ভ্যাকসিন নিতে গিয়েও হতে পারে সংক্রমণ, কী করবেন জানাচ্ছেন বিশিষ্ট চিকিৎসক

ভ্যাকসিন নিতে গিয়েও হতে পারে সংক্রমণ, কী করবেন জানাচ্ছেন বিশিষ্ট চিকিৎসক

ভ্যাকসিন নিতে গিয়েও হতে পারে সংক্রমণ, কী করবেন জানাচ্ছেন বিশিষ্ট চিকিৎসক!

চিকিৎসক ড: তুষার শাহ ( Dr. Tushar Shah) জরুরি কিছু পরামর্শ দিয়েছেন, যে পরামর্শ সঠিক ভাবে মেনে চললে ভ্যাকসিন নিতে এসে সংক্রমণের হার ঠেকানো সম্ভব।

  • Share this:

#মুম্বই: করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ কার্যত মারণ আকার ধারণ করেছে ভারতে। লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হার৷ পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। ভারতে এই মুহুর্তে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা বিশ্বের নিরিখে সর্বোচ্চ। দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা এপ্রিল ২১ তারিখ অবধি ২১৬৫ জন। যা এই মুহূর্তে সারা বিশ্বের নিরিখে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১,৭৩, ০৬,৬৪৭ জন। তুলনায় ভ্যাকসিনের পরিমাণ বেশ কম। এখনও অবধি ভারতে ভ্যাকসিনের মোট সংখ্যা ১৪০.৯ মিলিয়ন। যা দৈনিক সংক্রমনের তুলনায় বেশ সীমিত৷ হাসপাতাল এবং ভ্যাকসিনেশন সেন্টারগুলিতে মানুষের ভিড় চোখে পড়ার মতো। যা নতুন সমস্যার জন্ম দিয়েছে। ডাক্তার ও চিকিৎসাবিজ্ঞানীদের মতে, ভ্যাকসিনেশনের জন্য মানুষের ঢল নামায়, তা করোনা আক্রান্তের সম্ভাবনা আরও কয়েকগুণ বাড়িয়ে তুলেছে। হাসপাতাল ও ভ্যাকসিন সেন্টারগুলিতে মানুষের ভিড় থেকে সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়ছে প্রতিনিয়ত। এই অবস্থায় বিশিষ্ট চিকিৎসক ড: তুষার শাহ ( Dr. Tushar Shah) জরুরি কিছু পরামর্শ দিয়েছেন৷ যে পরামর্শ সঠিক ভাবে মেনে চললে ভ্যাকসিন নিতে এসে সংক্রমণের হার ঠেকানো সম্ভব।

নিজের Instagram আ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা একটি ভিডিওয় ভ্যাকসিন নিতে আসা জনগণের জন্য নির্দিষ্ট কিছু উপদেশ দিয়েছেন ড: শাহ। প্রতি পদক্ষেপে ওই উপদেশ মেনে চলতে পারলে, সংক্রমণের হার কমবে বলে জানিয়েছেন তিনি৷ কিন্তু কী সেই উপদেশ? ড: শাহের মতে ভ্যাকসিন নিতে আসা সমস্ত মানুষের মাস্ক পড়া একান্ত আবশ্যক। তাও একটা নয়, দু'টি মাস্ক। প্রত্যেক মানুষকে N-95 মাস্ক ব্যবহারের উপদেশ দিয়েছেন ড: শাহ। তাঁর মতে ভেতরে একটি N-95 মাস্ক ও তার বাইরে একটি সার্জিকাল মাস্ক ব্যবহার একান্ত প্রয়োজনীয়। এই দুই মাস্ক করোনা থেকে যে কোনও মানুষকে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা দিতে সক্ষম। মাস্কের পাশাপাশি গ্লাভস ব্যবহারের পরামর্শও দিয়েছেন, ড: শাহ। তাঁর মতে করোনা যেহেতু নাক-মুখ-চোখ সমস্ত জায়গায় প্রভাব ফেলতে পারে, সেই হেতু যে সমস্ত মানুষজনের নাকে-মুখে-চোখে হাত দেবার অভ্যেস আছে, তাঁদের ক্ষেত্রে গ্লাভস ব্যবহার একান্ত কাম্য। এর পাশাপাশি ভ্যাকসিন নিতে আসা সমস্ত মানুষকে একে অপরের সঙ্গে হাত মেলানো অথবা যে কোনও রকম ঘনিষ্ঠতা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন তিনি। হাত মেলানো থেকে অন্য একজনের শরীরে ভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়ে- এমনই বক্তব্য ড: শাহের। একে অপরের সঙ্গে সঠিক শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, কথা না বলা ও প্রত্যেককে স্যানিটাইজার ব্যবহারের উপদেশও দিয়েছেন তিনি। ভ্যাকসিন সেন্টারে আসার আগেই চা বা কফি খেয়ে আসতে বলেছেন তিনি। ভ্যাকসিনের লাইনে দাঁড়িয়ে কোনও রকম খাবার বা পানীয় না খাওয়ার পক্ষেই মত দিয়েছেন প্রসিদ্ধ এই ডাক্তার।

প্রকাশিত হবার পর এই ভিডিও মোট ১০৭ হাজার মানুষ দেখেছেন। মোট লাইকের সংখ্যা ৭০০০০। ড: তুষার শাহের এই ভিডিওর প্রশংসা মানুষের মুখে মুখে।

Published by:Rukmini Mazumder
First published: