corona virus btn
corona virus btn
Loading

ভাইরাস-ব্যাকটেরিয়া থেকে বাঁচতে এবার ‘অ্যান্টি ভাইরাল’ কাপড় তৈরি করছে দেশের এই সংস্থা !

ভাইরাস-ব্যাকটেরিয়া থেকে বাঁচতে এবার ‘অ্যান্টি ভাইরাল’ কাপড় তৈরি করছে দেশের এই সংস্থা !

এই উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে অ্যান্টি-ভাইরাল শার্টিং-সুটিং-এর কাপড় , রেডিমেড জামাকাপড় এবং ফেস মাস্ক বানাবে সংস্থা ৷

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা অতিমারির জেরে এখন জামাকাপড় কেনার চেয়ে মাস্ক বা স্যানিটাইজার কেনার দিকেই বেশি ঝোঁক সাধারণ মানুষের ৷ এই অবস্থায় এমন অনেক সংস্থাই রয়েছে, যারা ব্যবসা ধরতে এখন মাস্ক বা স্যানিটাইজার বানাচ্ছে ৷ কিন্তু পোশাকই যদি ‘অ্যান্টি ভাইরাল’ হয়, তাহলে কেমন হয় ৷ এই ভাবনা থেকেই এবার ভারতের টেক্সটাইল সংস্থা অরবিন্দ লিমিটেড দেশের বাজারে নিয়ে এসেছে ‘Intellifabrix’ ৷ যা অ্যান্টি-ভাইরাল টেক্সটাইল প্রযুক্তির মধ্যে পড়ে ৷

সুইৎজারল্যান্ডের সংস্থা HeiQ Materials AG এবং তাইওয়ানের সংস্থা M/S Jintex Corporation-এর সঙ্গে হাত মিলিয়েই এই ধরণের অ্যান্টি-ভাইরাল কাপড় উৎপাদন করছে সংস্থা ৷ গবেষণায় দেখা গেছে ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া জামাকাপড়ের উপরে দু’দিন পর্যন্ত সক্রিয় থাকতে পারে। HeiQ Viroblock Technology দিয়ে তৈরি পোশাক সক্রিয়ভাবে ভাইরাস প্রতিরোধ করে । এই পোশাকের সংস্পর্শে এলে ভাইরাস নষ্ট হয়ে যায় ফলে রোগজীবাণু কাপড়ের মাধ্যমে পুনরায় সংক্রমণের সম্ভাবনা হ্রাস পায়। এই উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে অ্যান্টি-ভাইরাল শার্টিং-সুটিং-এর কাপড় , রেডিমেড জামাকাপড় এবং ফেস মাস্ক বানাবে সংস্থা ৷

আরও জানতে যোগাযোগ করুনhttps://www.arvind.com/contact-us

‘Intellifabrix’ ব্র্যান্ডের এই অ্যান্টি ভাইরাল কাপড় বাজারে আনার কথা ঘোষণা করে অরবিন্দ লিমিটেডের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর কুলিন লালভাই বলেন - " কোভিড-১৯-এর কারণে গোটা বিশ্ব এক নজিরবিহীন সঙ্কটে পড়েছে। আমরা আমাদের গ্রাহকদের সুরক্ষিত রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সেই কারণে আমরা এই যুগান্তকারী ভাইরোব্লক প্রযুক্তি ভারতে আনার জন্য HeiQ-এর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। আমরা এই অংশীদারি নিয়ে আশাবাদী এবং অল্পসময়ের মধ্যেই আমরা সর্বোত্তম শ্রেণীর ভাইরাস সুরক্ষা-সহ ফ্যাশনেবল কাপড় ভারতীয় বাজারে আনতে বদ্ধপরিকর।"

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: June 11, 2020, 6:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर