ইনসুলিনের ১০০ বছর ! ডায়াবিটিস নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে দেশজুড়ে নতুন চ্যালেঞ্জ

News18 Bangla
Updated:Apr 15, 2019 08:49 PM IST
ইনসুলিনের ১০০ বছর ! ডায়াবিটিস নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে দেশজুড়ে নতুন চ্যালেঞ্জ
News18 Bangla
Updated:Apr 15, 2019 08:49 PM IST

#কলকাতা: ২০২২ সালের ১১ জানুয়ারি, ১০০ বছরে পা দিতে চলেছে ইনসুলিনের ব্যবহার ৷ ব্লাড সুগারের চিকিৎসায় যা কিনা একেবারে আর্শিবাদের মতোই ৷ ইনসুলিনের ১০০ বছর ও ব্লাড সুগার নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে he Research Trust of Diabetes India (Diabetes India) শুরু করতে চলেছে ১ হাজার দিন চ্যালেঞ্জ !

কী এই হাজার দিনের চ্যালেঞ্জ ? তা জানার আগে দেখে নেওয়া যাক, ইনসুলিন আবিষ্কারের ইতিহাসটা ৷

সালটা ১৯২২ ৷ প্রথম ইনসুলিন ইনজেকশনটা দেওয়া হয়েছিলস লিওনার্দো থমসন নামে এক যুবককে ৷ তবে প্রথম দিনই এই যুবকের শরীরে সেভাবে কাজ দেয়নি এই ইনজেকশন ৷ তবে ঠিক ১৫ দিন পর নাটকীয়ভাবে কমতে শুরু করে যুবকের ব্লাড সুগার ৷

দেশি-বিদেশি চিকিৎসকরা মনে করেন, গোটা বিশ্বের তুলনায় ভারতে ডায়াবেটিস নিয়ে সচেতনতা অনেকাংশেই কম ৷ আর সে কারণেই নানা ধরনের পন্থা নিয়ে হয় চিকিৎসকদের তরফ থেকে ৷

এ সম্পর্কে বলতে গিয়ে, ডক্টর এস.এম সাদিকোট ( President Diabetes India and Former President International Diabetes Federation) জানান, ‘ভারতে প্রায় ৭৪ লক্ষ মানুষ ডায়াবিটিসের সমস্যায় আক্রান্ত ৷ আর ৫০ শতাংশ মানুষ জানেনই না তাঁদের ব্লাড সুগার কন্ট্রোলে আছে কিনা ৷ সেই কারণেই আমরা চাই, ২০২২ -এর মধ্যে যতটা সম্ভব এই দেশকে ডায়াবেটিস থেকে মুক্ত করা ৷ আর সেই কারণেই এই হাজার দিনের চ্যালেঞ্জ ৷’

এই হাজার দিনের চ্যালেঞ্জ প্রোগামের সঙ্গে যুক্ত থাকবেন দেশের খ্যাতনামা এনডোক্রিনোলজিস্ট ও ডায়াবোটোলজিস্টরা ৷ এই ক্যাম্পেনের উদ্দেশ্যই হবে ব্লাড সুগার সম্পর্কে দেশের মানুষদের সচেতন করে তোলা ৷ ব্লাড সুগারের চিকিৎসা, সুস্থ লাইফস্টাইল সম্পর্কে সচেতন করে তোলা ৷

Loading...

এপ্রিলের ১৮ তারিখ থেকেই শুরু হবে এই চ্যালেঞ্জ ৷ শুরু হবে ‘ওয়াকাথোনে’র মধ্যে দিয়ে ৷ যার মধ্যে দিয়েই দেশের প্রত্যেকটি শহরে ছড়িয়ে দেওয়া হবে ব্লাড সুগার সম্পর্কীত সঠিক তথ্য ৷ বাড়িয়ে তোলা হবে সচেতনতা ৷

First published: 08:26:39 PM Apr 15, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर