Home /News /life-style /
Anti Aging Tips: বয়স বাড়ছে, ভাল ভাল খাবারে ত্বকের বয়স কমবে হুড়মুড়িয়ে

Anti Aging Tips: বয়স বাড়ছে, ভাল ভাল খাবারে ত্বকের বয়স কমবে হুড়মুড়িয়ে

foods you should eat more often for wrinkle free skin- Photo- Representative

foods you should eat more often for wrinkle free skin- Photo- Representative

Skin Care Tips: বয়স বাড়লে দামি বিউটি প্রোডাক্ট নয়, বলিরেখা মুক্ত ত্বকের জন্য এই খাবার বেশি করে খেতে হবে!

  • Share this:

    #কলকাতা: ত্বকের যত্নে হাজারটা নামি-দামি পণ্য রয়েছে বাজারে। মুড়ি-মুড়কির মতো সে সব বিক্রি হয়। ক্রিম, ফেসওয়াশ, মেকআপ…। ফেসিয়াল করে কিংবা মেকআপে মুখের দাগ কিংবা নিস্তেজ ত্বক ঢাকা গেলেও বলিরেখা লুকোনো যায় না। একটা নির্দিষ্ট বয়সের পর ত্বক দ্রুত ভাঙতে শুরু করে। এর একাধিক কারণ রয়েছে। সানস্ক্রিন না লাগানো, দূষণ, কম জল খাওয়া এবং সবচেয়ে সাধারণ কারণ- ভুল ডায়েট। তাই আগে থেকেই সাবধান হতে হবে। মেনে চলতে হবে স্বাস্থ্যকর ডায়েট। চিনি খাওয়া ছেড়ে দেওয়াই ভালো। তাহলেই বয়স বাড়লেও ত্বক থাকবে ১৮ বছর বয়সীদের মতোই তরতাজা।

    কোলাজেন: স্বাস্থ্যকর ত্বকের জন্য এটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কোলাজেন হল একধরণের প্রোটিন যা ত্বককে দৃঢ়, বলি মুক্ত এবং সুস্থ রাখে। বয়স যত বাড়তে থাকে শরীরে কোলাজেন উৎপাদন তত হ্রাস পায়। তাই খাবার থেকে এর পরিপূরক গ্রহণ করতে হবে। এজন্য মাংসের ঝোল খুব ভালো। তাছাড়া ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়ামের মতো খনিজ পদার্থে সমৃদ্ধ খাবার প্রতিদিনের ডায়েটে রাখতে হবে।

    আরও পড়ুন -Independence Day 2022: মাস্টারদা সূর্য সেনকে গোপনে ডিঙি পার করিয়েছিলেন মোহনবাগানের মনমোহন মুখোপাধ্যায়

    সবুজ শাকসবজি: ভিটামিন সি সমৃদ্ধ, পালং শাক, কালে এবং কলার্ডে রোদ এবং দূষণের কারণে হওয়া ক্ষতি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে সহায়তা করে।

    দারচিনি: এটা পলিফেনল সমৃদ্ধ। ত্বকের জন্য স্বাস্থ্যকর কোষ উৎপাদনকে এক ধাক্কায় বাড়িয়ে দেয়।

    আরও পড়ুন - Achinta Sheuli: বার্মিংহ্যামে উঠল তেরঙ্গা, ‘জন গণ মন’ গাইছিলেন সোনা জয়ী অচিন্ত্য, দেখুন

    আদা এবং মধু: আদার মধ্যে উপস্থিত জিঞ্জেরলের প্রদাহরোধী বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি ত্বকের ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলার ক্ষমতা রাখে। আদা, মধুর সঙ্গে মিশিয়ে খেলে ত্বকের বার্ধক্য ঠেকাতে দারুণ কাজ দেয়। এটা প্রাকৃতিক অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল দ্রবণে পরিণত হয়, তাই বলিরেখা রোধ করে।

    স্বাস্থ্যকর চর্বি: ভিটামিন এ, ডি, ই এবং কে ফ্যাট দ্রবণীয় ভিটামিন। ভিটামিন এ বিশেষভাবে ত্বকের কোষ মেরামত করে এবং কোলাজেন উৎপাদনকে স্থিতিশীল করে। অন্যান্য চর্বি-দ্রবণীয় ভিটামিন সূর্যের ইউভি রশ্মি থেকে হওয়া ক্ষতি রোধ করে। এ জন্য প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় স্যামন মাছ, অ্যাভোকাডো, আখরোট, ঘি, ফ্ল্যাক্স সিড, অলিভ অয়েল রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়।

    বেরি: এগুলো অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। ত্বকের কোলাজেনের ক্ষতি করে এমন ফ্রি র‍্যাডিক্যালের বিরুদ্ধে লড়াই করে বেরি। ফলে বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে।

    মাশরুম: এতে প্রচুর পরিমাণে কপার আছে। যা ত্বকে প্রাকৃতিকভাবে উপস্থিত প্রোটিন, কোলাজেন এবং ইলাস্টিনকে সংশ্লেষিত এবং স্থিতিশীল করতে সহায়তা করে।

    অ্যালোভেরা: পাতা কেটে এর জেলি ত্বকে লাগানো যায় কিংবা জুস হিসেবেও পান করা যায়। দুটিতেই সমান উপকার মিলবে। এতে স্টেরল রয়েছে। এটা কোলাজেন এবং হায়ালুরোনিক অ্যাসিডের উৎপাদন বাড়ায়। ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখে, বলিরেখা কমায়। শুধু তাই নয়, মুখের দাগ নিরাময়েও এটা দারুণ কার্যকর।

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    Tags: Anti Aging Tips, Food

    পরবর্তী খবর