corona virus btn
corona virus btn
Loading

জেনে নিন, ঠিক কতখানি জল খাওয়া উচিত! বেশি জল খেলে প্রাণও যেতে পারে

জেনে নিন, ঠিক কতখানি জল খাওয়া উচিত! বেশি জল খেলে প্রাণও যেতে পারে
representative image

জলই জীবন। জল খাওয়ার হাজারটা ভাল দিক রয়েছে, কিন্তু তাই বলে মাত্রাতিরিক্ত জল খাবেন না! এতে হিতে বিপরীত হবে। আমাদের কিডনি ঘন্টায় .৮-১ লিটারের বেশি জল ফিল্টার করে শরীর থেকে বের করতে পারে না। কাজেই ঘন্টায় ১ লিটারের বেশি জল খেলে, কিডনির উপর চাপ পড়ে, দেখা দেয় একের পর এক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার।

  • Share this:
#কলকাতা: জলই জীবন। জল খাওয়ার হাজারটা ভাল দিক রয়েছে, কিন্তু তাই বলে মাত্রাতিরিক্ত জল খাবেন না! এতে হিতে বিপরীত হবে। আমাদের কিডনি ঘন্টায় .৮-১ লিটারের বেশি জল ফিল্টার করে শরীর থেকে বের করতে পারে না। কাজেই ঘন্টায় ১ লিটারের বেশি জল খেলে, কিডনির উপর চাপ পড়ে, দেখা দেয় একের পর এক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার। যেমন- ১) রক্তে সোডিয়াম-এর মাত্রা কমে যায়। ডাক্তারি ভাষায় বলে- 'হাইপোন্যাটরেমিয়া'।
২) আমাদের শরীরে সোডিয়াম ও পটাশিয়ম আয়ন ইলেক্ট্রোলাইট হিসেবে কাজ করে, কোষ ও রক্তের মধ্যে তরলের ভারসাম্য বজায় রাখে। কিন্তু, রক্তে যখন বেশি মাত্রায় জল এবং কোষে বেশি নুন আর আয়ন থাকে, তখন অতিরিক্ত পরিমাণে জল কোষের ভিতর ঢুকে যায়। ফলে কোষ ফুলে ওঠে। নার্ভ সেল-এর ক্ষেত্রে এমনটি ঘটলের মারাত্মক! হতে পারে নানা প্রাণঘাতি অসুখ, এমনকী কোমা-ও! আরও পড়ুন-সাবধান, এই সমস্ত খাবার থেকে হতে পারে ক্যানসার! ৩) রক্তে সোডিয়ামের মাত্রা কমে যায়। ডাক্তারি ভাষায় বলে, হাইপোক্যালামিয়া। বমিবমি ভাব, ডাইরিয়া এমনকী প্যারালিসিস পর্যন্ত হতে পারে। ৪) বেশি জল খেলে শরীরের ইলিকট্রোলাইট-এর মাত্রা কমে যায়। ফলে, পেশিতে খিঁচ ধরে। ৫) অতিরিক্ত জল খেলে কিডনির খাটনি বেড়ে যায়, কিডনি ক্লান্ত হয়ে পড়ে। দেখা দেয় নানা কিডনির সমস্যার। ৬) শরীরে যে পরিমাণ জল ঢোকে, তার ৮০ শতাংশ আসমোসিস প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যায় স্মল ইনটেস্টাইন বা ক্ষুদ্রান্তে। বাকি জল রক্তে মিশে যায়। এবার বেশি জল খেলে রক্তে জলের পরিমাণ বেড়ে যায়, ফলে রক্তের পরিমাণও বৃদ্ধি পায়। আর অতিরক্ত রক্ত শোধন করতে গিয়ে হার্ট অসুস্থ হয়ে পড়ে। আরও পড়ুন-দুধ ফুটিয়ে খাওয়া ভালো নাকি না ফুটিয়ে? জেনে নিন
First published: April 9, 2018, 11:19 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर