Home /News /life-style /
Cooking Tips: রান্নায় স্টার অ্যানিস ব্যবহার করেন? উপকারিতা থাকলে সামান্য অসতর্কতায় হতে পারে বিপদ; জেনে নিন এখনই!

Cooking Tips: রান্নায় স্টার অ্যানিস ব্যবহার করেন? উপকারিতা থাকলে সামান্য অসতর্কতায় হতে পারে বিপদ; জেনে নিন এখনই!

প্রতীকী ছবি ৷

প্রতীকী ছবি ৷

Cooking Tips: শরীরে প্রদাহ কমানো থেকে শুরু করে ক্যানসার প্রতিরোধ সহ এটির বিবিধ আয়ুর্বেদিক উপকারিতা রয়েছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: স্টার অ্যানিস বর্তমানে রান্নার একটি খুবই পরিচিত মশলা। মশলাটি রান্নায় এক অন্য স্বাদ নিয়ে আসে। শুধু তাই নয়, শরীরে প্রদাহ কমানো থেকে শুরু করে ক্যানসার প্রতিরোধ সহ এটির বিবিধ আয়ুর্বেদিক উপকারিতাও রয়েছে। আবার সতর্ক হয়ে না খেলে এটি বিভিন্ন শারীরিক সমস্যাও তৈরি করতে পারে।

স্টার অ্যানিসের উপকারিতা

১. মাইক্রোবায়াল সংক্রমণের জন্য উপকারিতা

স্টার অ্যানিস অ্যান্টি-মাইক্রোবায়াল হিসাবে খুব ভালো কাজ করে। এটির অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিপ্যারাসাইটিক, অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে বলে প্রমাণিত হয়েছে। গবেষকরা বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে স্টার অ্যানিসের অ্যান্টিফাঙ্গাল উপাদানের সন্ধান পেয়েছেন। এছাড়াও, স্টার অ্যানিসের শিকড়গুলোর মাঝারি ধরনের অ্যান্টি-এইচআইভি বৈশিষ্ট্যও রয়েছে।

আরও পড়ুন :  Kidney : কিডনির অসুখে ভুগছেন না তো? বিপদ এড়াতে এই পাঁচটি খাবার ডায়েটে রাখুন

২. ডায়রিয়ায় উপকারিতা

অন্ত্রে স্টার অ্যানিস এবং ক্যামোমাইলের মিশ্রণের প্রভাব নিয়ে একটি পরীক্ষা করা হয়েছিল। যেখানে এই মিশ্রণ মলের শিথিলতা এবং মল নির্গমন কমায় বলে প্রমাণিত হয়েছে। তাই গবেষণায় অ্যান্টি-ডায়রিয়াল চিকিৎসার বিকল্প হিসাবে ক্যামোমাইল এবং স্টার অ্যানিসের মিশ্রণ ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়।

৩. প্রদাহ কমায়

স্টার অ্যানিস প্রদাহজনক অবস্থা কিংবা রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। স্টার অ্যানিসের অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য বিভিন্ন প্রাণীর মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছিল, যেখানে এটির প্রয়োগ ব্যথা কমানোর এবং ফোলাভাব কমানোর সহায়ক হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

আরও পড়ুন:  Covid 19 infection : একাধিকবার করোনায় আক্রান্ত হলে সারাজীবন ভুগতে হবে জটিল রোগে? আশঙ্কার কথা শোনাল WHO

৪. ক্যানসারে উপকারিতা

স্টার অ্যানিস খেলে ক্যানসার প্রতিরোধ হতে পারে। কারণ স্টার অ্যানিসে অ্যান্টিক্যানসার উপাদান রয়েছে। এটি ক্যানসারের রোগীদের ক্ষতিগ্রস্থ ডিএনএ-তে প্রভাব ফেলে। যার ফলে ক্যানসারের কোষ শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে না।

স্টার অ্যানিস কীভাবে ব্যবহার করা যায়

গোটা মশলা, চা, এসেনসিয়াল অয়েল, সিড সহ বিভিন্নভাবে, বিশেষত চাইনিজ এবং ভারতীয় রান্নায় স্টার অ্যানিস ব্যবহৃত হয়। বিভিন্ন পানীয়, ডেজার্ট এবং স্ট্যু তৈরিতে ব্যবহৃত হয়।

স্টার অ্যানিস খাওয়ার সময়ে সতর্ক থাকা প্রয়োজন

কখনও কখনও চিনা স্টার অ্যানিস (ইলিসিয়াম ভেরাম) জাপানি স্টার অ্যানিসের (ইলিসিয়াম অ্যানিসাটাম) সঙ্গে ভেজাল করা হয়। দেখতে একই রকম হলেও জাপানি স্টার অ্যানিস খুবই বিষাক্ত। স্টার অ্যানিস শিশুদের দেওয়া উচিত নয় কারণ এটি গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল এবং স্নায়ুতে বিষক্রিয়া করতে পারে। স্টার অ্যানিসে থাকা এক ধরনের রাসায়নিক যৌগ কিছুটা বিষাক্ত হওয়ায় এটি বেশি পরিমাণে খেলে বমি, খিঁচুনি এবং ফুসফুসের সমস্যা হতে পারে। আবার ডাক্তারের পরামর্শ না নিয়ে গর্ভাবস্থায় এবং ব্রেস্টফিডিং-এর সময়েও মহিলাদেরও স্টার অ্যানিস খাওয়া উচিত নয়।

Published by:Arjun Neogi
First published:

Tags: Cooking tips

পরবর্তী খবর