• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • দায়ী অবহেলা, ভারতীয় মহিলাদের মধ্যে বাড়ছে ক্যানসার

দায়ী অবহেলা, ভারতীয় মহিলাদের মধ্যে বাড়ছে ক্যানসার

ক্যানসারের চিকিত্সার ন্যূনতম খরচই ভারতের ৮০-৮৫ শতাংশ পরিবারের বার্ষিক আয়ের থেকে বেশি ।

ক্যানসারের চিকিত্সার ন্যূনতম খরচই ভারতের ৮০-৮৫ শতাংশ পরিবারের বার্ষিক আয়ের থেকে বেশি ।

ক্যানসারের চিকিত্সার ন্যূনতম খরচই ভারতের ৮০-৮৫ শতাংশ পরিবারের বার্ষিক আয়ের থেকে বেশি ।

  • Share this:

    #কলকাতা: সম্প্রতি সোনালি বেন্দ্রের ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার খবরে অবাক হয়েছে দেশবাসী । শুধু সোনালি নন, ভারতে মহিলাদের মধ্যে উত্তরোত্তর বাড়ছে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা । অধিকাংশ ক্ষেত্রেই যা ধরা পড়ে সোনালির মতোই চতুর্থ পর্যায়ে বা শেষের দিকে । ফলে বাঁচার সম্ভাবনা এসে দাঁড়ায় তলানিতে ।

    ২০১৭ সালে প্রকাশিত ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ ক্যানসার প্রিভেনশন অ্যান্ড রিসার্চ-এর রিপোর্ট বলছে, ভারতে প্রতি আট মিনিটে একজন মহিলার মৃত্যু হয় সার্ভিক্যাল ক্যানসারে । প্রতি ২০০০ জন ক্যানসার আক্রান্ত মহিলার মধ্যে ১,২০০ জনেরই এই রোগ ধরা পড়ে ক্রিটিতাল স্টেজে । যা ব্রেস্ট ও সার্ভিক্যাল ক্যানসারের ক্ষেত্রে সেরে ওঠার সম্ভাবনা ৩-১৭ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে দেয় । যে কারণে ভারতে ব্রেস্ট ক্যানসারে আক্রান্ত মহিলাদের মধ্যে ক্যানসারকে হারিয়ে ফিরে আসার হার মাত্র ৫০ শতাংশ ।

    জরায়ুর ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন মনীষা কৈরালাও জরায়ুর ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন মনীষা কৈরালাও

    ইওয়াই-এফআইসিসিআই প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ক্যানসার আক্রান্তের সংখ্যায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও চিনের পরেই তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত । ওভারিয়ার ক্যানসারের ক্ষেত্রে ভারত রয়েছে প্রথম স্থানে । এই মুহূর্তে ভারতের ৭ লক্ষ মহিলা ক্যানসারে আক্রান্ত । কিন্তু ভারতীয় মহিলারা একদিকে নিজেদের স্বাস্থ্যের প্রতি উদাসীন, অন্যদিকে তারা মনে করেন নিজেদের কর্মফলেই তারা ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন । ইন্ডিয়ান ক্যানসার সোসাইটির সহ সভাপতি জোত্স্না গোভিল জানান, ঠিকঠাক খাওয়া দাওয়া না করা, তামাক সেবন যেমন ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলছে, তেমনই নিয়মিত চেকআপ ও প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করার অনীহাও আরও কঠিন করে তুলছে চিকিত্সা ।

    আরও পড়ুন: অসুখ-বিসুখ থেকে দূরে থাকতে বাড়িতে রাখুন এই গাছগুলো

    মহিলাদের মধ্যে ব্রেস্ট ও সার্ভিক্যাল ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি দেখা যায় । যার মূল কারণ সচেতনতার অভাব । মূলত ৫০-৬০ বছর বয়সের মধ্যেই এই রোগ ধরা পড়লেও কিছু ক্ষেত্রে ২৬-২৭ বছরের মহিলাদেরও ক্যানসার ধরা পড়ছে । গড়ে প্রায় প্রতিদিনই অন্তত ২জন ক্যানসারে আক্রান্ত হচ্ছেন বলে জানাচ্ছেন চিকিত্সকরা ।

    সোনালি ও মনীষার মতোই ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন লিজা রে । সোনালি ও মনীষার মতোই ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন লিজা রে ।

    এর সঙ্গেই বড় সমস্যা খরচ । ক্যানসারের চিকিত্সার ন্যূনতম খরচই ভারতের ৮০-৮৫ শতাংশ পরিবারের বার্ষিক আয়ের থেকে বেশি । আবার সামর্থ থাকলেও গ্রামীণ এলাকায় পর্যাপ্ত উপযুক্ত চিকিত্সা ও পর্যাপ্ত চিকিত্সকের অভাবের কারণে অধিকাংশ পরিবারের পক্ষেই তা সম্ভব হয়ে উঠছে না । দেশের ৪০-৬০ শতাংশ ক্যানসার ৭-৮টি বড় শহরেই সীমাবদ্ধ । ফলে ভারতে এই মুহূর্তে প্রতি ১৬০০ জন ক্যানসার আক্রান্ত পিছু চিকিত্সকের সংখ্যা ১ জন । মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনে যেখানে প্রতি ১০০-৪০০ জন রোগীপিছু একজন চিকিত্সক রয়েছেন ।

    First published: