লাইফস্টাইল

corona virus btn
corona virus btn
Loading

World Pneumonia Day 2020: করোনাকালে বাড়ছে নিউমোনিয়ার ঝুঁকি, এই মারণ রোগ থেকে বাঁচবেন কী ভাবে? জানুন

World Pneumonia Day 2020: করোনাকালে বাড়ছে নিউমোনিয়ার ঝুঁকি, এই মারণ রোগ থেকে বাঁচবেন কী ভাবে? জানুন

কাদের মধ্যে নিউমোনিয়া হওয়ার প্রবাণতা বেশি ? কী ভাবে বাঁচবেন নিউমোনিয়ার হাত থেকে? জানুন

  • Share this:

#কলকাতা: করোনার এই দুর্বিসহ সময়ে নিউমোনিয়া আরও বড় আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ বছর নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বহু মানুষের মৃত্যুও হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে এ'বারের বিশ্ব নিউমোনিয়া দিবস খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। উল্লেখ্য, ২০০৯ সাল থেকে প্রতি বছর ১২ নভেম্বর পালিত হয় এই বিশ্ব নিউমোনিয়া দিবস। এ বারের থিম Every Breath Counts। মূলত শ্বাসযন্ত্রে আক্রমণ করে নিউমোনিয়া। এ ক্ষেত্রে মিউকাস বা অন্যান্য ফ্লুইডে ভরতি হয়ে যায় আমাদের শ্বাসযন্ত্র। এর জেরে শুরু হয় শ্বাসকষ্ট। তথ্য বলছে, প্রতি বছর এই রোগে লক্ষ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়। করোনাকালে নিউমোনিয়া বাড়তি উদ্বেগের কারণ। তা ছাড়া এ বছর নিউমোনিয়ায় মৃত্যুর সংখ্যাও বেড়েছে। তাই এই রোগ থেকে বাঁচতে হবে। কিন্ত তার আগে জানতে হবে কোন কোন ক্ষেত্রে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি? Cleveland Clinic-এর মতে বয়সসীমা বিশেষে কিছু বিশেষ ক্ষেত্রে নিউমোনিয়া হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

দুই বছরের নিচের শিশুদের নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি। একই সম্ভাবনা দেখা যায় ৬৫ বছরের উপরেও।

HIV-AIDS বা অটোইমিউন ডিজিজের জেরে যাঁদের ইমিউন সিস্টেম দুর্বল এবং যাঁদের ফুসফুসে সংক্রমণের প্রবণতা রয়েছে, তাঁদের ক্ষেত্রেও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি।

যাঁদের নিউরোলজিকাল ইস্যু যেমন ডিমেনশিয়া বা স্ট্রোকের প্রবণতা রয়েছে, তাঁরাও এই রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। যাঁরা মদ্যপান করেন, তাঁদের তো বটেই এবং অন্তঃসত্ত্বাদের ক্ষেত্রেও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি।

কী ভাবে বাঁচবেন নিউমোনিয়ার হাত থেকে: Pneumococcal ব্যাকটেরিয়া সৃষ্ট নিউমোনিয়া রোগকে প্রতিরোধ করতে Pneumovax23 ও Prevnar13 নামে দু'টি ভ্যাকসিন রয়েছে। তবে ভাইরাল নিউমোনিয়াকে আটকানোর কোনও ভ্যাকসিন নেই। প্রতি বছর ফ্লু ভ্যাকসিন নিতে পারেন। তা ছাড়া কিছু বিষয় মেনে চলতে হবে আপনাকে। ১. করোনার মতো ড্রপলেটের মাধ্যমেই ছড়াতে পারে নিউমোনিয়া। তাই বাইরে বেরলে সাবধানে থাকুন। প্রয়োজনে মাস্ক ব্যবহার করুন। নিয়মিত সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিন। ২. কেউ খুব অসুস্থ থাকলে বা নিউমোনিয়ায় ভুগলে, তাঁর থেকে দূরে থাকুন। ৩. এই রোগ স্পর্শের মাধ্যমে ছড়াতে পারে। তাই হাইজিন মেইনটেন করুন। হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন। ৪. ধূমপান ছেড়ে দিন। মাথায় রাখবেন বায়ুদূষণ বা নিষ্ক্রিয় ধূমপানও আপনার ফুসফুসের ক্ষতি করতে পারে। তাই অধিক দূষিত এলাকা বা ঘিঞ্জি এলাকা এড়িয়ে চলা ভাল। ৫. যদি সাধারণ কোনও জ্বর বা ভাইরাল ইনফেকশন হয়, তা হলে ডাক্তার দেখিয়ে চিকিৎসা করুন। যাতে এটি নিউমোনিয়ার স্টেজে না যায়, সে কথা মাথায় রাখুন। ৬. ডায়েটে নজর দিন। পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমোন। শরীরচর্চা করুন। এই অভ্যাসগুলি যথাযথ ভাবে বজায় রাখলে আপনার রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়বে। এর জেরে নিউমোনিয়া-সহ একাধিক সংক্রামকের বিরুদ্ধে লড়তে পারবেন আপনি।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: November 12, 2020, 4:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर