Home /News /kolkata /
'অপা' গ্রেফতারে শাসক বিরোধী হাওয়া তৈরি হয়েছে ধরে নিয়ে তৃণমূলের ঘর ভাঙতে মরিয়া বিজেপি?

'অপা' গ্রেফতারে শাসক বিরোধী হাওয়া তৈরি হয়েছে ধরে নিয়ে তৃণমূলের ঘর ভাঙতে মরিয়া বিজেপি?

'আমরা পচা আলু নেব না। বেছে বেছে আলু নেবো' - ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য সুকান্ত মজুমদারের। 

  • Share this:

ভেঙ্কটেশ্বর লাহিড়ী, কলকাতা-  পঞ্চায়েত এবং লোকসভা ভোটকে পাখির চোখ বিজেপির (BJP)। যোগদান মেলার ধাঁচে এবার তাদের যোগদান কর্মসূচি। এই মাস থেকেই কর্মসূচি শুরুর ভাবনা।  একুশে যোগদান মেলা। একুশের ভোটে স্বপ্নভঙ্গ। এবার বাইশে ফের যোগদান কর্মসূচি। লক্ষ্য তেইশের পঞ্চায়েত ভোট এবং চব্বিশের লোকসভা নির্বাচন।

বঙ্গ বিজেপি চাইছে নিয়োগ দুর্নীতিকে হাতিয়ার করেই তৃণমূলে ফাটল ধরাতে। শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় তোলপাড় রাজ্য। রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে (Partha Chatterjee) গ্রেফতার করেছে ইডি (ED)। তাঁর বান্ধবীর ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল টাকার পাহাড়। বিজেপি মনে করছে এই ইস্যুতে শাসক বিরোধী হাওয়া বইছে রাজ্যে। সেই হাওয়া নিজেদের পালে টেনে সংগঠনকে শক্তিশালী করার কথা ভাবছে বঙ্গ বিজেপি। তারা চাইছে, এই হাওয়াকে কাজে লাগিয়েই শাসক শিবিরের উপর চাপ বাড়াতে। শীঘ্রই তারা যোগদান কর্মসূচি চালুর পরিকল্পনা করছে বলে বিজেপি সূত্রের খবর।

দু’দিন আগেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য ছিল, ‘‘আমরা পচা আলু নেব না। বেছে বেছে আলু নেব...।’’ গত বিধানসভা ভোটের  আগে যোগদান মেলায় যে সমস্ত নেতা কর্মীরা বিজেপির শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন তাদের মধ্যে হেভিওয়েট অনেকেরই তৃণমূলে ঘর ওয়াপসি হয়েছে। তাই পার্থ চট্টোপাধ্যায় গ্রেফতার কিংবা শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির জেরে বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে শাসক বিরোধী হওয়া বইছে বলে মনে করলেও গেরুয়া শিবিরের নেতারা যোগদানের বিষয়ে বেশ সতর্ক।

আরও পড়ুন- উত্তরের জেলাগুলিতে পঞ্চায়েত প্রস্তুতি শুরু করে দিল তৃণমূল কংগ্রেস

স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, যাদের বিরুদ্ধে কোনও দুর্নীতির অভিযোগ নেই এমন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বই এখন গেরুয়া শিবিরে যোগদানের মাপকাঠি করার ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছে বলে দলীয় সূত্রের খবর। যে কেউ বিজেপিতে যোগদানের ইচ্ছেপ্রকাশ করলেই যে তাঁকে সাদরে গ্রহণ করা হবে, অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে এমনটা আর করতে রাজি নয় বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব। কারণ গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে অনেকেই বিজেপি শিবিরে নাম লেখালেও পরবর্তীকালে দল ছেড়ে ফের তৃণমূলে ফিরে গিয়েছেন। তাই সংগঠন বিস্তারের পাশাপাশি নতুনদের দলে নেওয়ার ক্ষেত্রে ছাকনি ব্যবহার করতে চাইছে পদ্ম নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন-ভালোমানুষির সুযোগ নেন অন্য লোকে? ইংরেজির ‘T’ অক্ষর দিয়ে নাম শুরু হচ্ছে না তো?

একুশের বিধানসভা ভোটের আগে বিজেপি ঢাকঢোল পিটিয়ে করেছিল যোগদান মেলা। তাতে সাড়াও মিলতে দেখা যায়। অনেকেই বিজেপিতে যোগ দেন। কিন্তু গত বিধানসভা ভোটে  বিজেপির 'ইস বার দোশো পার'-এর স্লোগান দিয়ে  বঙ্গ জয়ের স্বপ্ন কার্যত ভেঙে চুরমার হয়ে যায় পদ্ম নেতাদের । এরপরেও আবার কেন যোগদান কর্মসূচির ভাবনা? এই প্রশ্ন উঠছে নানা মহলে।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: AITMC, BJP, Partha Chatterjee

পরবর্তী খবর