• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Mission Paani: নিজের বাড়িতে ছিল না শৌচাগার, শৈশবের স্মৃতিই বিন্দেশ্বরের পরিচ্ছন্নতা-সংগ্রামের অনুঘটক

Mission Paani: নিজের বাড়িতে ছিল না শৌচাগার, শৈশবের স্মৃতিই বিন্দেশ্বরের পরিচ্ছন্নতা-সংগ্রামের অনুঘটক

বিন্দেশ্বর পাঠক (Bindeshwar Pathak)

বিন্দেশ্বর পাঠক (Bindeshwar Pathak)

Mission Paani:বিন্দেশ্বর পাঠক (Bindeshwar Pathak) প্রথমে তৈরি করেন সুলভ ইন্টারন্যাশনাল (Sulabh International) সংগঠন।

  • Share this:

    নয়াদিল্লি: বিন্দেশ্বর পাঠক (Bindeshwar Pathak) প্রথমে তৈরি করেন সুলভ ইন্টারন্যাশনাল (Sulabh International) সংগঠন। এর পর বিন্দেশ্বর পাঠক এই সুলভ ইন্টারন্যাশনালের মাধ্যমে তৈরি করেন প্রায় ১.৩ মিলিয়ন হাউজহোল্ড টয়লেট এবং প্রায় ৫৪ মিলিয়নের বেশি সরকারি টয়লেট। কিন্তু এই সমাজ সেবকের বিহারের নিজের গ্রামের বড় বাড়িতেই কোনও টয়লেট নেই। বিন্দেশ্বর পাঠকের বিগ হাউজে অনেকগুলো রুম থাকলেও সেখানে কোনও টয়লেট নেই। সেই বিশাল বাড়িতে প্রার্থনার ঘর, মশলা পেষাইযের ঘর এবং বিভিন্ন প্রযোজনের নানা ঘর থাকলেও সেখানে কোনও টয়লেট ছিল না।

    ছোটবেলা থেকেই তিনি নিজের চোখে দেখেছেন টয়লেট নিয়ে সমাজের অন্ধবিশ্বাস এবং স্বচ্ছ স্যানিটেশন নিয়ে দুর্বল মানসিকতা। ছোটবেলা থেকেই এমন এক পরিস্থিতির মধ্যে থাকার ফলে এই বিষয়টি বিন্দেশ্বর পাঠকের মনে এক গভীর দাগ কেটে যায়। এর ফলে তিনি নিজেই তৈরি করেন সুলভ ইন্টারন্যাশনাল। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে টয়লেট তৈরি করে সমাজের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করাই তাঁর প্রধান লক্ষ্য।

    আরও পড়ুন : শৈশবেই রাজরোগ, অপুষ্টিতে কৈশোর কাটানো পায়েলই আজ জলযুদ্ধের যোদ্ধা

    'বিন্দেশ্বর পাঠক- আ সোশ্যাল রিফরমার' (Bindeshwar Pathak - A Social Reformer) বইতে ওয়াই রবীন্দ্রনাথ রাও (Y Ravindranath Rao) লিখেছেন যে, ছোটবেলা থেকেই বিন্দেশ্বর পাঠক বিভিন্ন ধরনের খারাপ ঘটনার সাক্ষী হয়েছেন। টয়লেট এবং সঠিক স্যানিটেশন নিয়ে গ্রামের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা তার মনে এক গভীর প্রভাব বিস্তার করেছে। এর জন্য তিনি একজন সমাজসেবক হিসাবে যোগদান করেন বিহার গান্ধি সেন্টেনারি সেলিব্রেশন কমিটিতে (Bihar Gandhi Centenary Celebration Committee)।

    আরও পড়ুন : জলযুদ্ধে একনিষ্ঠ সহায়, সকলের জন্য স্বচ্ছ পানীয় জল এবং স্যানিটেশনের ব্যবস্থা করে চলেছেন মনোজ গুলাটি!

    এর এক বছরের মধ্যেই বিন্দেশ্বর পাঠক নিজে তৈরি করেন সুলভ ইন্টারন্যাশনাল। বাড়ি বাড়ি গিয়ে সকলকে সচেতন করা হত নির্দিষ্ট টয়লেট ব্যবহার করার জন্য। প্রত্যন্ত গ্রামগুলিতে শেখানো হত কী ভাবে এই সুলভ ব্যবহার করতে হবে। বিন্দেশ্বর পাঠকের এই কর্মসূচি ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে।

    আরও পড়ুন : দুই হাতে সামলাচ্ছেন জল এবং জীবনের সমস্যা, রূপান্তরকামী লক্ষ্মী জলযুদ্ধে দেশের প্রেরণা!

    বিন্দেশ্বর পাঠকের এই মিশন ১৯৮০ সালে দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসে (New York Times) তুলে ধরা হয়। ২০১৬ সালে নিউ ইয়র্কের তৎকালীন মেয়র বিল দ্য ব্লাসিও (Bill de Blasio) ঘোষণা করেন যে ১৪ এপ্রিল দিনটিকে 'বিন্দেশ্বর পাঠক দিবস' (Bindeshwar Pathak Day) হিসাবে পালন করা হবে। এছাড়াও বিন্দেশ্বর পাঠককে দেওয়া হয় নিউ ইয়র্ক গ্লোবাল লিডার ডায়লগ হিউম্যানিটারিয়ান অ্যাওয়ার্ড (New York Global Leaders Dialogue Humanitarian Award)। এমন একজন বিখ্যাত সমাজসেবককে এই বছরের মিশন পানি মুভমেন্ট-এর সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে। News18 এবং হারপিক ইন্ডিয়ার (Harpic India) মিলিত প্রচেষ্টায় শুরু হয়েছে মিশন পানি মুভমেন্ট (Mission Paani Movement)। সকলের জন্য পরিষ্কার পানীয় জল এবং সেফ স্যানিটেশনের লক্ষ্যে শুরু করা হয়েছে এই প্রোগ্রাম।

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: