সঙ্গমে যথেষ্ট তৃপ্তি দিতে পারেন না স্বামী; বিষয়টি কী ভাবে মধুর করা যায় বলছেন বিশেষজ্ঞ

সঙ্গমে যথেষ্ট তৃপ্তি দিতে পারেন না স্বামী; বিষয়টি কী ভাবে মধুর করা যায় বলছেন বিশেষজ্ঞ
মহিলার চিন্তা- স্পষ্ট কথায় বললে বিষয়টা স্বামীর খারাপ লাগবে, সেক্ষেত্রে কী করণীয়?

মহিলার চিন্তা- স্পষ্ট কথায় বললে বিষয়টা স্বামীর খারাপ লাগবে, সেক্ষেত্রে কী করণীয়?

  • Share this:

#কলকাতা:  শারীরিক সম্পর্ক তেমন সুখের নয়! অপর পক্ষের কাছ থেকে যা প্রত্যাশা করা হচ্ছে, তা মিটছে না! এরকম পরিস্থিতিতে যৌন সম্পর্ক কত দিন বজায় থাকতে পারে?

যে মহিলা এবার বিশেষজ্ঞা পল্লবী বার্নওয়ালকে চিঠি দিয়েছেন, তিনি জানিয়েছেন যে ঘটনাটি তাঁর সঙ্গে তিন বছর ধরে ঘটে চলেছে। মহিলা লিখতে দ্বিধা করেননি যে স্বামী শারীরিক সম্পর্কে বেশ স্বার্থপরের মতো আচরণ করন। তিনি স্ত্রীর তৃপ্তি সম্পর্কে সচেতন হওয়ার প্রয়োজন বোধ করেন না। মহিলার দাবি- এই তিন বছরে স্বামী মাত্র একবার তাঁকে মুখমেহন বা Oral Sex-এর মাধ্যমে তৃপ্তি দিয়েছেন! কিন্তু তিনি রোজ-ই স্বামীকে মুখমেহনের মাধ্যমে তৃপ্তি করে থাকেন!

বিষয়টি আদপেই অস্বাভাবিক নয়! পরিতৃপ্ত বোধ না করা সত্ত্বেও যে বিবাহিত ভারতীয় মহিলারা যৌন সম্পর্কে থাকতে বাধ্য হন, তার বহু উদাহরণ বিশেষজ্ঞরা দিয়ে থাকেন। তাই এক্ষেত্রে মুখ খোলার জন্য পল্লবী এই মহিলাকে সাধুবাদ দিয়েছেন। মহিলার চিন্তা- স্পষ্ট কথায় বললে বিষয়টা স্বামীর খারাপ লাগবে, সেক্ষেত্রে কী করণীয়?


পল্লবীরও দাবি, এক্ষেত্রে অতৃপ্তির কথাটা স্বামীকে সরাসরি জানানোর কোনও প্রয়োজন নেই! তার বদলে কী কী করা যেতে পারে, পরামর্শ দিয়েছেন তিনি!

১. মনের কথা অনেক ভাবে বোঝানো যায়! তাই পল্লবী বলছেন, একান্তই যদি কথা বলতেই হয়, তাহলে প্রসঙ্গটা রতিক্রীড়ার সময়ে একটু ঘুরিয়ে তোলাই ভালো! এক্ষেত্রে স্বামী উত্তেজিত হওয়ার পর তাঁর প্রশংসা করা যায়। বলা যায়, তিনি কী ভাবে চূড়ান্ত সুখ দিয়েছিলেন মুখমেহনের মাধ্যমে। এই প্রশংসায় কাজ হতে পারে, তিনি আবার উদ্যোগী হতে পারেন!

২. তবে পল্লবীর বক্তব্য, তার আগে একটু অন্য কৌশল নেওয়া যেতেই পারে! যেমন, যৌনাঙ্গের জন্য বিশেষ ভাবে তৈরি সুগন্ধি ব্যবহার করা যায়! যা কামোত্তেজনা জাগিয়ে স্বামীকে আকৃষ্ট করবে!

৩. ব্যবহার করা যায় বিশেষ ধরনের অন্তর্বাসও! এক্ষেত্রে এডিবল লঁজারি কাজে আসতে পারে, বলছেন বিশেষজ্ঞা।

৪. সঙ্গমকালে নিজের ইচ্ছা মতো স্বামীর হাত টেনে নিয়ে তা শরীরের বিভিন্ন জায়গায় স্পর্শ করানো যায়! এতে স্বামীও বুঝতে পারবেন যে তাঁর কাছ থেকে ঠিক কী চাওয়া হচ্ছে!

৫. মুখমেহন কত দূর আর্ষণীয় হয়ে উঠতে পারে, তা বোঝানোর জন্য স্বামীকে নানা ভিডিও ক্লিপ পাঠানো যায়। এটাও তাঁর অবচেতনে প্রভাব ফেলতে পারে।

Pallavi Barnwal 

Published by:Ananya Chakraborty
First published: