Gender Inequality: লিঙ্গ বৈষম্য কমাতে চান? আজ থেকে মহিলা ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে জিনিস কিনুন...

Gender Inequality: লিঙ্গ বৈষম্য কমাতে চান? আজ থেকে মহিলা ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে জিনিস কিনুন...

কোভিড সংক্রমণের ফলে ছোট ছোট মহিলা ব্যবসায়ীরা বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি হয়েছেন।

কোভিড সংক্রমণের ফলে ছোট ছোট মহিলা ব্যবসায়ীরা বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি হয়েছেন।

  • Share this:

#নয়াদিল্লিঃ পুরুষ না মহিলা, কোভিড ১৯-এর প্রভাব কাদের উপরে বেশি এটা একটি গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার বিষয়। চিকিৎসাবিজ্ঞান বলছে যে কোভিডে মহিলাদের চেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন পুরুষরা। কিন্তু যদি আর্থ সামাজিক দিক বিচার করা হয়, তাহলে দেখা যাবে যে মহিলারা অনেক বেশি প্রভাবিত হয়েছেন। কোভিড সংক্রমণের ফলে ছোট ছোট মহিলা ব্যবসায়ীরা বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি হয়েছেন। ব্যক্তিগত ব্যবসা যারা করেন তাঁদের মধ্যে এক তৃতীয়াংশ মহিলার নিজস্ব ব্যবসা আছে। ভাইরাস সংক্রমণের জেরে কী ভাবে মহিলারা প্রভাবিত হচ্ছেন, কী রকমের চ্যালেঞ্জ তাঁদের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে এবং কী ভাবে এর সমাধান করা সম্ভব এই সব নিয়ে একটি সমীক্ষা চালিয়েছে উই কানেক্ট ইন্টারন্যাশনাল। এটি একটি আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম যেখানে মহিলা বিক্রেতাদের সঙ্গে ক্রেতাদের যোগসূত্র স্থাপন করা হয়।

প্ল্যাটফর্মের সিইও এলিজাবেথ এ ভাজকুইজ বলেছেন যে কোভিড, লকডাউন এই সমস্ত বাধা সত্ত্বেও কিছু মহিলা নিজস্বতা দিয়ে প্রভূত উন্নতি করেছেন। অনেক মহিলাই ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম বা অনলাইনে কেনাবেচার গুরুত্ব বুঝতে পেরেছেন। তাই তাঁরা সানন্দে এই ডিজিটাল মডেল বেছে নিয়েছেন। ফলে রেভিনিউ কিছুটা কম হলেও তাঁদের ব্যবসা বন্ধ হয়নি। এলিজাবেথ এও বলেন যে সামান্য একটু ইন্টারনেট থাকলেই যে কোনও মহিলা তাঁদের জিনিসপত্র নিয়ে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে যেতে পারেন। আর এটা খুব আশার যে মহিলারা এটা সহজেই বুঝে গিয়েছেন।

মহিলাদের আরও বেশি করে ব্যবসায়ে যোগদানকে অন্য ভাবে বিশ্লেষণ করেছেন এলিজাবেথ। তিনি বলেছেন যে বিশ্ব জুড়ে যে লিঙ্গবৈষম্য আছে সেটা কম করার এটাই একমাত্র উপায়। আর সেটা হল বেশি করে জিনিসপত্র মহিলাদের থেকে কেনা। লাভের মুখ দেখলে মহিলারা আত্মবিশ্বাস পাবেন এবং তাঁদের সাফল্য দেখে অন্যরাও অনুপ্রাণিত হবেন। তবে এই বিষয়ে আর বেশি করে সরকারি হস্তক্ষেপ দরকার বলে দাবি করেছেন এলিজাবেথ। সরকারি সাহায্য পেলে আরও বেশি মহিলা ডিজিটাল ব্যবসা সম্পর্কে প্রশিক্ষিত ও ওয়াকিবহাল হবেন।

এলিজাবেথ দেখেছেন যে ভারতে মহিলাদের ব্যাঙ্ক ঋণের ক্ষেত্রেও অনেক ভেদাভেদ আছে। অনেকেই মোটা অঙ্কের ঋণ পান না কারণ তাঁরা মহিলা। এই নিয়মেরও এবার পরিবর্তন দরকার বলে মনে করছেন সিইও।

Published by:Shubhagata Dey
First published: