• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • ওজন কমাতে পারে সঠিক পরিমাণ জল! জানুন কি ভাবে

ওজন কমাতে পারে সঠিক পরিমাণ জল! জানুন কি ভাবে

জল - শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের দিনে ২ থেকে ৩ লিটার জল খাওয়া প্রয়োজন। তবে, তাপমাত্রা বেশি থাকলে বা গরমকাল পড়লে এই পরিমাণ বাড়াতে হবে। জলে আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম ও পটাসিয়াম থাকে। ফলে জল শুধু অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সচল রাখতেই নয়, মেটাবলিক সিস্টেম ঠিক রাখতেও প্রয়োজন পড়ে। আর এক্ষেত্রে বাইরে বের হলেই সব সময়ে জল সঙ্গে রাখা দরকার।

জল - শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের দিনে ২ থেকে ৩ লিটার জল খাওয়া প্রয়োজন। তবে, তাপমাত্রা বেশি থাকলে বা গরমকাল পড়লে এই পরিমাণ বাড়াতে হবে। জলে আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম ও পটাসিয়াম থাকে। ফলে জল শুধু অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সচল রাখতেই নয়, মেটাবলিক সিস্টেম ঠিক রাখতেও প্রয়োজন পড়ে। আর এক্ষেত্রে বাইরে বের হলেই সব সময়ে জল সঙ্গে রাখা দরকার।

সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকতে তাই জলের গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু জানেন কি ওজন কমাতেও জল বেশ উপকারী? জেনে নিন কি ভাবে জল সাহায্য করে ওজন কমাতে।

  • Share this:

    #কলকাতা: শীত হোক কিংবা গ্রীষ্ম, শরীর সুস্থ রাখার জন্য সঠিক পরিমাণ জল খাওয়া জরুরি। যথেষ্ট পরিমাণে পানীয়, বিশেষত জল, শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে সাহায্য করে। সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকতে তাই জলের গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু জানেন কি ওজন কমাতেও জল বেশ উপকারী? জেনে নিন কি ভাবে জল সাহায্য করে ওজন কমাতে।

    • খাবার খাওয়ার ঠিক ১০-১৫ মিনিট আগে জল খেলে, খিদে কিছুটা কমে যায়। ফলে, খুব বেশি ক্যালরি কনজিউম করা সম্ভব হয় না। তাই বেশ কয়েক কিলো ওজন কমাতে চাইলে, মেনে চলা যেতে পারে এই পদ্ধতি।
    • ওজন যাঁদের অনেক বেশি, তাড়াতাড়ি ক্যালরি বার্ন করা বেশ কষ্টকর হয়ে ওঠে তাঁদের জন্য। রিসার্চ বলছে, প্রচুর পরিমাণ জল খেলে, তা সাহায্য করে শরীরে জমে থাকা কার্বোহাইড্রেট এবং ফ্যাটকে খুব তাড়াতাড়ি বার্ন করতে। ফলে, শরীর হয়ে ওঠে ফিট ও তরতাজা।
    • জলের ঘাটতি হলে, টক্সিন জমতে শুরু করে শরীরে। জল এবং অন্যান্য ডিটক্স ড্রিঙ্ক, শরীর থেকে টক্সিনকে বের করে দেয় এবং সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।
    • সঠিক পরিমাণ জল খেলে এবং তৃষ্ণা মিটলে, খিদের অনুভূতি কিছুটা কমতে শুরু করে। সে কারণে, ক্যালরি ইনটেক কম হয়। তাই লো ক্যালরি ডায়েট নিয়ম করে পালন করলে, যথেষ্ট পরিমাণ জল খাওয়া অত্যন্ত জরুরি।
    • পেশিকে সচল রাখতে, শরীরে জলের প্রয়োজনীয়তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অন্যদিকে, প্রতিদিন এক্সারসাইজ করলে, পেশিতে টান লাগার মতো সমস্য হতে পারে। শরীরের চাহিদা অনুযায়ী জল পান করলে, এই সমস্যা দূর হয় এবং এমন সমস্যা ছাড়াই এক্সারসাইজ করা সম্ভব হয়।

    জল ওজন কমানোর ক্ষেত্রে বেশ কার্যকরী, এমন তথ্য উঠে এসেছে বেশ কিছু গবেষণায়। ২০১১ সালে এই গবেষণার রিপোর্ট ‘ওবেসিটি’ নামের একটি ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয়। এই রিপোর্ট অনুযায়ী, কম ক্যালরির ডায়েটের সঙ্গে প্রচুর পরিমাণ জল, এই নিয়মে চললে ওবেসিটি সহজে কাছে ঘেষতে পারবে না। তবে জল বেশি খাওয়ার অর্থ কিন্তু ৫-১০ লিটার জল খাওয়া নয়। শরীরের আয়তন, দিনে কতটা অ্যাকটিভিটি হচ্ছে, এসবের উপর নির্ভর করে সঠিক জলের পরিমাণ নির্ধারিত হওয়া উচিৎ।

    Published by:Antara Dey
    First published: