শীতে লাইফস্টাইলে পরিবর্তনের ফলে বাড়তে পারে ডায়াবেটিস, খুব সহজ কয়েকটি টিপস মেনে চললে নিয়ন্ত্রণে থাকতে পারে ব্লাড সুগার!

শীতে লাইফস্টাইলে পরিবর্তনের ফলে বাড়তে পারে ডায়াবেটিস, খুব সহজ কয়েকটি টিপস মেনে চললে নিয়ন্ত্রণে থাকতে পারে ব্লাড সুগার!

ডায়াবেটিস এখন প্রায় প্রত্যেকটি ঘরে ঘরে। এই রোগে শরীরে একাধিক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে ক্ষতি হয়। ফলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ অর্থাৎ ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ অত্যন্ত প্রয়োজন।

ডায়াবেটিস এখন প্রায় প্রত্যেকটি ঘরে ঘরে। এই রোগে শরীরে একাধিক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে ক্ষতি হয়। ফলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ অর্থাৎ ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ অত্যন্ত প্রয়োজন।

  • Share this:

ডায়াবেটিস এখন প্রায় প্রত্যেকটি ঘরে ঘরে। এই রোগে শরীরে একাধিক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে ক্ষতি হয়। ফলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ অর্থাৎ ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ অত্যন্ত প্রয়োজন। শীতকালে এমনিতে ব্যায়াম বা পরিশ্রম কম হয় বেশিরভাগ মানুষের, ফলে ব্লাড সুগার বেড়ে যাওয়ার প্রবণতা থেকে যায়। শীতে বিয়েবাড়ি, পিঠে-পুলি, পিকনিক বা বিভিন্ন উৎসব থাকার ফলে খাওয়া-দাওয়ায় নিয়ন্ত্রণও কম থাকে। ফলে ব্লাড সুগার বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এই সময় তাই ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করতে খুব সহজ কয়েকটি টিপস মেনে চলা যেতে পারে।

১) হেলদি স্ন্যাক্স ডায়েটে অ্যাড করা

হট চকোলেট, চিক্কি বা বিভিন্ন মিষ্টি এই সময়ে খেতে ইচ্ছে করে। কিন্তু মাঝে মাঝেই এই ধরনের খাবার খেলে ব্লাড সুগারের মাত্রা বেড়ে যেতে পারে। ফলে রোজ এগুলো না খেয়ে স্ন্যাক্সে অ্যাড করা যেতে পারে ফক্স নাটস, শীতের বিভিন্ন ফল বা স্যালাড। খাওয়া যেতে পারে সিদ্ধ ডিম বা বিভিন্ন সবজিও।

২) ব্যায়াম বা শরীরচর্চা বন্ধ করা যাবে না

যতোই ব্যস্ততায় সময় কাটুক, প্রতি দিন নিয়ম করে এক্সারসাইজ করে যেতে হবে। এতে ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে থাকতে পারে। পাশাপাশি হঠাৎ ব্যায়াম বা শরীরচর্চা বন্ধ করলে তা সুগার লেভেলেও পরিবর্তন ঘটাতে পারে। তাই নিয়মিত যোগ অভ্যাস বা ব্যায়াম করা অত্যন্ত জরুরি।

৩) স্ট্রেস ম্যানেজ করতে হবে

ওয়ার্ক ফ্রম হোম চালু হওয়ার ফলে কাজের চাপ অনেক বেড়েছে। অনেকেই বলছেন, এতে মানসিক চাপও বেড়েছে। এই মানসিক চাপের সঙ্গে ব্লাড সুগারের যোগসূত্র রয়েছে। মানসিক চাপ বাড়লে ব্লাড সুগারও বেড়ে যেতে পারে। ফলে স্ট্রেস, মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। দরকার পড়লে স্ট্রেস ম্যানেজমেন্টের বিভিন্ন ভিডিও দেখা যেতে পারে।

৪) ব্লাড সুগার পরীক্ষা করে নিতে হবে

ব্লাড সুগারে কী রকম পরিবর্তন আসছে, কতটা ওঠানামা করছে, তা দেখার জন্য নিয়মিত ব্লাড সুগার লেভেল পরীক্ষা করে দেখা উচিৎ। চিকিৎসকরা বলছেন, যদি হঠাৎ কমে যায় সুগার বা বেড়ে যায়, তাতে পরীক্ষা করলে বোঝা যাবে। যদি পরীক্ষা অনেক গ্যাপ দিয়ে করা হয়, তা হলে সমস্যা হতে পারে।

৫) শীতে ঠাণ্ডা লাগানো যাবে না

ডায়াবেটিসের ফলে পায়ের পাতার অনেক সমস্যা হতে পারে। এই সমস্যা শীতকালে অনেক বেশি হয়। ফলে পায়ের বাড়তি যত্ন নিতে হবে। পাশাপাশি ঠাণ্ডা লাগানো যাবে না। এর জন্য গরম জামা পড়লে, কান ঢাকা দিয়ে রাখলে ভালো হয়।

Published by:Piya Banerjee
First published: