিত খাদ্যতালিকায় শাকসবজি ও ফলমূল যোগ করা উচিত। উপরন্তু প্রচুর পরিমাণে ফাইবারজাতীয় খাবার খেতে হবে। ভুলে গেলে চলবে না যে শরীরচর্চা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দিনে কমপক্ষে আধ ঘন্টা বা এক ঘন্টা ব্যায়াম করা খুবই কাজের। স্থূলতার কারণ নির্ণয় করতে নিকটস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্র অথবা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে নিতে হবে। জটিলতা তৈরি হওয়ার আগেই প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে হবে।

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Obesity

পরবর্তী খবর