• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Immunity Booster Tea: সকালের চায়ের সঙ্গে ফুটিয়ে নিন এই ২ উপকরণ, করোনাকালে ইমিউনিটি বাড়বেই !

Immunity Booster Tea: সকালের চায়ের সঙ্গে ফুটিয়ে নিন এই ২ উপকরণ, করোনাকালে ইমিউনিটি বাড়বেই !

Immunity Booster Tea:  শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ঘরোয়া উপায়ে তৈরি করুন এই চা

Immunity Booster Tea: শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ঘরোয়া উপায়ে তৈরি করুন এই চা

Immunity Booster Tea: শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ঘরোয়া উপায়ে তৈরি করুন এই চা

  • Share this:

    Immunity Booster Tea: করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গ দেশে সুনামির মতো ছড়িয়ে পড়েছে। সমস্ত সতর্কতা অবলম্বন করে মানুষ ফের গৃহবন্দি। এই সময় প্রয়োজন স্বাস্থ্যকর খাদ্য ও শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ঘরোয়া উপায়ে তৈরি কিছু পানীয়। এই পরিস্থিতিতে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারলেই করোনা সংক্রমণের মোকাবিলায় অনেকটা সক্ষম হওয়া যাবে। কিছু সহজ পদ্ধতি অনুসরণের মাধ্যমে বাড়িতে বসেই তৈরি করা যাবে এমন কিছু পানীয়, যার উল্লেখ রইল এই প্রতিবেদনে। যা পারে মানুষের ইমিউন সিস্টেমকে আরও উন্নত করতে। এবং এই সব উপাদান বাঙালির রান্না ঘরে সহজেই পাওয়া যায়।

    যষ্টিমধুর চা: আয়ুর্বেদ চিকিৎসকদের মতে, শ্বাসনালী পরিষ্কার রাখতে বা হালকা সর্দি-কাশি হলে মুলেঠি অর্থাৎ যষ্টিমধু ব্যবহার করা যেতে পারে। বিভিন্ন রোগের চিকিৎসায় যষ্টিমধু ব্যবহারের ঐতিহ্য অনেক পুরনো। যষ্টিমধু অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি এবং অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল অর্থাৎ প্রদাহ সারাতে এবং ব্যাকটিরিয়া বা জীবাণুনাশ করতে সাহায্য করে। যষ্টিমধু চা খেলে ভাইরাসজনিত ঠান্ডা লাগা, জ্বরও ভাল হয়ে যায় । আবার রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতাকেও বাড়িয়ে তুলবে। কীভাবে বানাবেন যষ্টিমধুর চা- এক কাপ জলে এক চামচ শুকনো যষ্টিমধু মিশিয়ে, পাঁচ মিনিট ফুটিয়ে, ছেঁকে পান করুন।

    মশলা চা: এই ইমিউনিটি বুস্টারটির উপাদানগুলি বাঙালির রান্নাঘরে সহজেই পাওয়া যায়। যেমন আদা, দারচিনি, গোলমরিচ, লবঙ্গ, এলাচ, তুলসী পাতা ও মধুর সহযোগে পরিমাণ মত জলে ৩০ মিনিট ধরে ফোটাতে হবে। এই পানীয়ে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল এবং অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতাকে দ্বিগুণ করে তলে।

    লবঙ্গ চা:  নানা কারণে অনেক সময়ই আমাদের শরীরের অন্দরে প্রদাহ বা ইনফ্লেমেশন রেট এতটাই বেড়ে যায় যে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের উপর খারাপ প্রভাব পরে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই নানা রোগ মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে। আর এমনটা কিন্তু যে কারও সঙ্গে হতে পারে। কিন্তু যদি চান আপনার সঙ্গে না ঘটুক, তাহলে নিয়মিত লবঙ্গ চা খেতে ভুলবেন না। কারণ এমনটা করলে শরীরে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে প্রদাহের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার আর কোনও আশঙ্কাই থাকে না। কীভাবে বানাবেন - প্রথমে পরিমাণ মতো লবঙ্গ নিয়ে বেঁটে নিন। তারপর সেই লবঙ্গের গুঁড়ো এক কাপ জলে মিশিয়ে কম করে ৫-১০ মিনিট ফোটাতে হবে। যখন দেখবেন জল ফুটতে শুরু করেছে, তখন তাতে হাফ চামচ চা পাতা দিন। আর কিছু সময় অপেক্ষা করে চা ছেঁকে নিলেই হয়ে গেল লবঙ্গ চা ।

    খুসখুসে কাশি হলে আদা ও লবঙ্গ একসঙ্গে পিষে সেটাকে গরম পানিতে সিদ্ধ করে তার সঙ্গে কিছুটা চা দিয়ে সেটা এক কাপ মতো নিয়ে গারগল করে খান দিনে অন্তত তিন-চারবার। এতে গলার ভেতরের কোষগুলোয় রক্ত সঞ্চালন বাড়বে। কোষগুলো শক্তিশালী হবে এবং সমর্থ হবে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করতে।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: