• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ‘গণতন্ত্র বাঁচাতেই আমরা একজোট হয়েছি, এই সরকারকে সরানোই আমার জীবনের শেষ লড়াই’, বললেন যশবন্ত

‘গণতন্ত্র বাঁচাতেই আমরা একজোট হয়েছি, এই সরকারকে সরানোই আমার জীবনের শেষ লড়াই’, বললেন যশবন্ত

  • Share this:

    #কলকাতা: উনিশের লক্ষে উনিশের ব্রিগেড। কেন্দ্রে বদলের ডাক। মোদিকে হারাতে কাণ্ডারী মমতা। লোকসভা ভোটের আগে ঐক্যবদ্ধ বিরোধীদের ছবি। আজ কলকাতায় ঐতিহাসিক সমাবেশ। চিঠিতে মমতাকে সমর্থন জানিয়েছেন রাহুল ৷ মোদিমুক্ত দেশ গড়তে পথ দেখাচ্ছে বাংলা। ইউনাইটেড ইন্ডিয়া র‍্যালি থেকে বদলের শুরু। লোকসভা ভোটের আগে এক মঞ্চে এক প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, চার মুখ্যমন্ত্রী ও ছয় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

    আরও পড়ুন: মহাজোট নতুন সরকার গড়লে কৃষকদের আত্মহত্যা বন্ধ হবে, শ্রমিকরা কাজ পাবেন: জিগনেশ

    তৃণমূলের কংগ্রেসের ব্রিগেডে উপস্থিত রয়েছেব বিভিন্ন রাজনৈতিক স্তরের নেতারা ।মমতার নেতৃত্বে নয়া রাজনৈতিক সমীকরণ ? সেই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই আজ ব্রিগেডের দিকে তাকিয়ে জনতা থেকে রাজনৈতিক মহল ৷ এদিন ব্রিগেডে আসা জাতীয় স্থরের নেতাদের বক্তৃতা দেওয়ার সুযোগ দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী ৷ এর জন্য নির্ধারিত সময়ের আগেই শুরু হয়ে যায় ব্রিগেড সভা ৷ সবার শেষে বক্তব্য রাখবেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ বক্তব্য শুরু করেন হার্দিক ৷ এরপর একে একে সকলেই একজোট হয়ে মোদি বিদায়ের ডাক দিয়েছেন ৷

    আরও পড়ুন: শহর থেকে রাজ্য, শনিবার সকাল থেকেই ব্রিগেডমুখী তৃণমূল কর্মী-সমর্থকেরা

    এদিন মঞ্চে উঠে যশবন্ত সিনহা মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়ে জানান,

    ‘ বিজেপি বলবে আমরা সবাই এক হয়েছি মোদিকে সরাতে ৷একজন ব্যক্তির প্রশ্ন নয়, প্রশ্ন বিচারধারার ৷ গত ৫৬ বছরে বিপন্ন গণতন্ত্র ৷ সমস্ত সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংসের মুখে ঠেলা হয়েছে ৷ গণতন্ত্র বাঁচাতেই আমরা একজোট হয়েছি ৷ দেশের অর্থনীতি লাটে তুলে দিয়েছে ৷তথ্য বিকৃতি করে পেশ করা হচ্ছে ৷ সমাজে বিভেদ তৈরি করা হচ্ছে ৷ এই সরকারের বিরোধ করলেই দেশদ্রোহী তকমা দেওয়া হচ্ছে ৷ এই সরকারকে সরানোই আমার জীবনের শেষ লড়াই ৷ একের বিরুদ্ধে একের লড়াই হোক ৷ সবার বিকাশের বদলে সবার সর্বনাশ করেছে ৷ ’

    First published: