• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • IMMUNITY BOOST FOOD INCLUDE THESE FRUITS AND VEGETABLES IN YOUR MONSOON DIET AC

Immune-Boosting Foods: গরম থেকে স্বস্তি দিলেও বর্ষা আনে একাধিক অসুখ! ইমিউনিটি বাড়াতে সঙ্গে থাক জুতসই ডায়েট

শুধু বর্ষা নয়, করোনা আবহে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ালেই যে কোনও রোগের সঙ্গে লড়াই করা যাবে।

শুধু বর্ষা নয়, করোনা আবহে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ালেই যে কোনও রোগের সঙ্গে লড়াই করা যাবে।

  • Share this:

 একটানা চলতে থাকা গ্রীষ্মের দাবদাহ থেকে বর্ষা মানুষের জীবনে স্বস্তি নিয়ে আসে। কিন্তু এই সময়ই প্রচুর সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। বর্ষার মরসুমে আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। ফলে সর্দি, কাশি, ফ্লু ছাড়াও ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়ার মতো মশাবাহিত রোগ এবং কলেরা, টাইফয়েডের মতো সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়। তবে শুধু বর্ষা নয়, করোনা আবহে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ালেই যে কোনও রোগের সঙ্গে লড়াই করা যাবে তাও বিগত দিনে মানুষ বুঝতে পেরেছে। কোভিড- ১৯ পরিস্থিতিতে তাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো আগের চেয়ে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই শরীরের ইমিউনিটি বাড়াতে অবশ্যই ডায়েটের দিকে নজর দিতে হবে৷ কারণ সঠিক ডায়েট এবং শরীরচর্চাই পারে আপনার শরীরের সঠিক ইমিউনিটি বজায় রাখতে। এখানে কিছু নির্দিষ্ট ফল ও সবজির বিষয়ে জানানো হল যেগুলি পুষ্টিগুণে ভরপুর এবং শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে মজবুত করতে সাহায্য করে।

এখানে এমন কিছু খাবারের একটি তালিকা রয়েছে যা প্রয়োজনীয় পুষ্টির সঙ্গে আপনার শরীরকে স্বাভাবিক ভাবে উজ্জীবিত করে তুলতে সহায়তা করবে।

১. সাইট্রাস ও মরসুমি ফল: সাইট্রাস ফল হল ভিটামিন সি এবং ফাইবারের মতো পুষ্টির এনার্জিতে ভরপুর। এই ধরনের ফলগুলি শরীরে শক্তি জোগাতে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সহায়তা করে। তাই অবশ্যই আপেল, পেয়ারা, কলা, বেদানা, পেপে, কিউই, আমলকি, কমলালেবু, মুসাম্বি, লিচু, নাশপাতি, বেরি ইত্যাদি মরসুমি ফলগুলি রোজকার ডায়েটে রাখুন। এই সব ফলগুলিতে উচ্চ মাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট রয়েছে যা ব্লাড প্রেসার কমাতে সাহায্য করে।

২. বিট: বর্ষায় বাতাসের আদ্রতা বেশি থাকায় আমাদের হজম ক্ষমতা দুর্বল হয়ে যায়। বেশিরভাগ মানুষই এইসময় হজমের সমস্যায় ভোগেন। সেক্ষেত্রে নিয়মিত বিট খেলে হজম প্রক্রিয়া ভালো হবে। একই সঙ্গে বিট ওজন হ্রাস করতে এবং ইমিউনিটি গঠনেও সাহায্য করবে। এছাড়া বর্ষায় চুল পড়ার সমস্যাও থাকলে খাদ্যতালিকায় বিট যুক্ত করুন।

৩. ভুট্টা: কম ক্যালোরিযুক্ত এবং ফাইবারে ভরপুর ভুট্টা হল বর্ষায় একটি খুব ভালো স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস। এটিতে লুটেইন (Lutein) এবং দু'টি ফাইটোকেমিক্যাল (Phytochemical) রয়েছে যা দৃষ্টিশক্তি উন্নত করে। পাশাপাশি ভুট্টায় অদ্রবণীয় ফাইবারগুলি আমাদের অন্ত্রে ভালো ব্যাকটেরিয়া বাড়ায় যার ফলে হজমে সহায়তা হয়। নিজের স্বাদ অনুযায়ী আপনি বিভিন্ন ভাবে ভুট্টা খেতে পারেন। এটি এমন একটি খাবার যা সেদ্ধ করে, ভাপিয়ে অথবা পুড়িয়ে খাওয়া যায়।

৪. করলা: কোষ্ঠকাঠিন্য, আলসার এবং ম্যালেরিয়ার মতো রোগগুলিকে উপশম রাখার জন্য রোজকার ডায়েটে করলা রাখুন, কারণ করলাতে প্রদাহবিরোধী গুণ রয়েছে। করলা শরীরের ব্লাড সুগারের মাত্রাকে কম করে বলে ডায়াবেটিস রোগীরাও নির্দ্বিধায় করলা খেতে পারেন।

৫. ডাবের জল: স্বাস্থ্যকর থাকতে এবং ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ রোধ করার অন্যতম উপায় হল শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা। সারা দিনে জল খাওয়ার পরিমাণ বাড়ানোর সঙ্গেই দিনে একবার ডাবের জল খেলে তা শরীর থেকে টক্সিন বের করতে সাহায্য করবে। কারণ ডাবের জল হল ইলেকট্রোলাইটের খুব ভালো উৎস। ডাবের জলের মধ্যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর উপাদান রয়েছে এবং একইসঙ্গে এটি হার্টও ভালো রাখে। আপনি যদি ওজন নিয়ে চিন্তিত থাকেন তাহলেও নিয়মিত ডাবের জল খান যা আপনার ত্বকও ভালো রাখবে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: