Home /News /life-style /
Coronavirus: রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের আবির্ভাব নিয়ে সতর্ক করল WHO, কতটা বিপদ? পড়ুন

Coronavirus: রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের আবির্ভাব নিয়ে সতর্ক করল WHO, কতটা বিপদ? পড়ুন

ওমিক্রন এবং ডেল্টা করোনাভাইরাস রূপের সংমিশ্রণ একটি রিকম্বিন্যান্ট (Recombinant) হিসাবে পরিচিত।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাস (Coronavirus) প্রতিদিন নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ দিচ্ছে। সম্প্রতি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের সম্ভাবনা নিশ্চিত করেছে। গত সপ্তাহে, হু একটি নতুন রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের আবির্ভাব (Recombinant Virus) নিশ্চিত করেছে যা BA.1 এবং BA.2 ওমিক্রন (Omicron) স্ট্রেনের সংমিশ্রণ। ১৯ মার্চ ডেল্টা (Delta) AY.4 এবং ওমিক্রন (Omicron) BA.1-র রিকম্বিন্যান্টের বিষয়ে জানিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন (Soumya Swaminathan) রবিবার ট্যুইটে লেখেন, "রিকম্বিন্যান্টগুলি প্রত্যাশিত। কারণ করোনাভাইরাস এখনও মানুষ এবং অনেক প্রাণীর মধ্যে ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে। পরীক্ষা, নজরদারি, সিকোয়েন্সিং এবং ডেটা শেয়ারিং এখনও অতিমারীর উপরে নজর রাখতে এবং নতুন রূপের উদ্ভব হলে প্রাথমিক পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।"

রিকম্বিনেন্ট ভাইরাস কী?

সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ মারিয়া ভ্যান খেরখোভ (Maria Van Kherkhove) বলেছেন, ওমিক্রন এবং ডেল্টা করোনাভাইরাস রূপের সংমিশ্রণ একটি রিকম্বিন্যান্ট (Recombinant) হিসাবে পরিচিত। একটি গবেষণা প্রতিবেদন অনুসারে, এতে BA.1 থেকে স্পাইক এবং স্ট্রাকচারাল প্রোটিন এবং ডেল্টা থেকে জিনোমের অবশিষ্ট অংশ রয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের আবির্ভাবের বিরুদ্ধে সতর্ক করেছে। এর আগে, এটি ওমিক্রনের BA.1 এবং BA.2 স্ট্রেনের একটি রিকম্বিন্যান্টের আবির্ভাব নিশ্চিত করেছিল তারা। ইজরায়েলের (Israel) দুই যাত্রীর মধ্যে এই রিকম্বিন্যান্ট পাওয়া গিয়েছে। এই রিকম্বিন্যান্টটি আরটি-পিসিআর পদ্ধতির মাধ্যমে সনাক্ত করা হয়েছিল, যা এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাস সনাক্ত করার জন্য সেরা পদ্ধতি। রিপোর্ট অনুযায়ী, আলফা (Alpha) এবং উহান স্ট্রেন (Wuhan Strain) রিকম্বিন্যান্ট ছিল প্রথম।

কীভাবে রিকম্বিন্যান্টগুলি মূল স্ট্রেন থেকে আলাদা?

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে কোভিড-১৯ সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে আমরা ভাইরাসটির মিউট্যান্টদের সঙ্গে সঙ্গে এর আসল স্ট্রেইনের বিরুদ্ধেও মোকাবিলা করছি। এখনও পর্যন্ত, করোনাভাইরাসের বেশ কয়েকটি ভ্যারিয়েন্টের (Coronavirus Variants) মধ্যে, ৫টিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা উদ্বেগের রূপ (Variants Of Concern) হিসাবে অ্যাখ্যা দিয়েছে। এই ৫টি রূপ বিশ্বব্যাপী একটি বিশাল জনসংখ্যাকে সংক্রমিত করার জন্য দায়ী এবং এগুলির কারণে একের পর এক বিপর্যয়কর ঢেউ আবির্ভূত হয়েছে। রিকম্বিন্যান্টের উভয় স্ট্রেইনের জিনগত গঠন থাকে, যেখান থেকে তারা উদ্ভূত হয়। তবে জেনেটিক গঠন সম্পর্কে আরও তথ্য এখনও জানা যায়নি।

ভাইরাসের পুনর্মিলনের কারণ কী?

পুনর্মিলন ঘটে যখন কমপক্ষে দুটি ভাইরাল জিনোম (Viral Genomes) একই হোস্ট কোষকে সংক্রমিত করে এবং জেনেটিক অংশগুলি বিনিময় করে। একই ভাইরাস প্রকারের সদস্যদের মধ্যে পুনর্মিলন ঘটে। ভাইরাসে বিভিন্ন ধরণের পুনর্মিলন রয়েছে- হোমোলোগাস রিকম্বিনেশন (Homologous Recombination), নন-হোমোলোগাস রিকম্বিনেশন (Non-Homologous Recombination) এবং এলোমেলো পুনর্বিন্যাস।

এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাসের কতগুলি রিকম্বিন্যান্ট সনাক্ত করা হয়েছে?

এখনও পর্যন্ত, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দু'টি রিকম্বিন্যান্ট সম্পর্কে জানিয়েছে। সেগুলি হল- ডেল্টাক্রন (Deltacron) এবং ওমিক্রনের BA.1 এবং BA.2 স্ট্রেইনের পুনর্মিলন। রিপোর্টে বলা হয়েছে, প্রথম রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসটি ছিল আলফা স্ট্রেন এবং উহান স্ট্রেন।

রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের প্রভাব কী?

নিঃসন্দেহে রিকম্বিনেশন আরও নতুন ভাইরাস এনে ভাইরাসের পরিসরকে প্রসারিত করে। এটি ভাইরাসের বিবর্তনে সহায়তা করে গবেষক এবং বিশেষজ্ঞদের সামনে আরও চ্যালেঞ্জ তৈরি করে। রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসগুলি বিবর্তনের উপর একটি বড় প্রভাব ফেলতে পারে। প্রকৃতপক্ষে, ভাইরাল হোস্ট রেঞ্জের বিস্তৃতি, নতুন ভাইরাসের আবির্ভাব, ট্রান্সমিশন ভেক্টরের বৈশিষ্ট্যের পরিবর্তন, ভাইরাস এবং প্যাথোজেনেসিস বৃদ্ধি, টিস্যু ট্রপিজমের পরিবর্তন, হোস্ট অনাক্রম্যতা অপসারণ এবং প্রতিরোধের বিবর্তনের সঙ্গে পুনর্মিলন যুক্ত।

রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাস কি মূল স্ট্রেনের চেয়ে বেশি গুরুতর?

এই বিষয়ে এক বিশেষজ্ঞ বলেছেন, "এখনও পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। হ্যাঁ, আমরা এই রিকম্বিন্যান্ট সম্পর্কে সচেতন। এটি ডেল্টা AY.4 এবং ওমিক্রন BA.1-এর সংমিশ্রণ। এটি সনাক্ত করা হয়েছে কিন্তু খুব কম মাত্রায়।" তিনি যোগ করেছেন যে রিকম্বিন্যান্ট সম্পর্কিত বিভিন্ন গবেষণা চলছে। যাই হোক, এটি উল্লেখ্য যে করোনাভাইরাসের ডেল্টা এবং ওমিক্রন রূপগুলি এতটাই সংক্রামক ছিল যে এই দু'টি স্ট্রেন দ্বারা সৃষ্ট সংক্রমণের ঢেউয়ের সময় স্বাস্থ্যসেবা পরিকাঠামো ব্যবস্থা প্রায় বিকল হয়ে গিয়েছিল।

রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাস সম্পর্কে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার কী প্রতিক্রিয়া?

রিকম্বিন্যান্টগুলির আবির্ভাবের পিছনের কারণ সম্পর্কে মারিয়া ভ্যান খেরখোভ বলেছেন, "যখন আমরা ভাইরাসকে এত তীব্র স্তরে সঞ্চালন করতে দিই তখন কী ঘটে? ভাইরাসটি ক্রমাগত বিকশিত হতে থাকে এবং আরও বৈচিত্র প্রকাশ পায়। রিকম্বিন্যান্টগুলিও প্রত্যাশিত। আমরা আরও রিকম্বিন্যান্ট দেখব বলে আশা করি। হু এটি সম্পর্কে অবগত। আমরা এটি পর্যবেক্ষণ করছি।" কেরখোভ সারা বিশ্বে টেস্টিং, জিনোম সিকোয়েন্সিং (Genome Sequencing), সঠিক ভৌগোলিক উপস্থাপনের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

ভারতে রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাস: ওমিক্রনের পরে, এই মাসের শুরুতে ডেল্টা রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে। ভারত থেকেও অনুরূপ রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের সংক্রমণ সনাক্ত করা হয়েছিল। সংখ্যায় তা কমপক্ষে ৫৬৮টি। একটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে কর্নাটকে ২২১টি সংক্রমণ সনাক্ত করা হয়েছে। তারপরে রয়েছে তামিলনাড়ু (৯০), মহারাষ্ট্র (৬৬), গুজরাত (৩৩), পশ্চিমবঙ্গ (৩২), তেলঙ্গানা (২৫) এবং নয়াদিল্লি (২০)। ওমিক্রন, ডেল্টা রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের উপসর্গগুলি বেশিরভাগ আগের মতোই। তবে বিজ্ঞানীরা এখনও এটি পর্যবেক্ষণ করছেন। প্রচণ্ড তাপমাত্রার জ্বর হতে পারে এর ফলে। বিশেষ করে বুক এবং পিঠের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটাই বেড়ে যেতে পারে। টানা কাশি হতে পারে।

First published:

Tags: Coronavirus

পরবর্তী খবর