corona virus btn
corona virus btn
Loading

সাবধান, এই সমস্ত খাবার থেকে হতে পারে ক্যানসার!

সাবধান, এই সমস্ত খাবার থেকে হতে পারে ক্যানসার!
ভুট্টার দানা থেকে তৈরি নিরীহ এই স্ন্যাকসটি কিভাবে এত ভয়ঙ্কর হতে পারে? গবেষণাপত্রে সেকথাও বলা হয়েছে ৷ আসলে বিপদ লুকিয়ে এর বানানোর পদ্ধতিতে ৷ দোকানগুলিতে যে পপকর্ন পরিবেশন করা হয় তা আসলে সরাসরি খেতের ভুট্টা থেকে সংগৃহীত নয় ৷ বহুদিন আগে ভুট্টা থেকে কচি দানা ছাড়িয়ে তা সংরক্ষণের জন্য তেলের মধ্যে কেমিক্যাল মিশিয়ে প্যাকেট বা টিনে সিল করে দেওয়া হয় ৷ সেই সিল করা টিন খুলে মাইক্রোওয়েভ বা মেশিনে বানানো হয় পপকর্ন ৷Representative Image
  • Share this:

#কলকাতা: স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন হতে কে না চায় বলুন তো ? কিন্তু অনেক সময়ই দেখা যায়, অভ্যাসের জন্য ইচ্ছে থাকলেও সচেতন হয়ে ওঠা হয় না ৷ আর এর জেরে বিপদ বাড়তেই থাকে ৷ অনেক সময় খাবার থেকেও হতে পারে মারাত্মক বিপদ ৷ জানেম কি ক্যানসারের মতো মারণ রোগও শরীরে বাসা বাঁধতে পারে ৷ একটি গবেষণায় প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী কিছু খাবার খাওয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন ৷ আর এই খাবারগুলোই অজান্তেই ডেকে আনতে পারে ক্যানসার ৷ জেনে নিন সেই খাবার কোনগুলো-

ডায়েট ফুড: ঘরে তৈরি খাবারের বদলে বেশির ভাগ মানুষেরই খাদ্য তালিকায় জায়গা করে নিচ্ছে বাজার চলতি নানা রকম ডায়েট ফুড। যার মধ্যে রয়েছে প্যাকেটজাত খাবার এবং ডায়েট কোকের মতো নরম পানীয়। এসব খাবারে ওজন কমে ঠিকই, তবে ক্যানসারের সম্ভাবনা বাড়তে পারে বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

মাইক্রোওয়েভ পপকর্ন : বাজারে চলতি মুখরোচক পপকর্নের প্যাকেট কিনে মাইক্রোওয়েভে ঢুকিয়ে টিভি দেখতে পছন্দ করেন অনেকেই। পরে খাওয়া। কিন্তু, ওই প্যাকেটের মধ্যে রয়েছে এমন রাসায়নিক যা বেকড হওয়ার সময় পপকর্নের সাথে মিশে ফুসফুস ক্যানসারের সম্ভাবনা বাড়ায়!

ক্যানড ফুড: বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, যে কোনো ক্যানড বা প্রসেসড ফুডে রয়েছে বিসফেনল-এ (বিপিএ)। এই রাসায়নিক ক্যানসারের মতো মরণ রোগের সম্ভাবনা বহু গুণ বাড়িয়ে দেয়।

পরিশোধিত চিনি: পরিশোধিত চিনির ঝুঁকিও বিস্তর। এই চিনি স্থূলতার জন্য দায়ী। যুক্তরাজ্যে ৬০ শতাংশেরও বেশি মানুষ স্থূলতা বা অতিরিক্ত ওজন সমস্যায় ভুগছে। পরিশোধিত চিনি নানা ধরনের স্বাস্থ্যগত সমস্যা ছাড়াও ক্যানসার সেলের জন্ম দেয় শরীরে। নিরাপদ নয় ব্রাউন সুগারও। পরিবর্তে মধু, কোকোনাট সুগার বা ম্যাপল সুগার ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

ফ্রায়েড স্ন্যাকস: ক্যানসার নয়, কোলেস্টেরলের সমস্যা এড়াতেও গুড বাই জানান ফ্রায়েড স্ন্যাকসকে। কুড়মুড়ে, মুখরোচক ভাজাভুজি থেকে বিরত থাকারই পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞেরা।

কার্বোনেটেড পানীয়: যে কোনো সফট ড্রিঙ্কস বা প্যাকেটজাত পানীয়ে রয়েছে কর্ন সিরাপ এবং রাসায়নিক। ক্যানসারের ঝুঁকি এড়াতে বহুদিন আগেই সফট ড্রিঙ্কসে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন চিকিৎসকেরা।

ঝালমুড়ি: ঝালমুড়ি খাওয়া থেকে নিজেকে বিরত রাখুন। চিকিৎসকেরা জানালেন, দোষটা আদতে ঝালমুড়ির নয়, গোটা সমস্যাটা করছে মূলত ঝালমুড়ির ঠোঙা। খবরের কাগজে খবর ছাপানোর জন্য এক বিশেষ কেমিকেলে মিশ্রিত কালি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। যা কিনা খাবারের সাথে মিশে যায়। এই কেমিকেলে থেকে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি ৷

অ্যালকোহল: অতিমাত্রায় মদ্যপানের কারণে ত্বকের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। মদ্যপায়ীরা সূর্যের আলোর কাছাকাছি গেলে এবং সানস্ক্রিন লোশনের মতো কিছু ব্যবহার না করলে কয়েকগুণ বেশি মাত্রায় অতিবেগুনি রশ্মির ক্ষতির শিকার হয়। অ্যালকোহলের মাত্রা বেশি হলে ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ে।

First published: September 11, 2018, 1:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर