• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • কলকাতা
  • »
  • WEST BENGAL MINISTER AND TMC LEADER FIRHAD HAKIM RESIGNS AS THE CHAIRMAN OF KOLKATA MUNICIPAL CORPORATION AFTER ELECTION COMMISSIONS ADVICE

আজই শেষদিন, সরতে হবে রাজনৈতিক পুরপ্রশাসকদের! আগেই দায়িত্ব ছাড়লেন ফিরহাদ

আজই শেষদিন, সরতে হবে রাজনৈতিক পুরপ্রশাসকদের! আগেই দায়িত্ব ছাড়লেন ফিরহাদ

পদ ছাড়লেন ফিরহাদ

আপাতত ফিরহাদের দায়িত্ব সামলাবেন পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের সচিব খলিল আহমেদ।

  • Share this:

    #কলকাতা: বিজেপি দাবি করেছিল আগেই, সেই মোতাবেক রাজ্যের মেয়াদ পেরোনো পুরবোর্ড থেকে রাজনীতিক প্রশাসকদের সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ জারি করেছিল নির্বাচন কমিশন। সেই নির্দেশ অনুযায়ী, ভোটের মুখেই কলকাতা পুরসভার প্রশাসক পদে ইস্তফা দিলেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র তথা কলকাতা পুরসভার প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। আপাতত ফিরহাদের দায়িত্ব সামলাবেন পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের সচিব খলিল আহমেদ।

    ইতিমধ্যেই সরকারি নির্দেশিকা জারি করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, নির্বাচিত নতুন বোর্ড গঠন না হওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব সামলাবেন খলিলই। গত শনিবারই কমিশনের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, বাংলার যে সমস্ত পুরসভা ও পুরনিগমের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছে, সেখানে যদি প্রশাসক পদে কোনও প্রাক্তন মেয়র বা রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব থাকেন, তাঁদের সরে যেতে হবে। আর কমিশনের নির্দেশ মোতাবেক সেই সরে যাওয়ার শেষ দিন নির্ধারিত হয়েছে আজ, মঙ্গলবার পর্যন্ত।

    গত বছর বিভিন্ন সময় থেকেই রাজ্যের প্রায় একশোরও বেশি পুরসভার মেয়াদ শেষ হয়েছে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে সেই ভোট করানো সম্ভব হয়নি। রাজ্য সরকারই সেই সময় সিদ্ধান্ত নেয়, নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত সেখানে মেয়র, চেয়ারম্যান, মেয়র পারিষদদেরই প্রশাসক পদে বসানো হয়েছিল। কিন্তু এই বিষয়টি নিয়েই কমিশনের দ্বারস্থ হয়ে বিজেপি অভিযোগ করেছিল, পুরসভা বা পুরনিগমের পদগুলিতে তৃণমূল নেতারা বসে থাকলে তা নির্বাচনে প্রভাব ফেলতে পারে। বিজেপির সেই দাবি মেনে নেয় নির্বাচন কমিশন।

    যদিও শনিবারই কলকাতা পুরসভার প্রশাসক-পদে ইস্তফা দিয়েছেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীতে থাকা অন্য রাজনৈতিক নেতারাও নিজেদের পদ ছেড়ে দিয়েছেন বলেই খবর। ফিরহাদের কথায়, 'বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। তাই নিয়ম মেনেই পদত্যাগ। আপাতত কলকাতা পুরসভার দায়িত্ব সামলাবেন পুর কমিশনার এবং পুর ও নগরোন্নয়ন দপ্তরের প্রধান সচিব। অন্যান্য পুরসভার প্রশাসক যাঁরা বিধানসভা ভোটে প্রার্থী হয়েছেন, তাঁদেরও একই পথে হাঁটতে হবে।'

    Published by:Suman Biswas
    First published: