Home /News /life-style /
সঙ্গমে পর্নোগ্রাফি অনুসরণের আগে সাবধান! সেখানে লুকিয়ে যাওয়া হয় ৫ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, বলছেন বিশেষজ্ঞ!

সঙ্গমে পর্নোগ্রাফি অনুসরণের আগে সাবধান! সেখানে লুকিয়ে যাওয়া হয় ৫ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, বলছেন বিশেষজ্ঞ!

খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন এই তিন হরমোনের ক্ষরণ বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়, যেমন মশলাদার খাবারে শরীরে এনডরফিনের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। আবার দই, বিনস, ডিম, মাংস, কফি, আমন্ড ডোপামিনের ক্ষরণ বাড়ায়। ফলে এই দিক মাথায় রেখে ডায়েটে কিছু বদল আনতে পারলে ভালো হয়। ভালো খাবার কিন্তু এক লহমায় মন ভালো করার ক্ষমতা ধরে, সেই দিক থেকে তা হাসিখুশি থাকার আবহ তৈরি করতে অমোঘ ভূমিকা নেয়।

খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন এই তিন হরমোনের ক্ষরণ বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়, যেমন মশলাদার খাবারে শরীরে এনডরফিনের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। আবার দই, বিনস, ডিম, মাংস, কফি, আমন্ড ডোপামিনের ক্ষরণ বাড়ায়। ফলে এই দিক মাথায় রেখে ডায়েটে কিছু বদল আনতে পারলে ভালো হয়। ভালো খাবার কিন্তু এক লহমায় মন ভালো করার ক্ষমতা ধরে, সেই দিক থেকে তা হাসিখুশি থাকার আবহ তৈরি করতে অমোঘ ভূমিকা নেয়।

পর্নোগ্রাফিতে সব সময়েই লুকিয়ে যাওয়া হয় এই পাঁচটি বিষয়, জেনে নিন

  • Share this:

#কলকাতা: ইন্টারনেট ডেটা যত সুলভ হয়ে উঠছে, দিন দিন তত বেশি করে হাতের নাগালে আসছে পর্নোগ্রাফি। সন্দেহ নেই, কোনও একটা দিক থেকে নিজেকে আত্মসুখ দেওয়া, স্পষ্ট করে বললে হস্তমৈথুনের মাধ্যমে রতিসুখ লাভের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এই শিল্প। পর্নোগ্রাফি দেখার অভ্যাস যে খারাপ কিছু নয়, অস্বাভাবিকও কিছু নয়, সে বিষয় নিয়ে এর আগে আলোচনা করেছেন বিশেষজ্ঞা পল্লবী বার্নওয়াল। কিন্তু সব কিছুরই যেমন একটা ভালো দিক থাকে, তেমনই এক ধূসর দিকও থাকে। কাজেই কোথায় থামতে হবে পর্নোগ্রাফি দেখার ক্ষেত্রে, সেই বিষয়টিও মাথায় না রাখলেই নয়।

পল্লবী এই প্রসঙ্গে নামপ্রকাশ না করে তুলে ধরেছেন এক তরুণের কথা। তিনি জানতে চেয়েছেন- পর্নোগ্রাফি থেকে কি কোনও রকম যৌনশিক্ষা পাওয়া যায়? তা কি সেক্স এডুকেশনের দিক থেকে সমৃদ্ধ করতে পারে দর্শককে?

বিশেষজ্ঞার সাফ উত্তর- একেবারেই নয়! কেন না, সিনেমা যেমন হুবহু জীবনের অনুসরণ নয়, তেমনই পর্নোগ্রাফিও যৌনতার সবটুকু তুলে ধরে না। এই শিল্প কেবলমাত্র যৌনসুখের ফ্যান্টাসির জায়গাটাকে উপস্থাপিত করে দর্শকদের সামনে। প্রশ্রয় দেয় তাদের গোপন বাসনাকে। তার বেশি আর কিছুই পর্নোগ্রাফি আমাদের উপহার দেয় না। ফলে, পর্নোগ্রাফি থেকে কোনও কিছুই, এমনকি যৌন আসনও শেখার নেই! কেন না, সেখানে যা দেখানো হচ্ছে, তা বার বার ক্যামেরার সামনে শট দেওয়ার ফল, স্বতস্ফূর্ত সঙ্গম নয়।

তা ছাড়া পর্নোগ্রাফিতে সব সময়েই লুকিয়ে যাওয়া হয় এই পাঁচটি বিষয়, বলছেন পল্লবী:

১. সঠিক ভাবে কন্ডোম পরার পদ্ধতি পর্নোগ্রাফি থেকে শেখা যায় না। এটা শেখা না থাকলে যৌন অসুখে সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। থেকে যায় অবাঞ্ছিত গর্ভধারণের মতো বিপদও!

২. মেয়েদের ইজাকুলেশন কী করে হয়, অর্গ্যাজম কী করে হয়, সেই নিয়ে কোনও তথ্যই দেয় না পর্নোগ্রাফি। কিন্তু এটা মাথায় না রাখলে যেমন সঙ্গিনীকে তৃপ্ত করা যায় না, তেমনই নিজেকেও আনন্দ দেওয়া যায় না।

৩. কোন ধরনের যৌন আসন আনন্দের বদলে ব্যথা দেবে, সঙ্গমের সময়ে শারীরিক অবস্থান যুক্তিসঙ্গত ভাবে কেমন হওয়া উচিৎ, সে নিয়ে কোনও তথ্য দেয় না পর্নোগ্রাফি। কাজেই পর্নোগ্রাফি অনুসরণ করলে তা সঙ্গী বা সঙ্গিনীর পক্ষে শারীরিক কষ্টের কারণ হতে পারে।

৪. লুব্রিক্যান্টের সঠিক ব্যবহার, ইরেকটাইল ডিজফাংশন বা পুরুষাঙ্গের নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে কোনও তথ্য দেয় না পর্নোগ্রাফি। কিন্তু এটা বাস্তবোচিত সমস্যা, কাজেই প্রতিকারের উপায় না জানলেই নয়!

৫. সঙ্গী বা সঙ্গিনী যে রতিক্রীড়ায় দক্ষ হবেনই, তার কোনও মানে নেই। আবার তিনি পুরোপুরি ভাবে যৌন দিক থেকে অক্ষমও হতে পারেন। এমন হলে কী ভাবে পরিস্থিতি সামলাতে হয়, সেই তথ্য পর্নোগ্রাফিতে থাকে না!

Pallavi Barnwal 

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: Pregnant, Sexual Tips, Sexual Wellness

পরবর্তী খবর