Home /News /life-style /
Summer Tips|| দেহ ও মনে ছড়িয়ে পড়বে প্রশান্তি, গরমের দিনে স্নানের জলে যোগ করুন 'এই' সব উপাদান

Summer Tips|| দেহ ও মনে ছড়িয়ে পড়বে প্রশান্তি, গরমের দিনে স্নানের জলে যোগ করুন 'এই' সব উপাদান

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

4 Healing Baths for Summer: স্নানের জলে এমন কিছু উপাদান মেশাতে হবে, যা শরীরকে ঝরঝরে এবং তরতাজা করে তুলবে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: গরমের দিনে বার বার স্নান করেও যেন আরাম মেলে না। ত্বকেও দেখা দেয় হাজারো সমস্যা। তবে এই সব ক্ষেত্রে মুশকিল আসান অবশ্যই রয়েছে। আসলে স্নানের সময় স্নানের জলে এমন কিছু উপাদান মেশাতে হবে, যা শরীরকে ঝরঝরে এবং তরতাজা করে তুলবে। আর আনবে প্রশান্তিদায়ক স্নানের অনুভূতিও। আজ এই প্রতিবেদনে সেই প্রসঙ্গেই আমরা আলোচনা করে নেব।

ওটমিল-ক্যামোমাইল:

ত্বকের লালচে ভাব, র‍্যাশ, চুলকানি উপশমকারী উপাদান রয়েছে ওটমিলে (Oatmeal)। আবার ক্যামোমাইলে (Chamomile) রয়েছে দেহ শীতল রাখার মতো প্রশান্তিদায়ক উপাদান। ফলে স্নানের সময় ওটমিল ও ক্যামোমাইলের ব্যবহার শরীরকে আরাম দেবে। একটি মোজা অথবা নরম জালিকাপড়ের মধ্যে একই পরিমাণে ওটস ও শুকনো ক্যামোমাইল নিতে হবে। এবার ওই মোজা বা জালিকাপড়ের মুখ ভালো করে বেঁধে তা ঈষদুষ্ণ গরম জলের পাত্রে রাখতে হবে। সেই জলেই স্নানের সময় ওই মোজা বা জালিকাপড়ে ধীরে ধীরে চাপ দিতে হবে, যাতে ওটমিল বেরিয়ে আসে। আরও ভালো ফল পাওয়ার জন্য ওটমিল-ক্যামোইলের মিশ্রণ ত্বকেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

আরও পড়ুন: গরমে দাপটে ঘুমের দফারফা? পরিপাটি ঘুমের জন্য রইল একগুচ্ছ টিপস...

সি-সল্ট মিনারেল:

সারাদিনের অতিরিক্ত কাজ, এক্সারসাইজের কারণে গা-হাত-পায়ে ব্যথা হতে পারে। সেক্ষেত্রে সামুদ্রিক লবণের মিশ্রণে স্নান করলে সেই ব্যথা তো উপশম হবেই, সেই সঙ্গে শরীরেও ঝরঝরে ভাব আসবে। আসলে আমাদের দেহত্বক সরাসরি সোডিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম শোষণ করতে সক্ষম। এর জন্য ১/৪ কাপ সামুদ্রিক লবণ, ১/৪ কাপ এপসম লবণ (ম্যাগনেশিয়াম সালফেট), ১/৪ কাপ বেকিং সোডা, ১ টেবিল-চামচ করে শুকনো ল্যাভেন্ডারের কুঁড়ি ও রোজমেরি এবং থাইম পাতা গরম জলে মেশাতে হবে। এতে ফোলাভাব, ব্যথা উপশম তো হয়ই, সেই সঙ্গে ক্ষতও নিরাময় হয়।

আরও পড়ুন: কোন ধরনের মুখে কেমন রোদচশমা মানায়? বুঝবেন কীভাবে? রইল কেনার আগের টিপস...

পেপারমিন্ট এবং শসা:

আমরা সকলেই জানি যে, চোখের ক্লান্তিভাব কাটাতে শসার (Cucumber) জুড়ি মেলা ভার! শুধু তা-ই নয়, শসার পেস্ট বানিয়ে সেটা স্নানের সময় ব্যবহার করলে দেহে-মনে প্রশান্তি ছড়িয়ে পড়ে। এর সঙ্গে যদি পেপারমিন্ট (Peppermint) চা মেশানো হয়, তাহলে তো কথাই নেই! শরীর হবে ঠান্ডা এবং প্রদাহ কমে ত্বক ভালো থাকবে। এর জন্য একটি বড় শসা ব্লেন্ড করে নিতে হবে, তার পর এর রস একটি জালিকাপড়ের মাধ্যমে ছেঁকে নিতে হবে। এই রস উষ্ণ অথবা ঠান্ডা জলে মেশাতে হবে। তার মধ্যে ২ কাপ এপসম লবণ এবং ৩-৪টি পেপারমিন্ট টি-ব্যাগ ফেলে দিতে হবে। এর সঙ্গে চাইলে পেপারমিন্ট এসেনসিয়াল অয়েল কিংবা পছন্দমতো রিজ্যুভিনেটিং অয়েল মেশানো যায়।

এসেনসিয়াল অয়েল বাথ সল্ট:

বারবার সর্দি-কাশি ও অ্যালার্জিতে ভুগলে গরম জলে স্নান করলে আরাম মেলে। তবে তাতে কয়েক ফোঁটা পছন্দের এসেনসিয়াল অয়েল (Essential oil) মিশিয়ে নিলে আরও আরাম মিলবে। আর এই অ্যালার্জি উপশমকারী বাথ সল্ট বানানোর জন্য লাগবে ২ কাপ এপসম লবণ, ১ কাপ সামুদ্রিক লবণ, আধ কাপ বেকিং সোডা, ১-২ টেবিল-চামচ শুকনো ল্যাভেন্ডার কুঁড়ি, ১টি পেপারমিন্ট টি-ব্যাগ, ৫ ফোঁটা করে ইউক্যালিপটাস অয়েল, ল্যাভেন্ডার, পেপারমিন্ট ও টি-ট্রি এসেন্সিয়াল অয়েল এবং ২ টেবিল-চামচ অলিভ অয়েল বা অন্য কোনও তেল। সব উপকরণ মিশিয়ে একটা জারে ভরে রাখতে হবে এবং স্নানের সময় উষ্ণ গরম জলে ফেলে ব্যবহার করতে হবে।

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Summer

পরবর্তী খবর