শিক্ষাজগতেরও Hero! গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা নিয়ে এল নয়া প্রযুক্তিশিক্ষার প্ল্যাটফর্ম Hero Vired!

শিক্ষাজগতেরও Hero! গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা নিয়ে এল নয়া প্রযুক্তিশিক্ষার প্ল্যাটফর্ম Hero Vired!

Hero Group launches Hero Vired, an edtech platform- Photo -Representative

এই Hero Vired এডটেক প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যোগ রয়েছে ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি, সিঙ্গুলারিটি ইউনিভার্সিটি এবং কোডকাডেমির।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দুই চাকার গাড়ি প্রস্তুত করার ক্ষেত্রে দেশে Hero Group নিঃসন্দেহেই এক উজ্জ্বল নাম। তবে তার পাশাপাশিই শিক্ষাক্ষেত্রেও কিন্তু নিজেদের ভাবমূর্তি আলোকিত করে তুলেছে সংস্থা। সেই ২০১৪ সালেই গুরুগ্রামের অদূরে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল বিএমএল মুঞ্জল ইউনিভার্সিটি। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্ণধার এবং Hero Group-এর কর্ণধার অক্ষয় মুঞ্জল এবার আরও একটি সুসংবাদ নিয়ে এলেন দেশের জন্য। জানালেন যে সংস্থার হাত ধরে শুরু হচ্ছে Hero Vired এডটেক প্ল্যাটফর্ম। যা প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণের পথটি দেশের প্রফেশনাল এবং শিক্ষার্থীদের কাছে আরও মসৃণ করে তুলবে।

জানা গিয়েছে যে এই Hero Vired এডটেক প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যোগ রয়েছে ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি, সিঙ্গুলারিটি ইউনিভার্সিটি এবং কোডকাডেমির। একেবারে শেষে উল্লেখ করা এই মার্কিন প্রতিষ্ঠান এর মধ্যেই কোডিং শেখানো নিয়ে বিশ্বদরবারে রীতিমতো সুনাম অর্জন করেছে। প্রযুক্তিগত পড়াশোনার দিক থেকে পিছিয়ে নেই বাকি দুই ইউনিভার্সিটিও। সেই কারণেই এই তিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগসূত্র গড়ে তোলা হয়েছে যাতে শিক্ষার্থীরা সব সময়েই সেরা প্রশিক্ষণ পান, জানিয়েছেন অক্ষয় মুঞ্জল। এই তিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সহাবস্থানের কারণে দেশে বসেই বিদেশি প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা এবং ডিগ্রি সার্টিফিকেট লাভ করার সুযোগ পাবেন শিক্ষার্থীরা।

এই প্রসঙ্গে অক্ষয় মুঞ্জল আরও একটি দিক স্পষ্ট করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন নবপ্রতিষ্ঠিত Hero Vired-এর মাধ্যমে তিনি দুই ধরনের লক্ষ্য পূর্ণ করতে চান। এর মধ্যে প্রথমটি হল প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মী তৈরি করা আর দ্বিতীয়টি হল দেশের প্রশিক্ষণগত শিক্ষাব্যবস্থাকে আরও মজবুত করে তোলা। সেই লক্ষ্য যাতে ভ্রষ্ট না হয়, তার জন্য অকাতরে অর্থব্যয় করতে ভোলেননি তিনি, মোট ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করা হয়েছে Hero Vired-এর নেপথ্যে।

অক্ষয় মুঞ্জল জানিয়েছেন যে তাঁর এই এডটেক প্ল্যাটফর্মে ফিনান্স এবং সেই সূত্রে প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি, ডেটা সায়েন্স, মেশিন লার্নিং, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, গেম ডিজাইন এই রকম নানা দিকে সার্টিফিকেট কোর্স করার সুযোগ পাওয়া যাবে। এই সুযোগ নিতে পারবেন শিক্ষার্থী এবং চাকরিজীবী দুই শ্রেণীই! যাঁরা কাজ করছেন, তাঁদের জন্য রয়েছে হরেক উইকেন্ড কোর্স। আর যাঁরা পড়াশোনা করছেন, তাঁদের জন্য ফুল-টাইম নানা কোর্স আছে বলে জানা গিয়েছে।

Published by:Debalina Datta
First published:

লেটেস্ট খবর