লাইফস্টাইল

  • Associate Partner
  • diwali-2020
  • diwali-2020
  • diwali-2020
corona virus btn
corona virus btn
Loading

মেনে চলুন এই সামান্য কয়েকটা নিয়ম, উৎসবের মরশুমে নিয়ন্ত্রণে থাকবে আপনার ডায়াবেটিস...

মেনে চলুন এই সামান্য কয়েকটা নিয়ম, উৎসবের মরশুমে নিয়ন্ত্রণে থাকবে আপনার ডায়াবেটিস...
সংগৃহীত ছবি

দুর্গাপুজো শেষ হয়েছে। সামনেই আসছে কালীপুজো ও দীপাবলী। এই সময়টায় খাওয়া-দাওয়ায় কিন্তু বেশ অনিয়ম হয়। ঠাণ্ডা পানীয়, মিষ্টি, তেলেভাজা সমস্ত কিছুই খেয়ে ফেলি আমরা। কিন্তু যাঁরা ডায়াবেটিসে ভুগছেন আগে থেকেই সতর্ক হন।

  • Share this:

#কলকাতা: দুর্গাপুজো শেষ হয়েছে। সামনেই আসছে কালীপুজো ও দীপাবলী। এই সময়টায় খাওয়া-দাওয়ায় কিন্তু বেশ অনিয়ম হয়। ঠাণ্ডা পানীয়, মিষ্টি, তেলেভাজা সমস্ত কিছুই খেয়ে ফেলি আমরা। কিন্তু যাঁরা ডায়াবেটিসে ভুগছেন আগে থেকেই সতর্ক হন। কারণ আনন্দের ভিড়ে এই অনিয়মিত খাদ্যাভাস কিন্তু বিপদ ডেকে আনতে পারে। তাই একটু সাবধানে থাকতে হবে আপনাকে।

এ বিষয়ে BeatO-র একটি সমীক্ষা বলছে, এই ধরনের উৎসবে বিশেষ করে দীপাবলীর সময়টায় ডায়াবেটিস রোগীদের ব্লাড সুগারের মাত্রা বেড়ে যায়। এ ক্ষেত্রে যাঁদের ব্লাড সুগার ২৫০ mg/dL-এর বেশি হয়, তাঁদের ক্ষেত্রে প্রায় ১৫ শতাংশ বেড়ে যায় সুগারের মাত্রা আর যাঁদের ব্লাড সুগার ৩০০ mg/dL-এর বেশি হয়, তাঁদের ক্ষেত্রে প্রায় ১৮ শতাংশ বেড়ে যায় সুগারের পরিমাণ। উল্লেখযোগ্য ভাবে ১৪ নভেম্বর তারিখেই, মানে কালীপুজোর দিন এ বার ওয়ার্ল্ড ডায়াবেটিস ডে উদযাপন করা হবে। তাই নিজেকে সুস্থ রাখতে এ বারের উৎসবে কয়েকটি সামান্য বিষয় মেনে চলুন:

*পুরো একটি দিনে মোট তিনবার ভরপেট খাওয়ার এই রুটিনে একটু পরিবর্তন আনুন। তিনবারের বদলে দিনে ৪-৫ বার খান। বার বার খান। কিন্তু অল্প পরিমাণে খাবার খান। এর জেরে আপনার ব্লাড সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। খাবার হজমও হয়ে যাবে।  

*স্ন্যাকসের ক্ষেত্রেও সচেতন হন। ফ্রুট স্যালাড খান। অল্প মিষ্টি খান। সুগার ফ্রি হলে ভালো। তাই তাড়াহুড়ো করে খাবার না খেয়ে দেখে-শুনে খান।

*সুগার-ফ্রি খাবার খান। মিল্ক চকোলেটের বদলে ভাল কোনও ডার্ক চকোলেট খান। কোল্ড ড্রিংকস বা এই জাতীয় পানীয়র বদলে জল, অল্প লেবুর জুস, প্রয়োজনে অল্প-বিস্তর ডাবের জলও খেতে পারেন।

*হোয়াইট রাইস সবাই প্রায়ই খেয়ে থাকেন। কিন্তু মাথায় রাখবেন এটি উচ্চ গ্লাইসেমিক ইনডেক্স সম্পন্ন। এটি আপনার ব্লাড সুগারের মাত্রাও বাড়িয়ে দেয়। তাই ব্রাউন রাইস বা অন্যান্য খাদ্যশস্য খান, এটি আপনার সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখবে।

*বেকারি ফুডস অর্থাৎ কেক, নানা ধরনের বিস্কুট বা এই জাতীয় খাবার এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। এর পাশাপাশি তেলে কড়া করে ভাজা খাবার অর্থাৎ সিঙাড়া, চপ বা অন্যান্য তেলেভাজা থেকেও দূরে থাকুন।  

*এই সময়টায় পার্টি, আড্ডা বেশ জমে ওঠে। আর ধূমপান-মদ্যপানের মাত্রাও বেড়ে যায়। কিন্তু আপনি যদি ডায়াবেটিসে ভোগেন, তা হলে মদ্যপান এড়িয়ে চলুন। মনে রাখবেন অ্যালকোহলেও প্রচুর পরিমাণে সুগার রয়েছে। তাই আপনার ব্লাড সুগার বাড়তে পারে।

উৎসবের মরশুমে আনন্দে যোগ দিতে কোনও রকম কার্পণ্য করবেন না। তবে হ্যাঁ, সাবধানে থাকুন। যদি আপনার ডায়াবেটিস থাকে, তা হলে এই সামান্য কয়েকটি বিষয় মেনে চলুন। মাথায় রাখবেন শরীর সুস্থ থাকলে তবেই না পরিবারের সঙ্গে কাটাতে পারবেন উৎসবের মুহূর্তগুলো!

Published by: Shubhagata Dey
First published: November 9, 2020, 2:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर