• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • New Coronavirus variant Omicron: চিনের ভাবমূর্তি রক্ষা? করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম নিয়ে সমস্যায় WHO!

New Coronavirus variant Omicron: চিনের ভাবমূর্তি রক্ষা? করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম নিয়ে সমস্যায় WHO!

যে চিনের জন্য পুরো বিশ্বে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে এত বিতর্ক, সেই চিনকেই বাঁচানোর চেষ্টা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন (WHO)? নতুন এই ঘটনার সুত্রপাত করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের নাম রাখা নিয়ে।

যে চিনের জন্য পুরো বিশ্বে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে এত বিতর্ক, সেই চিনকেই বাঁচানোর চেষ্টা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন (WHO)? নতুন এই ঘটনার সুত্রপাত করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের নাম রাখা নিয়ে।

যে চিনের জন্য পুরো বিশ্বে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে এত বিতর্ক, সেই চিনকেই বাঁচানোর চেষ্টা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন (WHO)? নতুন এই ঘটনার সুত্রপাত করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের নাম রাখা নিয়ে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: যে চিনের জন্য পুরো বিশ্বে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে এত বিতর্ক, সেই চিনকেই বাঁচানোর চেষ্টা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন (WHO)? নতুন এই ঘটনার সুত্রপাত করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম রাখা নিয়ে। কারণ WHO সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম কোনও দেশের নামে রাখা হবে না, সেটি গ্রিক অ্যালফাবেটের হিসাবে রাখা হবে। এখনও পর্যন্ত সব ভ্যারিয়ান্টকে এই ক্রম অনুসারেই নাম দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন WHO-এর তরফেই এই নিয়ম মানা হচ্ছে না।

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে সামনে আসা করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টকে (B.1.1.529) 'ভ্যারিয়েন্ট অফ কনসার্ন' ঘোষণা করে WHO এর নাম দিয়েছে ওমিক্রন (Omicron)। কিন্তু WHO-এর সেই নিয়ম অনুযায়ী ক্রম অনুসারে করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম হয় Nu বা Xi, কারণ আগের ভ্যারিয়ান্টের নাম রাখা হয়েছিল Mu। মনে করা হচ্ছে যে চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের নামের ইংরাজি বানান Xi Jinping বলেই এই বদল করা হয়েছে।

Xi নাম নিয়ে সমস্যা

প্রথমে সবাই ভেবেছিলেন যে WHO করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের (B.1.1.529) নাম Nu বা Xi রাখতে পারে, কারণ Mu-এর পর পরবর্তী ক্রম গ্রিক বর্ণমালায় এদেরই। কিন্তু দ্য টেলিগ্রাফের সিনিয়র এডিটর পল নুকি একটি ট্যুইট করে জানিয়েছেন যে, তিনি সূত্র মারফত জানতে পেরেছেন, WHO জেনেশুনেই Nu বা Xi নাম দু'টো ছেড়ে দিয়েছে। করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম Nu রাখা হয়নি কারণ লোক যেন নতুন শব্দের সঙ্গে এটাকে গুলিয়ে না ফেলে, এর ফলে সবাই আরও বিভ্রান্ত হতে পারে। অন্য দিকে, করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম Xi রাখা হয়নি, বিশেষ একটি কারণে।

চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের নামের ইংরাজি বানান হল Xi Jinping। এর ফলে যদি করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম Xi রাখা হয়, তাহলে এক অন্য রকম পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। চিন সব সময় করোনার সঙ্গে নিজের দেশের নাম জড়ানোর বিরোধিতা করে এসেছে। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক মহামারীবিদ মার্টিন কুলডর্ফ জানিয়েছেন যে, করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্ট আসলে Nu ভ্যারিয়েন্ট, কিন্তু WHO এর নামকরণ করেছে ওমিক্রন। এর কারণ হল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা Xi নাম নিয়ে কোনও রকম বিতর্কে জড়াতে রাজি নয়।

WHO-এর ওপর US-এর নিশানা

আমেরিকার রিপাবলিকান সেনেটর ট্রেড ক্রুজ কড়া ভাষায় WHO-এর নিন্দা করেছেন। তিনি বলেছেন যে, 'যদি WHO চিনের কমিউনিস্ট পার্টিকে এত ভয় পেয়ে থাকে, তাহলে তার ওপর কী ভাবে ভরসা করা সম্ভব? তারা এক বিশ্বব্যাপী মহামারীর ওপর পর্দা দেওয়ার চেষ্টা করছে'।

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের নাম রাখার পদ্ধতি

WHO-এর পক্ষ থেকে এই বছরের ৩১ মে করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টের নাম রাখার সহজ পদ্ধতি সকলের সামনে তুলে ধরা হয়। প্রত্যেকটি ভ্যারিয়ান্টের ক্রম অনুসারে গ্রিক অ্যালফাবেট একত্রিত করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত করোনার নতুন ভ্যারিয়ান্টকে আলফা, বিটা, গামা, ডেল্টা, এপসাইলন, জিটা, ইটা, থিটা, অটা, কাপা, ল্যাম্বডা, মু নাম দেওয়া হয়েছে।

Published by:Rukmini Mazumder
First published: