• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • সর্দি-কাশি? বুকে কফ জমেছে? রইল কয়েকটি ঘরোয়া টিপস ! উপকার মিলবে নিমেষে

সর্দি-কাশি? বুকে কফ জমেছে? রইল কয়েকটি ঘরোয়া টিপস ! উপকার মিলবে নিমেষে

representative image

representative image

সর্দি-কাশি? বুকে কফ জমেছে? রইল কয়েকটি ঘরোয়া টিপস ! উপকার মিলবে নিমেষে

  • Share this:

    এই প্যাঁচপেচে গরম তো এই ঝমঝম বৃষ্টি! এই এসি, ফ্যান ফুলস্পিডে, তো এই সব বন্ধ! ঋতু পরিবর্তনের ফলে আমাদের শরীরের দফরফা অবস্থা! আর এই সময়ে সব থেকে বেশি ভোগায় সর্দি-কাশি! প্রথমদিকে আমরা খুব একটা পাত্তা দিইনা ঠিকই, কাফ সিরাপ খেয়েই কাজ চালিয়ে নিই! ইন্তু অবহেলার ফলে সামান্য সর্দি কাশিই হতে পারে মারাত্মক! বুকে কফ জমে শ্বাসযন্ত্র আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কাজেই অবহেলা করবেন না! অল্পতেই তৎপর হন! তবে, প্রথমেই ডাক্তারের কাছে গিয়ে গাদা গাদা অ্যান্টিবায়োটিক না খেয়ে বরং ঘরোয়া উপায়ে এর মোকাবিলা করুন-

    ১। হালকা গরম জলে নুন মিশিয়ে গার্গেল করুন। বুকে জমে থাকা কফ বেরিয়ে আসবে। এক টুকরো আদা মুখে চাবাতে পারেন। আদার রস বুকের জমা কফ পরিষ্কার করে।

    ২) এক বাটি জলে, ১ টেবিল চামচ আদা কুচি মিশিয়ে, ঢাকনা এঁটে ৫ মিনিট মতো জ্বাল দিন। অল্প মধু মেশান। দিনে তিনবার এই মিশ্রণটা খান। উপকার পাবেন! এছাড়া, দুধ অথবা মধুর সঙ্গে এক চা চামচ আদা কুচি, গোল মরিচের গুঁড়ো এবং লবঙ্গের গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটাও দিনে তিনবার খান। চাইলে

    ৩) সম পরিমাণে পেঁয়াজের রস, লেবুর রস, মধু এবং জল একসাঙ্গে মিশিয়ে জ্বাল দিন। কিছুটা গরম হলে নামিয়ে ফেলুন। হালকা গরম এই জল দিনে তিন থেকে চারবার খান। আরাম পাবেন। কাঁচা পেঁয়াজ চিবিয়েও খেতে পারেন। বমির মাধ্যমে কফ বেরিয়ে আসবে। লেবুর জলে এক চামচ মধু মিশিয়ে খেলে শ্বাসযন্ত্রে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ কমে, বুক থেকে কফ দূর করে, গলা পরিষ্কার রাখে।

    ৪)হলুদে রয়েছে এক জাতীয় কেমিক্যাল, নাম কারকুমিন। এটি বুক থেকে কফ, শ্লেষ্মা দূর করে, বুকের ব্যথা কমায়। এর অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান গলা ব্যথা কমায়। এক গ্লাস হালকা গরম জলে সমান্য হলুদের গুঁড়ো মিশিয়ে, প্রতিদিন কুলকুচি করুন। উপকার পাবেন। এছাড়া এক গ্লাস দুধে আধ চা চামচ হলুদের গুঁড়ো মিশিয়ে ফোটাতে থাকুন। ২ চা চামচ মধু এবং সামান্য গোল মরিচের গুঁড়ো মেশান। মিশ্রণটা বেশ গাঢ় হবে। দিনে দু থেকে তিনবার খেলে বুকের কফ গায়েব!

    ৫) ফুটন্ত জলে মেন্থল বা কারভল মেশান। এবার মাথায় টাওয়েল চাপা দিয়ে, বড় করে দম নিয়ে, গরম জলের ভাপ নিন। এভাবে অন্তত ১০ মিনিট করে দিনে ২ বার করুন। গরম জলের ভাপ নিলে বুকে কফ জমতে পারে না এবং জমলেও, সহজেই বের হয়ে আসে।

    ৬) এক কাপ হালকা গরম জলে ২ চা চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার ও এক চা চামচ মধু মেশান। এই পানীয়টি দিনে ২-৩বার খান। নিয়মিত এক সপ্তাহ খেলে দেখবেন, জমা কফের সমস্যা একদম কমে গিয়েছে! কফের সমস্যায় বেশি করে তরল খাবার খেলে উপকার মেলে। সারাদিন প্রচুর পরিমাণে জল ও বিভিন্ন রকমের জুস খান। মুরগি ও সবজির স্যুপ, তুলসি পাতার চা খেলে আরাম পাবেন। এছাড়হলুদ গুড়া, আদা চূর্ণ এক চা চামচ গরম দুধের সাথে মিশিয়ে খেলে কফ নিরাময় হয়।

    First published: