প্যানডেমিকে বিরিয়ানিতে মজেছে মানুষ, বাদ যায়নি বাড়ির তৈরি খাবারও: Swiggy রিপোর্ট

প্যানডেমিকে বিরিয়ানিতে মজেছে মানুষ, বাদ যায়নি বাড়ির তৈরি খাবারও: Swiggy রিপোর্ট

এমনই বলছে, অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপ Swiggy-র তথ্য।

এমনই বলছে, অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপ Swiggy-র তথ্য।

  • Share this:

প্যানডেমিকের মাঝে মানুষের ঝোঁক বেড়েছে বিরিয়ানিতে। প্রতি সেকন্ডে দেশের কোনও না কোনও প্রান্তে, কেউ না কেউ বিরিয়ানি অর্ডার করেছে এই অ্যাপের মাধ্যমে। তবে, ২০২০-তে তাকে আবার ছাপিয়ে গেছে হোম মেড কুক বা বাড়ির বানানো খাবার। এমনই বলছে, অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপ Swiggy-র তথ্য।

Swiggy-র পঞ্চম StatEATstics-এর রিপোর্ট বলছে, ভেজ বিরিয়ানির থেকে চিকেন বিরিয়ানি বেশি জনপ্রিয়। দেখা গিয়েছে, একটা ভেজ বিরিয়ানি অর্ডার হলে, সেই সময় ৬টা চিকেন বিরিয়ানি অর্ডার হয়। এমনকি প্রায় ৩ লাখ নতুন Swiggy ব্যবহারকারী চিকেন বিরিয়ানির মাধ্যমেই এই অ্যাপে ডেবিউ করেছে। অর্থাৎ এই তিন লাখ মানুষের Swiggy-তে প্রথম অর্ডার চিকেন বিরিয়ানি।

অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপ যে শুধুই বাড়িতে বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেয় তা নয়, অফিস বা যেকোনও পছন্দের জায়গাতেই এরা পৌঁছে যায়। এ ক্ষেত্রে Swiggy-র রিপোর্ট বলছে, জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে এই সংস্থা কর্মক্ষেত্রে যত না ডেলিভারি করেছে, তার থেকে পাঁচ গুন বেশি ডেলিভারি করেছে বাড়িতে। আর এপ্রিল থেকে মে মাসের মধ্যে এই পাঁচ গুন বেড়ে গিয়ে হয় নয় গুন। অর্থাৎ এই দু'মাসে কর্মক্ষেত্রের থেকে নয় গুন বেশি বাড়িতে খাবার অর্ডার করেছে মানুষজন।

করোনার জেরে যেহেতু ওয়ার্ক ফ্রম হোম চালু হয়, বাড়িতে বসে কাজের মাঝে অফিসের ক্য়াপাচিনো, কফি বা মশলা চা মিস করেছে মানুষজন। তার ফলে লাখ লাখ মানুষ Swiggy থেকে এই সব পানীয় অর্ডার করেছে। শুধু এটাই নয়, Swiggy-র রিপোর্ট বলছে, এই ক'দিনে প্রচুর মানুষ ফুচকা অর্ডার করেছে। এই সংস্থা দু'লাখেরও বেশি মানুষের কাছে ফুচকা পৌঁছে দিয়েছে।

আনলক শুরুর পর অগাস্টে এই সংস্থা Swiggy HealthHub চালু করে। যেখানে হেলদি খাবারের তালিকা থেকে হেলদি খাবার বেছে নেওয়া যায়। সংস্থার তথ্য বলছে, NCR অর্থাৎ দিল্লির মানুষজন সবচেয়ে বেশি হেলদি খাবার অর্ডার করেছে। আর বেঙ্গালুরুতে Swiggy ব্যবহারকারীর মধ্যে প্রায় ১৩০ শতাংশের এই হেলদি ফুড অর্ডারের প্রবণতা বেড়েছে। দেখা গিয়েছে, মানুষ মোটামুটি ৩৪২ ক্যালোরির মধ্যে ডিনার সেরেছে। দুপুরের খাবার অর্থাৎ লাঞ্চ ৩৫০ ক্যালোরির মধ্যে ও ব্রেকফাস্ট -সহ সারাদিনে বাকি খাবার মোট ৪২৭ ক্যালোরিতে সেরেছে।

খাবার অর্ডার বাদ দিলে, Swiggy সম্প্রতি গ্রসারি সার্ভিসও চালু করেছে। এই সার্ভিসের নিরিখে তথ্য বলছে, এই ক'দিনে তারা ৭৫ হাজার কেজির উপর শুধু পিঁয়াজ ডেলিভারি করেছে। এবং তাদের সবচেয়ে কম দূরত্বের ডেলিভারি হয়েছে ৬০০ মিটারের মধ্যে। বেঙ্গালুরুতে ও সবচেয়ে বেশি হয়েছে ৩৯ কিলোমিটারের মধ্যে। ৬০০ মিটারের ক্ষেত্রে একটি খালি জলের ড্রাম পাশের দোকান থেকে ভরে আনার অর্ডার ছিল এবং ৩৯ কিলোমিটারেরটা একটি সিম দিয়ে আসার অর্ডার ছিল।

Published by:Arka Deb
First published: