• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • EATING JAGGERY EVERY DAY KNOW THESE SIDE EFFECTS MAY HAMPER YOUR HEALTH DD TC

রোজ গুড় খান! জানেন নিজের শরীরের কত বড় সর্বনাশ ডেকে আনছেন

রোজ গুড় খাওয়া হয়? সময় এসেছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া জেনে নিয়ে সচেতন হওয়ার!

রোজ গুড় খাওয়া হয়? সময় এসেছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া জেনে নিয়ে সচেতন হওয়ার!

  • Share this:

#কলকাতা: কম-বেশি সবাই লাঞ্চ বা ডিনারের পর মিষ্টি কিছু খেতে পছন্দ করেন। সেক্ষেত্রে, দোকানের মিষ্টির বিকল্প হিসাবে অনেকেই গুড় (Jaggery) খেতে পছন্দ করেন। অনেকে আবার প্রতি দিনের খাদ্যতালিকায় গুড় রাখেন স্বাস্থ্যগত কারণে। তবে গুড় খাওয়ার কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও আছে, এই প্রতিবেদনে সেই নিয়ে আলোচনা করা হল।

ব্লাড সুগারের লেভেল বেড়ে যায়- ১০০ গ্রাম গুড়ে প্রায় ৩৮৩ ক্যালোরি থাকে। তাই প্রতি দিন খাওয়ার পর বা অন্য কোনও ভাবে গুড় খেলে তা রক্তে শর্করা বা সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে তুলতে পারে।

পরজীবী সংক্রমণ হতে পারে- গ্রাম বাংলায় গুড় তৈরি হওয়ার যে পদ্ধতি, তা স্বাস্থ্যকর নয় বলেই মনে করেন গবেষকরা। গুড় রাখার জন্য যে টিনের পাত্র ব্যবহার করা হয়, তাও স্বাস্থ্যকর নয়। গুড় তৈরির কাঁচামাল অর্থাৎ আখ অনেক ক্ষেত্রেই ধোওয়া হয় না। তাই এতে পরজীবীরা বাসা বাঁধতে পারে। তাই গুড় কেনার সময়েও এই বিষয়গুলি খেয়াল রাখতে হবে এবং খাওয়ার সময়েও সব দিক বিচার করে খেতে হবে।

অ্যালার্জির সমস্যা হতে পারে- খুব বেশি গুড় খাওয়া হলে ঠাণ্ডা লাগা, বমি-বমি ভাব, পেটে ব্যথা, মাথা ব্যথা, কাশি ইত্যাদির মতো শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে। এমন কিছু হলে গুড় খাওয়ার পরিমাণে কমাতে হবে।

ওজন বৃদ্ধি করে- অনেকেই শরীরের ওজন নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকেন। তাঁরা যদি গুড় নিয়মিত খান তাহলে দেহের ওজন বৃদ্ধির সমস্যা বাড়তে পারে। কারণ, গুড়ের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট, প্রোটিন, গ্লুকোজ, ফ্রুক্টোজ রয়েছে। তাই গুড় খাওয়ার আগে এই বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে।

কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা দিতে পারে- সঠিক পরিমাণে গুড় খেতে পারলে রোগপ্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়ে। পেটও ঠাণ্ডা থাকে। কিন্তু, গুড়ের অত্যধিক সেবন হজমশক্তি দুর্বল করে দিতে পারে। ফলে, কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা দেয়।

Published by:Debalina Datta
First published: