সবজির ওজন বাড়াতে হরমোন ইনজেকশন, জানেন এর পরিণাম কি?

আসতে চলেছে ভয়ানক দিন ৷ ভেজালের হাত থেকে কোনওদিক থেকেই আর রক্ষা নেই ৷ এমনকী, রোজ যে আপনি ব্যাগ ভর্তি করে বাজার থেকে যে সবজি আনছেন, সেগুলো আসলে সবজির রূপে বিষ!

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Feb 02, 2017 07:28 PM IST
সবজির ওজন বাড়াতে হরমোন ইনজেকশন, জানেন এর পরিণাম কি?
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Feb 02, 2017 07:28 PM IST

#কলকাতা: আসতে চলেছে ভয়ানক দিন ৷ ভেজালের হাত থেকে কোনওদিক থেকেই আর রক্ষা নেই ৷ এমনকী, রোজ যে আপনি ব্যাগ ভর্তি করে বাজার থেকে যে সবজি আনছেন, সেগুলো আসলে সবজির রূপে বিষ!

সামনে এল এমনই কিছু তথ্য ৷ যা কিনা দুশ্চিন্তা বাড়ানোর জন্য যথেষ্ট ৷

রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতীয় কৃষকরা সবজির ওজন বাড়ানোর জন্য ব্যবহার করছেন বিশেষ হরমোন ৷ তথ্য অনুযায়ী, সবজিতে কৃষকরা যে হরমোন ব্যবহার করছেন, তা সাধারণ চিকিৎসকরা দিয়ে থাকেন প্রেগন্যান্ট মহিলাদের ৷

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এই হরমোন সবজিতে ব্যবহার করার ফলে এক বিষক্রিয়া তৈরি করছে সবজির অন্দরে ৷ যা কিনা মানবদেহের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকারক ৷ চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এই ধরণের সবজি খেলে তৎক্ষণাৎ হয়তো কোনও ধরণের শরীর খারারপ নাও হতে পারে ৷ কিন্তু ভবিষ্যতের ক্ষেত্রে খুবই দুশ্চিন্তাজনক ৷

ডাক্তারদের কথায়, হরমোন দেওয়া সবজি খাওয়ার ফলে দিন দিন চোখের অসুখ হতে পারে, দৃষ্টি দুর্বল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ৷ শুধু তাই নয়, শ্বাসকষ্ট, লিভারের রোগ, হৃদরোগ, নার্ভের রোগ, অ্যালজাইমার, এমনকী ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায় ৷

২০১০ সালে ভারতীয় সরকারের পক্ষ থেকে এই বিষয়টির ওপর নজর দেওয়া হয়েছিল ৷ এমনকী, তৎকালীন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী দিনেশ ত্রিবেদী গোটা দেশে সবজিতে অক্সিটোন ব্যবহার বন্ধ করার কথাও বলেছিলেন ৷ এমনকী, নানা মিডিয়া রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে বন্ধও করে দেওয়া হয় অক্সিটোনের বিক্রি ৷ তবে বেআইনিভাবে এখনও সবজিতে চলছে এই ধরণের হরমোন ইনজেকশন ৷

এর হাত থেকে বাঁচবেন কীভাবে?

১) চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, এর হাত থেকে বাঁচাটা সহজ নয় ৷ কারণ, আপনি পুরোপুরি সবজি বাদ দিতে পারবেন না ৷ তাই অরগানিক সবজিকেই সবুজ সংকেত দেখান ৷

২) অরগানিক সবজির দাম প্রচুর ৷ সেক্ষেত্রে ডাক্তাররা বলছেন, সবজি ভালো করে ধুয়ে খেতে হবে ৷ সবজি রান্নার আগে ভালো করে সেদ্ধ করে নিন ৷

৩) কাঁচা সবজি না খাওয়ার কথাই বলছেন চিকিৎসকরা ৷

First published: 07:28:34 PM Feb 02, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर