• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • BSF Jurisdiction Controversy: বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির প্রতিবাদ, পঞ্জাবের পথেই বিধানসভায় প্রস্তাব আনছে রাজ্য

BSF Jurisdiction Controversy: বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির প্রতিবাদ, পঞ্জাবের পথেই বিধানসভায় প্রস্তাব আনছে রাজ্য

বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে বিতর্ক৷

বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে বিতর্ক৷

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়, সীমান্ত থেকে পঞ্চাশ কিলোমিটার ভিতেরর এলাকা পর্যন্ত তল্লাশি এবং প্রয়োজনে গ্রেফতারিও করতে পারবে বিএসএফ (BSF Jurisdiction Controversy)৷

  • Share this:

#কলকাতা: বিএসএফ-এর (BSF) এক্তিয়ার বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ করানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার৷ আগামী ১৬ নভেম্বর বিধানসভায় রাজ্য সরকারের তরফে এই প্রস্তাব পেশ করা হবে৷ সেক্ষেত্রে পঞ্জাবের পর দ্বিতীয় রাজ্য হিসেবে বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিরোধিতা (BSF Jurisdiction Controversy) করে প্রস্তাব পাশ হবে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায়৷

এ দিন পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় নিজেই বিধানসভায় প্রস্তাব আনার কথা জানিয়েছেন৷ তিনি বলেন, 'বিধানসভার ১৮৫ নম্বর রুল অনুযায়ী আমরা প্রস্তাব এনেছি, তা গৃহীত হয়েছে৷ বিএসএফ আইনে এ ভাবে এক্তিয়ার বৃদ্ধির এমন কোনও সুযোগ নেই৷ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে বিধানসভায় আলোচনা করা হবে৷'

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়, সীমান্ত থেকে পঞ্চাশ কিলোমিটার ভিতেরর এলাকা পর্যন্ত তল্লাশি এবং প্রয়োজনে গ্রেফতারিও করতে পারবে বিএসএফ৷ এতদিন সীমান্ত থেকে ১৫ কিলোমিটার পর্যন্ত এই ক্ষমতা ছিল বিএসএফ-এর হাতে৷ কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সরব হয় পশ্চিমবঙ্গ সহ বিরোধী শাসিত রাজ্যগুলি৷ ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে পঞ্জাব বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ করানো হয়েছে৷ বিরোধী শাসিত অন্যান্য রাজ্যগুলিও একই পথে হাঁটতে পারে৷

আরও পড়ুন: নন্দীগ্রাম মামলা কি ভিন রাজ্যে? মমতা-শুভেন্দু দ্বৈরথে সব নজর ১৫ নভেম্বরের দিকে

রাজ্য সরকারও যাতে বিধানসভায় একই ধরনের প্রস্তাব পাশ করিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে নিজেদের প্রতিবাদের বার্তা দেয়, ইতিমধ্যেই সেই দাবি তুলেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী৷ ফলে রাজ্য সরকার শেষ পর্যন্ত বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ করালে কংগ্রেসের সমর্থন যে থাকবে, তা পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে৷

ঘটনাচক্রে এ দিনই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভল্লা কলকাতায় এসেছেন৷ নিউ টাউনে রাজ্যের মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব এবং পুলিশের ডিজি-র সঙ্গে বৈঠক করেছেন তিনি৷ সেই বৈঠকেও বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনার কথা৷ রাজ্যের তরফেও বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে নিজেদের মনোভাব কেন্দ্রীয় সরকারকে জানিয়ে দেওয়া হবে৷

আরও পড়ুন: ফিরে এল সাংসদ তহবিল, এবার আসল পরীক্ষা জনপ্রতিনিধিদের

বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির প্রতিবাদ করে ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর অভিযোগ ছিল, বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বাড়িয়ে আসলে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ রাজ্য সরকার যে এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিধানসভায় প্রস্তাব আনতে পারে, সেই সম্ভাবনা ছিলই৷ আগামী ১৬ নভেম্বর সেই প্রস্তাব আনা হচ্ছে৷

যদিও বিজেপি-র সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, দেশের নিরাপত্তার স্বার্থেই বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধি করা হয়েছে৷ তাঁর কটাক্ষ, 'বেআইনি ধান্দাবাজি বন্ধ হয়ে যাবে বলেই এত আপত্তি!'

Published by:Debamoy Ghosh
First published: