Home /News /kolkata /
সহায়ক মুল্য এবার ৫০ টাকা বেশি, চাষিদের মন জয়ে সিদ্ধান্ত রাজ্যের

সহায়ক মুল্য এবার ৫০ টাকা বেশি, চাষিদের মন জয়ে সিদ্ধান্ত রাজ্যের

  • Share this:

#কলকাতা: চাষিদের কাছ থেকে সহায়ক মূল্যে ধান কেনার কাজ শুরু হয়ে যাচ্ছে আগামী সপ্তাহ থেকেই। আগামী সোমবার, ২ নভেম্বর থেকে রাজ্যের  বিভিন্ন প্রান্তের ব্লক গুলিতে এই কাজ শুরু করতে চলেছে রাজ্যের খাদ্য দফতর। ইতিমধ্যেই ধান বিক্রির জন্য রাজ্যের কাছে আবেদন জানিয়েছে প্রায় ১৪ লক্ষ মানুষ। অনলাইনে খাদ্য দফতরের ওয়েবসাইটে এই আবেদন জানানো যাবে।

এ ছাড়া অন্নদাত্রী অ্যাপের মাধ্যমেও আবেদন জানানো যাবে ধান কেনার জন্য। যে সমস্ত কৃষক কৃষকবন্ধু প্রকল্পের আওতায় আছেন, তাঁরা তাঁদের পরিচয়পত্র ও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর নিয়ে আসবেন ধান বিক্রয় কেন্দ্রে৷ তবে ধান বিক্রির টাকা সরাসরি কৃষকদের নথিভুক্ত ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি পাঠানো হবে। তবে মোবাইল নাম্বার ও ব্যাঙ্ক বদলের সুযোগ থাকছে। খরিফ মরশুমে ধান বিক্রির ক্ষেত্রে উৎসাহ বাড়বেই বলে মত খাদ্য দফতরের আধিকারিকদের। ২০১৭-১৮ সালে সরকারি ধান বিক্রয় কেন্দ্রে নথিভুক্ত কৃষকের সংখ্যা ছিল প্রায় ৫ লাখ৷ ২০১৮-১৯ সালে তা বেড়ে দাঁড়িয়ে যায় প্রায় ১২ লাখ। চলতি বছরে এখনও আবেদন জানিয়েছেন ১৪ লাখ৷

রাজ্য সরকার আশাবাদী এবার খরিফ মরশুমে ব্যাপক ফলন হবে৷ ফলে কৃষকের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। অন্যদিকে চলতি মরশুমে ধানের সহায়ক মূল্য বাড়িয়েছে রাজ্য সরকার৷ চাষিরা এখন পাবেন কুইন্টাল প্রতি ১৮৬৮ টাকা। যেটা তাঁরা পেতেন ১৮১৮ টাকা। এছাড়া নিয়মানুযায়ী সিপিসি'তে বিক্রয় করলে আরও ২০ টাকা দেওয়া হবে বোনাস হিসেবে। এছাড়া "এ" গ্রেড ধান বিক্রি করা হবে কুইন্টাল প্রতি ১৮৮৮ টাকায়। রাজ্য সরকারের লক্ষ্য আগামী মরশুমে ৫২ লক্ষ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করা।

এই মরসুমে গত অক্টোবর থেকে চলতি সেপ্টেম্বর অবধি রাজ্য সরকার ধান সংগ্রহ করেছে ৪৮.০৫ লক্ষ মেট্রিক টন ধান। এর মধ্যে বাড়তি ১৩ লক্ষ মেট্রিক টন বোরো ধান রাজ্য কিনেছে চাষিদের থেকে। আগামী বছর বিধানসভা ভোট। তার আগেই কৃষকদের জন্যে এই সুবিধা রাজনৈতিক ভাবেও শাসক দলকে সুবিধা দেবে বলে মত রাজনৈতিক মহলের।

Abir Ghosal

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Farmers, Mamata Banerjee, MSP

পরবর্তী খবর