ভ্যাক্সিনেশান কার্ড: আপনার শিশুর জীবনে এর কতটা প্রয়োজন, কতটা গুরুত্বপূর্ণ দেখুন

ভ্যাক্সিনেশান কার্ড: আপনার শিশুর জীবনে এর কতটা প্রয়োজন, কতটা গুরুত্বপূর্ণ দেখুন
সঠিক সময়ে ভ্যাক্সিনেশান আপনার শিশুকে প্রাণঘাতী কিন্তু প্রতিরোধ করা সম্ভব এমন কিছু রোগের হাত থেকে বাঁচানোর ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে, যেমন- পোলিও, টিটেনাস, হাম, হুপিং কাশি এবং মেনিনজাইটিস।

সঠিক সময়ে ভ্যাক্সিনেশান আপনার শিশুকে প্রাণঘাতী কিন্তু প্রতিরোধ করা সম্ভব এমন কিছু রোগের হাত থেকে বাঁচানোর ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে, যেমন- পোলিও, টিটেনাস, হাম, হুপিং কাশি এবং মেনিনজাইটিস।

  • Share this:

    বাবা-মা হওয়ার অভিজ্ঞতা যতটা সুখকর, ঠিক ততটাই বিভিন্ন রকম চিন্তার উৎস। আপনার ছোট্ট সোনাকে নিয়ে যখনই কোনও সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় আসবে তখনই আপনি উদগ্রীব হয়ে উঠবেন। আপনি তার জন্য সবচেয়ে সেরা জিনিসটা চাইবেন এবং প্রতিদিন যেন সে ভালো ভাবে বেড়ে ওঠে বা স্বাস্থ্যবান হয়ে ওঠে, তা নিশ্চিত করার চেষ্টা করবেন।

    শৈশবের একদম প্রথম অবস্থায়, একজন নবজাতকের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুবই কম থাকে, কারণ সেটি তখন থেকে তৈরি হতে শুরু করে। এর ফলে এই সময় শিশুর যে কোনও সংক্রমণ বা রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি থাকে, যা উপযুক্ত পরিচ্ছন্নতা, পুষ্টি এবং সঠিক সময়ে সঠিক ভ্যাক্সিনেশান প্রদান করার মাধ্যমে এড়ানো সম্ভব। সঠিক সময়ে ভ্যাক্সিনেশান আপনার শিশুকে প্রাণঘাতী কিন্তু প্রতিরোধ করা সম্ভব এমন কিছু রোগের হাত থেকে বাঁচানোর ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে, যেমন- পোলিও, টিটেনাস, হাম, হুপিং কাশি এবং মেনিনজাইটিস। এই টিকাগুলি তৈরি করা হয় সংশ্লিষ্ট রোগের অ্যান্টিজেন ব্যবহার করে যা আপনার শিশুর শরীরে ঢুকে এই রোগ প্রতিরোধকারী অ্যান্টিবডি তৈরি করতে সাহায্য করবে। তার ফলে, আপনার শিশুর শরীরে সেই রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা তৈরি হবে এবং তা আপনার সন্তানকে এই মারণ রোগগুলির সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা প্রদান করবে।

    তাছাড়াও, টিকাগুলি আপনার নবজাতককে শুধুই এই ক্ষতিকর রোগগুলির হাত থেকে রক্ষা করে না, তার পাশাপাশি আপনার পরিবারের অন্য সদস্য এবং আপনার আশপাশে থাকা বন্ধুবান্ধবদেরও রক্ষা করে। এই টিকা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকেও রক্ষা করে – কারণ নিয়মিত ভ্যাক্সিনেশানের মাধ্যমে, এই ধরনের মারণ সংক্রমণগুলি আমরা উল্লেখযোগ্য ভাবে কমাতে, এমনকী সম্পূর্ণ বিলোপ করে ফেলতে পারি। ঠিক যে ধরনের ঘটনা আমরা স্মলপক্সের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষ করেছি, যেই রোগ একশো বছর আগেও প্রাণঘাতী হিসেবে পরিচিত ছিল।


    তবে, আপনার সন্তানকে শুধুমাত্র টিকা দেওয়াই যথেষ্ট নয়। সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল, এই ভ্যাক্সিনেশান শিশুকে প্রদান করতে হবে বিশেষজ্ঞের নির্দেশ মতো সঠিক সময়সূচী মেনে। একটি ভ্যাক্সিনেশান কার্ড আপনাকে ঠিক এই কাজেই সাহায্য করবে। এর দ্বারা আপনি নিজের সন্তানের ভ্যাক্সিনেশান সময়সূচী ট্র্যাক করতে পারবেন, আপনার শিশুর চিকিৎসক দ্বারা প্রদত্ত ভ্যাক্সিনেশান কার্ডে ১৮ বছর বয়স পর্যন্ত আপনার সন্তানকে যে যে টিকা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে, সেই সবগুলির উল্লেখ থাকবে।

    আপনার শিশুর জন্য ভ্যাক্সিনেশান কার্ড কেন অবশ্য-প্রয়োজন তার কিছু কারণ নীচে বর্ণনা করা হল:

    ●    নিরাপদ ও কার্যকর ভ্যাক্সিনেশান সময়সূচী

    একটি ভ্যাক্সিনেশান কার্ডে শিশুর সমস্ত ভ্যাক্সিনেশান সময়সূচী নথিভুক্ত করা থাকে, যা বহু বৈজ্ঞানিক গবেষণার দ্বারা তৈরি করা হয়েছে। এই প্রতিটি টিকা আপনার সন্তানের বৃদ্ধির সময় অনুসারে প্রদান করা হয়। শিশুর নির্দিষ্ট বয়স এবং সময় অনুযায়ী তার শরীরে রোগ প্রতিরোধ তৈরির প্রয়োজন বুঝে এই রোগ প্রতিরোধী টিকাগুলির মাঝে উপযুক্ত সময়ের গ্যাপ বজায় রাখা হয়েছে। মেডিক্যাল বোর্ডের সুপারিশ করা এই ভ্যাক্সিনেশান সময়সূচী সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং আপনার নবজাতকের পক্ষে কার্যকরী।

    ●    আপনার সন্তানের মেডিক্যাল রেকর্ড হিসেবে কাজ করবে

    আপনার সন্তানের ভ্যাক্সিনেশান কার্ডে তার সমস্ত মেডিক্যাল হিস্ট্রি নথিভুক্ত করা থাকবে। এমনকী আপনি ক্লিনিক, শহর, বা রাজ্য পরিবর্তন করলেও, এই ভ্যাক্সিনেশান কার্ডের সাহায্যে আপনার সন্তানের ভ্যাক্সিনেশান নিয়ে একদম আপ-টু-ডেট থাকতে পারবেন। এর জন্য কোনও ইলেকট্রনিক ডেটা ট্রান্সফার করা এবং তারপরে সেগুলি একত্রিত করার জন্য অপেক্ষা করতে হবে না। সমস্ত রেকর্ড একদম আপনার হাতের কাছেই থাকবে!

    ●    অভিভাবক হিসেবে আপনার পক্ষে উপকারী

    ভ্যাক্সিনেশানের সমস্ত রেকর্ড থাকলে তা যে কোনও কর্তৃপক্ষ যেমন, ডে-কেয়ার প্রদানকারী, স্কুল, চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ, বা ইমিগ্রেশন অফিসারকে বুঝতে সাহায্য করবে যে, আপনার সন্তানের ভ্যাক্সিনেশান আপ-টু-ডেট করা আছে এবং তার আশপাশের অন্য শিশুদের পক্ষে সে নিরাপদ। তাছাড়াও, একটি ভ্যাক্সিনেশান কার্ড শিশুর ভ্যাক্সিনেশান সময়সূচী ট্র্যাক করার কাজে বাবা-মাকে সাহায্য করে।

    ●    যিনি ভ্যাক্সিনেশান প্রদান করবেন তার পক্ষে উপযোগী

    ভ্যাক্সিনেশান কার্ডে আপনার সন্তানের মেডিক্যাল হিস্ট্রির সমস্ত বিবরণ দেওয়া থাকবে। চিকিৎসকদের কাছে, এটি যে কোনও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানার উৎস হয়ে উঠতে পারে। ভ্যাক্সিনেশান কার্ড থেকে তাঁরা সহজেই বুঝতে পারবেন যে, শিশুকে কোন কোন টিকা ইতিমধ্যে প্রদান করা হয়েছে কিংবা আগের ডোজ থেকে শিশুর কোনও রকম অ্যালার্জিক রিয়্যাকশন হয়েছে কি না।

    সময় মতো ভ্যাক্সিনেশান প্রদান করার উপকারিতা এবং তার রেকর্ড রাখার গুরুত্ব সম্পর্কে বোঝানোর জন্য আমরা এখানে চেষ্টা করেছি। ভ্যাক্সিনেশান কার্ড-এর সাহায্যে আপনার সন্তানের ভ্যাক্সিনেশান সম্পর্কে ট্র্যাক রাখুন।

    ডিসক্লেমার: GlaxoSmithKline Pharmaceuticals Limited-এর তরফে এটি জন সচেতনতামূলক উদ্যোগ। ডঃ অ্যানি বেসান্ত রোড, ওয়ার্লি, মুম্বই ৪০০ ০৩০, ভারত। এই প্রতিবেদনে প্রদত্ত সমস্ত তথ্য শুধুমাত্র জন সচেতনতার জন্য এবং এর মাধ্যমে কোনও চিকিৎসা সংক্রান্ত পরামর্শ প্রদান করা হয়নি। কোনও প্রশ্ন বা আপনার পরিস্থিতি নিয়ে কোনও সংশয় থাকলে অনুগ্রহ করে চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করুন।টিকা দ্বারা প্রতিরোধযোগ্য রোগের সম্পূর্ণ তালিকা এবং প্রতিটি রোগের জন্য সম্পূর্ণ ভ্যাক্সিনেশান সময়সূচী পেতে অনুগ্রহ করে শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করুন। GSK প্রোডাক্ট ব্যবহার করে কোনও বিরূপ প্রতিক্রিয়া ঘটে থাকলে তা কোম্পানিকে জানান এখানে india.pharmacovigilance@gsk.com.

    NP-IN-MLV-OGM-200050, DOP Dec 2020

    এটি একটি পার্টনারড পোস্ট

    Published by:Elina Datta
    First published: