২৭ বছরের লড়াই শেষ স্বপ্নাদের, সেনাবাহিনীতে মহিলাদের স্থায়ী পদে নিয়োগের নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

২৭ বছরের লড়াই শেষ স্বপ্নাদের, সেনাবাহিনীতে মহিলাদের স্থায়ী পদে নিয়োগের নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

প্রাক্তণ ক্যাপ্টেন গিরীজা প্রসাদের মতে, "মেরি কম যদি পারে বক্সিংয়ে দেশকে গর্বিত করতে, তাহলে প্রশিক্ষণ পেলে মহিলারা কমব্যাট বাহিনীতেও পারবেন।"

  • Share this:

#কলকাতা: ২৭ বছরের দীর্ঘ লড়াইয়ের পর সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে মুখে হাসি স্বপ্না দত্তের মতো অনেকের মুখেই। বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি অজয় রুস্তগীকে নিয়ে তৈরি ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে যে সেনাবাহিনীতে মহিলাদের স্থায়ী নিয়োগের ব্যবস্থা করতে হবে।

শুধুমাত্র তাই নয়, পুরুষদের মতো সমান সুযোগ-সুবিধাও দিতে হবে মহিলাদের। শর্ট সার্ভিস কমিশনে যারা ১৪ বছরের বেশি কাজ করেছেন, তাদের ক্ষেত্রেও থাকবে স্থায়ী কমিশনের ব্যবস্থা। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ যে তিন মাসের মধ্যে কমব্যাট উইং ছাড়া সেনাবাহিনীর সমস্ত স্তরেই সমান জায়গা করে দিতে হবে মহিলাদের।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে প্রাক্তন ক্যাপ্টেন স্বপ্না দত্ত জানান,  "সমাজ চিরকালই শুনিয়ে এসেছে মেয়েরা পারবে না। বাহিনীর শর্ট সার্ভিসে কলকাতা থেকে তিনি প্রথম চাকরি পাওয়ার পরেও সারাক্ষণ এটাই মেনে চলতেন যে, পুরুষ সহকর্মীদের স্থায়ী চাকরি ৷ কিন্তু মেয়েদের আগেই অবসর নিতে হবে। তবে সুপ্রিম কোর্টের এই রায় আমি ভীষণই খুশি।"

প্রাক্তণ ক্যাপ্টেন গিরীজা প্রসাদের মতে, "মেরি কম যদি পারে বক্সিংয়ে দেশকে গর্বিত করতে, তাহলে প্রশিক্ষণ পেলে মহিলারা কমব্যাট বাহিনীতেও পারবেন।"  তিনি আশা করছেন, একদিন সকলের মানসিকতা বদলে যাবে এবং যুদ্ধক্ষেত্রে মহিলারাও পুরুষদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ রেখে লড়াই করবেন।  নিশা ধনখড়ও এই রায়ে দারুণ খুশি। তাঁরাও আশা করছেন খুব শীঘ্রই তাঁরা কমব্যাট ফোর্সে জায়গা করে নিতে পারবেন।

Shalini Datta

First published: February 19, 2020, 1:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर