লাইফস্টাইল

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

অবসাদ থেকে বন্ধ্যাত্ব! শরীরের ১১টি অসুখ রুখে দিতে পারে একটি আখরোট

অবসাদ থেকে বন্ধ্যাত্ব! শরীরের ১১টি অসুখ রুখে দিতে পারে একটি আখরোট

আখরোটে থাকা উদ্ভিজ ওমেগা-৩ এএলএ প্রোটিনও অন্যান্য যে কোনও বাদামের তুলনায় ৫ গুণ বেশি থাকে।

  • Share this:

#কলকাতা: ছোটবেলায় সকাল হলেই মায়েরা হাতের মুঠোয় দিয়ে দিতেন গোটা কয়েক আখরোট। তখন আখরোটের গুরুত্ব নিয়ে কিছুই জানতাম না আমরা। দিব্যি মুখে পুরে দিতাম। আজকাল আখরোটের গুরুত্ব নিয়ে নানা তথ্য দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞরা। আমাদের সার্বিক ভালো থাকার জন্য আখরোট খুবই প্রয়োজনীয় একটি উপাদান।

এক আউন্স আখরোটে ৪ গ্রাম প্রোটিন, ২ গ্রাম ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, জিঙ্ক, সেলেনিয়াম, ভিটামিন বি, প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই এবং ফ্যাট থাকে। আখরোটে থাকা উদ্ভিজ ওমেগা-৩ এএলএ প্রোটিনও অন্যান্য যে কোনও বাদামের তুলনায় ৫ গুণ বেশি থাকে।

দেখে নেওয়া যাক আখরোট আমাদের শরীরে কী কী কাজে লাগে?

১. আখরোট অবসাদ বা ডিপ্রেশন দূর করে।

২. বয়স্ক মানুষের ক্ষেত্রে ভুলে যাওয়ার প্রবণতা তৈরি হলে বা অ্যালজাইমার্স ডিজিজের সঙ্গে লড়তে চাইলে ওষুধপত্রের সঙ্গে পাতে রাখুন আখরোট। এই ফল স্মৃতিশক্তি বাড়াতে বিশেষ কার্যকরী।

৩. এতে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে, যা মস্তিস্কের কার্যক্ষমতা বাড়ায় এবং অবসাদের লক্ষণ কমায়।

৪. প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে এতে। এ ছাড়া থাকে ভিটামিন ই, এলাজিক অ্যাসিড, মেলাটোনিন, ক্যারোটিনয়েডস। ত্বকের বলিরেখা কমাতে এবং বয়সের ছাপ দূর করতে প্রতি দিন খান আখরোট।

৫. হজমশক্তি, বিপাকক্ষমতা বাড়ায়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ায়। শরীরের পক্ষে ভালো- এমন ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিতে সাহায্য করে ওয়ালনাট বা আখরোট।

৬. প্রদাহ দূর করে রক্তকণিকার কার্যকারিতা ঠিক রাখে। এটি হার্টের পক্ষেও ভালো। আখরোটের মধ্যে থাকা ভিটামিন ই হার্টের যত্ন নেয়।

৭. ‘বায়োলজি অব রিপ্রোডাকশন’-এর জার্নালে প্রকাশিত গবেষণাপত্রের দাবি, প্রতি দিন যদি অন্তত ৭৫ গ্রাম করে আখরোট খাওয়া যায়, তবে পুরুষদের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা কমে। কারণ আখরোট বাড়িয়ে দেবে স্পার্ম কাউন্ট বা শুক্রাণুর সংখ্যা।

৮. ওমেগা ৩ কোলেস্টেরলের মাত্রা ঠিক রাখতে সাহায্য করে। ধমনীর মধ্যে রক্ত সংবহনের মাত্রাকে উন্নত করে।

৯. ওজন কমানোর ক্ষেত্রে ডায়েটে আখরোট যোগ করা খুব কার্যকর। আখরোট খেলে ঘনঘন খিদে পাওয়া বন্ধ হয়। এটি সামান্য রোস্ট করে স্যালাডের সঙ্গেও খাওয়া যায়। ম্যাঙ্গো স্মুদি, বানানা স্মুদির সঙ্গে মিশিয়েও খাওয়া যায়। কাঁচা খেলেও পুষ্টিগুণ অটুট থাকে।

১০. আখরোটে মেলাটোনিন নামে একটি উপাদান থাকে যা অনিদ্রার সমস্যাকে দূরে রাখতে বিশেষ ভাবে সাহায্য করে। তাই রাতে যাঁদের ভাল ঘুম হয় না, তাঁরা খাদ্যতালিকায় আখরোট রাখলে সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

১১. চিকিৎসকরা বলেন যে, যে কোনও ধরনের বাদামই ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। স্বাভাবিক ভাবেই আখরোটও ব্যতিক্রম নয়।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: September 26, 2020, 11:28 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर